অবাক করার মতো হলেও সত্যি

বিনোদন ডেস্ক

বিনোদন ৩০ মে ২০২০, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:২৪

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। নিজের মনের কথা প্রকাশে কখনোই কণ্ঠাবোধ করেন না। বলিউড পাড়ায় তিনি ‘ঠোঁটকাটা’ বলেও পরিচিত। তবে তার অভিনয়ের প্রশংসা না করে পারেন না কেউ। তাকে বলা হয় বলিউড কুইন। আর এর সবই তিনি অর্জন করেছেন মেধা দিয়ে। কিন্তু অনেকেই জানেন না, এক সময় তার তেমন কিছুই ছিল না। ঘর থেকে যখন বেরিয়ে পড়েন, তখন তার পকেটে ছিল মাত্র দেড় হাজার রুপি।
কঙ্গনা এখন বলিউডের সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত অভিনেত্রী। মুম্বইয়ের প্রাণকেন্দ্রে তিনি একটি বাংলো অফিস খুলেছেন। যেটার জন্য জমি কেনা থেকে শুরু করে এর ডিজাইন সব নিজের মনের মাধুরী মিশিয়ে করেছেন। এর জন্য কঙ্গনা খরচ করেছেন ৪৮ কোটি রুপি। বিষয়টি অবাক করার মতো হলেও সত্যি। ভারতের বিনোদনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম পিঙ্কভিলার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। বিলাসবহুল এই অফিসের প্রতিটি রুমের ডিজাইন করা হয়েছে কঙ্গনার ইচ্ছেমতো। প্রাচীন স্থাপত্যের ছোঁয়ায় ভরা আর পরিবেশবান্ধব তার বাংলো। কঙ্গনা নিজের প্রোডাকশন হাউজ ‘মনিকর্ণিকা ফিল্মস’ এর জন্য মুম্বইয়ের অভিজাত এলাকা পালি হিলে ওই বাংলো নির্মাণ করেছেন। পালি হিলের ওই পাঁচ নম্বর বাংলো সাজাতে তার সঙ্গে ছিলেন ডিজাইনার শবনম গুপ্ত। এটি সম্পূর্ণভাবে প্লাস্টিকমুক্ত। এখানে একটি ক্যাফেও রয়েছে। ভবনের একদম উপরের তলায় কঙ্গনার ব্যক্তিগত অফিস। কনফারেন্স রুমের নজরকাড়া দেয়াল, আসল কাঠের টেবিল, ফ্লোরল্যাম্প ও চেয়ারসহ অধিকাংশ আসবাবপত্র বিন্যাসকৃত ও হাতে তৈরি। সেখানে মেডিটেশনের জন্য আলাদা জায়গাও আছে। সাজসজ্জার ক্ষেত্রে ইউরোপের আধুনিক স্থাপত্যবিদ্যা ও পুরোনো দিনের ঐতিহ্যকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। এদিকে কঙ্গনাকে আগামীতে ‘থালাইভি’ নামের একটি ছবিতে অভিনয় করতে দেখা যাবে। এটি ভারতের তামিলনাড়–র সাবেক মুখ্যমন্ত্রী প্রয়াত জয়ললিতার বায়োপিক। ছবিটি পরিচালনা করবেন এ এল বিজয়।

আপনার মতামত দিন



বিনোদন সর্বাধিক পঠিত