ভারতে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর আক্রমণ করলে কড়া শাস্তি ও বড় অঙ্কের জরিমানা

কলকাতা প্রতিনিধি

ভারত ২২ এপ্রিল ২০২০, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৩১

করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা দেবার কাজে চিকিৎসক, নার্স ও অন্যান্য স্বাস্থ্য কর্মীরা প্রাণপাত পরিশ্রম করেছেন। এদের অকুতোভয় ভূমিকার জন্য সকলে তাদের অভিনন্দন জানাচ্ছেন। কিন্তু একদল মানুষ করোনা আতঙ্ক ও অশিক্ষার বশবর্তী হয়ে চিকিৎসক, নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা করছেন। তাদের বাড়িতে ঢুকতে দিচ্ছেন না। এমন কি পরিবারের সদস্যরাও একদল মানুষের রোষের শিকার হচ্ছেন। তাদের সম্পত্তিরও ক্ষতিসাধন করা হচ্ছে। নানা ভাবে হেনস্থার পাশাপাশি অনেক বাড়ির মালিক চিকিৎসক ও নার্সদের বাড়ি ছেড়ে চলে যাবার জন্য হুমকিও দিচ্ছেন। বিভিন্ন সময়ে সরকার এ ব্যাপারে সকলকে কঠোর হওয়ার বার্তা দিলেও পরিস্থিতির খুব একটা পরিবর্তন হয়নি।
বরং গত কয়েকদিনে মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, বিহার এবং কর্ণাটক থেকে চিকিৎসক, নার্স ও অন্য স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর আক্রমণের একাধিক ঘটনা সামনে এসেছে। এই বিষয়ে কড়া আইন প্রণয়ন করতে কেন্দ্রের কাছে দাবি জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে চিকিৎসকদের উপর আক্রমণের প্রতিবাদে দেশজুড়ে হোয়াইট অ্যালার্ট জারি করেছিল চিকিৎমকদের সংগঠন ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন। দেশের সব হাসপাতালে সাদা অ্যাপ্রন পরে মোমবাতি জ্বালিয়ে প্রতিবাদের ডাক দেওয়া হয়েছিল। তবে বুধবার ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসসিয়েশনের সদস্যদের সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন ভিডিও কনফারেন্স করে কড়া শাস্তির ব্যবস্থা করার কথা জানানোর পর  অ্যাসোসিয়েশন  প্রতীকী আন্দোলন তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এদিনই কড়া শাস্তি এবং বড় অঙ্কের জরিমাণার বিধান রেখে ভারতে অর্ডিনান্স জারি করা হয়েছে। বুধবার সকালে কেন্দ্রীয মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিকেলে কেন্দ্রীয তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকার সাংবাদিকদের এই তথ্য জানিয়ে বলেছেন, চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী  এবং আশা কর্মীদের উপর আক্রমণের ঘটনা কোনওভাবেই মেনে রেওয়া হবে না। বরং আক্রমণকারীদের ৬ মাস থেকে ৭ বছর পর্যন্ত কারাবাস হতে পারে। হাতে পারে ৫০ হাজার থেকে  ২ লাখ রুপি পর্যন্ত জরিমানাও। মন্ত্রী জানিয়েছেন, সংশোধিত মহামারী আইনে এ ব্যাপারে অর্ডিনান্স জারি করা হয়েছে। আক্রমনকারীদের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা করা হবে। একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ভারত সরকার চিকিৎসক, নার্স সহ সব স্বাস্থ্য কর্মীদের বড় অঙ্কের বিমার আওতায় আনার কথা ঘোষনা করেছেন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Nafiul

২০২০-০৪-২২ ০৫:৩১:২২

বাংলাদেশে কবে হবে? আমাদের দেশেও প্রয়োজন।

আপনার মতামত দিন

ভারত অন্যান্য খবর



ভারত সর্বাধিক পঠিত