‘বেঁচে থাকলে পরিবারের সঙ্গে অনেক ঈদ করতে পারবেন’

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন ১৯ মে ২০২০, মঙ্গলবার, ৫:০৯

 ঈদে ঘরমুখী মানুষদের এবার বাড়ি না যাওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ। ফেরি ঘাটে আটকা পড়াদের স্ব অবস্থানে ফিরে আসতেও  বলেছেন তিনি। আজ মঙ্গলবার পবিত্র ঈদুল ফিতর ও করোনা মহামারী নিয়ে আইন-শৃংখলা বিষয়ে রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আইজিপি এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, আপনারা যারা পরিবারের সঙ্গে ঈদ করার জন্য ফেরিঘাটে আটকা পড়েছেন তারা স্ব স্ব অবস্থানে ফিরে আসুন। এই অবস্থায় বাড়ি গেলে আপনারা করোনা দূত এমনি যম দূত হয়ে আপনজনের কাছে যাবেন। বাড়ি গিয়ে আপনাদের আপনজনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলবেন। বেঁচে থাকলে পরিবারের সঙ্গে অনেক ঈদ করতে পারবেন। আর মরে গেলে এই ঈদই শেষ ঈদ । ফেরিঘাটে আটকা পড়াদের অনুরোধ করে তিনি বলেন, দয়া করে যেখানে ছিলেন সেখানে ফিরে আসুন।
সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। দয়া করে কেউ ঝুঁকি নেবেন না।  যে পরিবারের কাছে যাচ্ছেন ঈদ করার জন্য সেখানে করোনা সংক্রমণ ছাড়ানোর শঙ্কা তৈরি করবেন না। যারা আটকে আছেন তাদের ঢাকায় ফেরার জন্য পুলিশ প্রয়োজনে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
বেনজীর আহমেদ বলেন, শপিংমলগুলো খোলা হয়েছে। আমরা মার্কেট সমিতির সঙ্গে কথা বলেছি, এসকল বিষয়ে সরকার  নির্দেশ জারি করেছেন। যাতে করে মার্কেটগুলোতে শপিং নিরাপদ হয়। আমরা শপিং এর বেলায় একটি কথা উচ্চারণ করছি, 'স্বাস্থ্যবিধি ও সুরক্ষা বিধি যেগুলো আছে  সেগুলো অবশ্যই মেনে চলতে হবে। মার্কেট সমিতি, বিক্রয়কর্মী ও ক্রেতারা মানবেন। সবাই এসব স্বাস্থ্যবিধি মেনেই শপিং করবেন। ৫/১০ দোকান দেখে এক দোকানে শপিং করার যে কালচার আছে সেটাকে এবছর পরিহার করাই ভালো হবে। বলেন, করোনায় মৃত্যু কিন্তু সত্যচোখা, এটা কোন জিজুর ভয় নয়। এটা  রিয়েল ফ্যাক্ট। তাই যে স্বাস্থ্যবিধির কথা বলা হয়েছে। সেটা সবাই মেনে চলবেন। আমরা যদি এগুলো মেনে চলি তবে আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস বৈশ্বিক এই দুর্যোগ থেকে জাতিকে দেশকে জনগণকে তুলনামূলকভাবে রক্ষা করতে পারব।
আইজিপি বলেন,  ঈদেন দিন কেউ ফুর্তি করার জন্য ঘর থেকে বের হবেন না।  এমনকি  কোনো দৃশ্য দেখার জন্যও বের হবেন না। ঘরে থাকুন। একটু সতর্কভাবে চলুন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঈদের জামাত অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে সরকারের নির্দেশনা মেনে চলুন।
জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে বাধ্য করা বা সান্ধ্য আইন জারি করা হবে কিনা জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, সরকারকে সার্বিক বিষয়ে মূল্যায়ন করে সিদ্ধান্ত নিতে হয়। অনেক দেশ বিধি অনুসরণে জনগণের উপর জোর খাটাচ্ছে। কিন্তু আমি বলব আমরা গত দুই মাস যেভাবে জনগণের সাথে কাজ করেছি, জনগণকে নিয়ে কাজ করেছি সেভাবেই করবো। প্রধানমন্ত্রী প্রতি ঘণ্টায় ঘণ্টায় সবকিছুর খবর রাখছেন।
পুলিশ কেন কঠোর হচ্ছে না সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, সরকার দেশের মানুষের জন্য যেটা ভালো সেটাই করছে। দেশে অনেক প্রান্তিক ও খেটে খাওয়া মানুষ রয়েছে। সরকারকে সার্বিক দিক বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নিতে হয়। অনেক দেশ মানুষকে ঘরে রাখতে শক্তি প্রয়োগ করলেও আমরা কোনো শক্তি প্রয়োগ করিন

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Yousuf Haroon

২০২০-০৫-১৯ ০৮:৫১:৩৬

Why not impose carfwee, so that this stupid and staburn people will stay home. If Sudia Arab can impose carfwee, why can't we? Where's the problem? Instead of giving lectures do something.

Kamal

২০২০-০৫-১৯ ০৭:০৯:৪৯

Mr benojir, it's an opportunity for police to grab commission ( cars , trucks )during this pandamic period according to daily news papers. But you didn't say anything about this, this is ongoing police offence. We have seen some moral police beside this Haramkhur police. Remember corona virus still active in sonar bangla. Joy bangla.

ম নাছিরউদ্দীনশাহ

২০২০-০৫-১৯ ০৬:৪৪:০২

এটাই যেন জীবনের শেষ সপিং না হয়। গুরুত্বপূর্ণ কথায় বলেছেন। সারাদেশে মহামারী আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ডাক্তার নার্স সাংবাদিক দেশের হাজার হাজারো মানুষ আক্রান্ত মৃত্যুর মিছিল হচ্ছে। লাশের নগরীতে খুশির ঈদ এরা মানুষ নাকি পশু এদের বিবেক মানবিকতা ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়ে গেছেন। আল্লাহ্ এদের হেদায়েতের মালিক

Kazi

২০২০-০৫-১৯ ০৪:৪৬:৫৮

I strongly support this.

জাফর আহমেদ

২০২০-০৫-১৯ ০৪:৪১:৩৭

ভাই শুধু শুধু কথা বলে কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না, তাই যদি পারেন শক্ত হাতে লাঠি ধরেন, তাহলেই যদি কিছুটা আপনার বাহিনী ও মানুষ নামের প্রানি গুলো বাঁচে,

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

গণস্বাস্থ্যের কিটে পরীক্ষা

করোনায় আক্রান্ত ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

২৫ মে ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



গণস্বাস্থ্যের কিটে পরীক্ষা

করোনায় আক্রান্ত ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী