অনুরোধ রাখেনি ভারত, দিল্লিকে ঢাকার চিঠি

মিজানুর রহমান

প্রথম পাতা ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৩২

আচমকা ভারতের পিয়াজ রপ্তানি বন্ধের সিদ্ধান্তের কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে বাংলাদেশ। দিল্লিকে লেখা ১৫ই সেপ্টেম্বরের এক কূটনৈতিক পত্রে খোলাসা করেই বলা হয়েছে, এমন সিদ্ধান্ত বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে হওয়া সমঝোতার প্রতি অবজ্ঞা। এ সিদ্ধান্তের সরাসরি প্রভাব পড়ছে বাংলাদেশের নিত্যপণ্যের বাজারে। পিয়াজ সরবরাহে বিঘ্ন ঘটায় বাংলাদেশ খুবই উদ্বিগ্ন। চিঠিতে বলা হয়, ২০১৯-২০ সালে বন্ধুপ্রতিম বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে যে বিস্তৃত আলোচনা হয়েছিল আকস্মিক এ সিদ্ধান্ত তাকে আন্ডারমাইন করেছে। চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, ২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছিল, এ ধরনের কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়ার প্রয়োজন হলে তা যেনো বাংলাদেশকে আগেভাগেই অবহিত করা হয়। চলতি বছরের ১৫ থেকে ১৬ই জানুয়ারিতে বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য সচিব পর্যায়ের বৈঠকেও ঢাকা অনুরোধ জানিয়েছিল, যেনো ভারত পারতপক্ষে পিয়াজ রপ্তানির ওপর কোনো ধরনের নিষেধাজ্ঞা না দেয়। যদি কোনো কারণে দিতেই হয় তবে যেনো অবশ্যই নিষেধাজ্ঞার নোটিশ জারির আগে বাংলাদেশকে জানানো হয়।
ঢাকার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ১৪ই সেপ্টেম্বর পিয়াজ রপ্তানির ওপর ভারতের নিষেধাজ্ঞা জারির ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বাংলাদেশ বিষয়টি দিল্লির নজরে এনেছে এবং বাংলাদেশের বাজারে যে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে তা তুলে ধরে যতো দ্রুত সম্ভব তা প্রত্যাহার এবং সরবরাহ স্বাভাবিক করতে অনুরোধ করেছে। ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশনের মাধ্যমে এবং দিল্লিস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের উভয় চ্যানেলেই বাংলাদেশ সরকারের প্রতিক্রিয়া এবং অনুরোধ বিষয়টির অভিন্ন বার্তা সাউথ ব্লকে পৌঁছেছে বলে নিশ্চিত করেছে সেগুনবাগিচা।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০২০-০৯-১৭ ০০:১৮:০৩

Trade agreements is binding between two countries. Violation of agreement is subject to penalties, or recovery of damage of victims country is legal right, unless properly executed or followed by proper method to cancel. A friendship doesn't keep chances to announce cancellation one sided. The victim country has the right to claim damage

Amir

২০২০-০৯-১৭ ১২:৪৭:৩২

আমি কোন রাজনৈতিক বিতর্কে যাব না, পশ্চিমা দেশগুলোতে এক ধরনের পিয়াজ ৫বা ৬ টায় কেজি হয় এবং উৎপাদনও বেশি হয়,পুষ্টিমানও ভাল ,আমাদের দেশে কেন ঐ পিয়াজ চাষ করার উৎসাহ দেওয়া হয় না- কৃষি মন্ত্রণালয়ের কাছে আমার সবিনয়ে প্রশ্ন।

manojmaity

২০২০-০৯-১৭ ১২:৩৮:৫৬

Indian Hindus are historically conspirators, liars, jealous , mean, self centered, free lunchers, and basically first class bastards. We did not learn from similar situation last year and yet this year we are giving these starving chaddi-banyan and lengutha wearing pikers hilsha fish to eat through increasing our internal cost.. We are a foolish nation that believes contantly on our foes.

Sarwar

২০২০-০৯-১৬ ২৩:১৩:১১

আমাদের প্রধানমন্ত্রীর কি এ ব্যপারে ভারতের বানিজ্য যুগ্ন-সচীবের সাথে মিটিং করা উচি? ভারত তো সবসময় আমাদের পি এমের সাথে ওদের সচীবের মিটিং পছন্দ করে আর তাছাড়া ওদেরকে তো আমাদের বংগভবন ছাড়া আর সবই দিয়েছি বিনিময়ে আমরা হয়েছি গরু চোরের জাতি।

মোতাহার

২০২০-০৯-১৭ ১১:৩৯:৫০

সাপের কাছে অনুরোধ, বাবা কামড়িয়ো না, আর তাই সাপ আপনার অনুরোধে কামড়ানো বন্ধ করে দেবে! রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়াসাল্লামের হাদীস অনুযায়ী মুমিন কখনো এক গর্তে একবারের বেশী দংশিত হয়না। আর বাংলাদেশ বারে বারে দংশিত হয়। তাই বোঝা যায় দেশ হিসাবে বাংলাদেশ ঈমান থেকে কত দূরে! আর হবেইবা না কেন? সেকুলারিজম আর ঈমান তো এক সাথে যায়না।

কাজল খন্দকার

২০২০-০৯-১৬ ২১:৪২:২৯

কোন দেশের উপর ভরসা না করে আমাদেরকে পেয়াজ উৎপাদনে জরুরী ব্যবস্থা নিতে হবে। এ ব্যাপারে কৃষকগণকে উৎসাহিত করতে হবে। ফালতু খিচুড়ি রান্নার প্রকল্প এবং বেহুদা হাত ধোয়ার নাটক বাদ দিয়া কৃষকদেরকে প্রণোদনা দিন এতে পেয়াজের উৎপাদন বাড়বে মানুষ উপকৃত হবে।

Md. Harun al-Rashid

২০২০-০৯-১৭ ১০:০৮:১২

একটা সার্বভৌম দেশের অনুরোধ রক্ষার শিষ্টাচার প্রদর্শনে ব্যর্থ দেশের অহমিকাবোধ অবজ্ঞার নামান্তর বলে মনে হয়েছে। এ নিয়ে হৈ চৈ বা দেন দরবার কোন সুফল আনবেনা। বিষয়টাকে চ্যালেন্জ হিসেবে নিয়ে আসছে মৌসুম থেকে উচ্চ ফলনশীল জাতের পেঁয়াজ উৎপাদনে কৃষকদের প্রনোদনা দিন, বীজ সহজ লভ্য করুন। বি এ ডি সির জেলা পর্যায়ের খাদ্য গুদাম/ বীজ ভান্ডার প্রাঙ্গনে কৃষকের উৎপাদিত পেঁয়াজ সল্প খরচায় বা ভূর্তকি প্রদান করে সংরক্ষনের ব্যবস্হা কিভাবে করা যায় তার কাজ এখনি শুরু করুন। বিষয়টি যেন বালিস, বই, পর্দা বা নিছক বিদেশ ভ্রমনের মওকা না হয় সে দিকে দৃষ্টি রাখুন। সর্বোপরি পেঁয়াজ উৎপাদনের জন্য প্রাকৃতিক সখ্যতা আছে কেবল সে সকল অঞ্চলগুলি বাছাই করে স্হানীয় কৃষি বিভাগগুলিকে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা স্হির করে দিন। মধ্যপ্রাচ্যের উসর মরুতে আমাদের লোকেরা কৃষিতে বিপ্লব আনে।

রাহমান

২০২০-০৯-১৬ ১৯:৩০:১৫

কালে কালে যুগে যুগে যা হয়ে এসেছে তা হয়েছে আস্মিক হওয়ার কি আছে দাস দাসি বা পরজীবি ও নতজানু এদের বেলা এটাই হওয়ার

Alayer Khan

২০২০-০৯-১৬ ১৩:৪৭:১৯

ভারতের কথায় না চললে ওরা আমাদেরকে জুতোদেবে আমাদের সরকারের এইটা বুঝতেহবে। একটু ভেবে দেখুন আমরা এখনও ভারত যাইতেছে তাই পাইতেছে কিন্তু আমরা কি পাচ্ছি। না পাচ্ছি যমুনার পানি। সীমান্তে পাচ্ছি গুলি। ওরা আমাদের দেশের সানতি চায়না। দয়া করে একটু ভেবে দেখবেন।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

দেশে এসে বিপাকে লাখো প্রবাসী

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

সরকারি কেনাকাটায় অস্বাভাবিক দাম নিয়ে সতর্কতার নির্দেশ

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

 বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে কেনাকাটায় অস্বাভাবিক দাম নিয়ে সতর্কতা জারি করে ছয়টি নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। ...

ব্যাংকিং খাতে দুর্নীতি বেড়েছে ব্যাপক হারে

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

বাংলাদেশ ব্যাংকের দুর্বল নিয়ন্ত্রণ ও তদারকি, সরকারের সদিচ্ছার ঘাটতি এবং রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের কারণে ব্যাংকিং খাতে ...

করোনায় মৃত্যু ৫০০০ ছাড়ালো

৫০.৪৭ ভাগই ষাটোর্ধ্ব

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

নাটকীয়তা, ৪ ঘণ্টা পর মুক্ত নুর

২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

সৌদি প্রবাসীদের বিক্ষোভ

টিকিটের জন্য হাহাকার

২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

তিস্তার পানি বণ্টনের আলোচনায় ইতিবাচক অগ্রগতি

২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

 তিস্তাসহ অভিন্ন নদীর পানি বণ্টনের আলোচনায় ইতিবাচক অগ্রগতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ...



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



শনাক্ত ৩,৫০,০০০ ছাড়ালো, মৃত্যু ৫০০০ ছুঁই ছুঁই

দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ে শঙ্কা যে কারণে