রামগঞ্জে গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

বাংলারজমিন ২৪ মার্চ ২০২০, মঙ্গলবার

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার আশারকোটা গ্রামে রোববার ভোর রাতে পাষণ্ড স্বামী, দেবর, বাসুর যৌতুকের টাকা না পেয়ে শারমিন আক্তার নামের এক গৃহবধূকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। স্থানীয় বাড়ির লোকজন মুমূর্ষু গৃহবধূকে উদ্ধার করে রামগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এব্যাপারে ৫ জনকে আসামি করে থানা এজাহার দায়ের করা হয়েছে। সূত্রে জানায়, উপজেলার আশারকোটা গ্রামের কোয়াজি বাড়ির ইউনুসের বখাটে পুত্র মাসুদ হোসের সাথে পার্শ্ববর্তী সোনাইমুড়ি উপজেলার মটুরি গ্রামের কলিম উল্যাহর মেয়ে শার্মিন আক্তারের ২০০৭ সালে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর শারমিনের পরিবার মাসুদ হোসেনকে একটি গাড়ি ক্রয় করতে ৪ লাখ টাকা প্রদান করে। পরে ২০১৭ইং সালের দিকে মাসুদ তার স্ত্রী শারমিনকে তার বাবার বাড়ি থেকে আরো ৫ লাখ টাকা নিয়ে আসতে নানান ভাবে চাপে সৃষ্টি অব্যাহত রাখে। কিন্তু শারমিন ওই টাকা আনতে অপরাগতা প্রকাশ করায় বখাটে মাসুদ ৫ মাস পূর্বে গোপনে কাউকে না জানিয়ে চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার কেশরাঙ্গা পাটোয়ারীর মুকবুল হোসেনের মেয়ে রুবি আক্তারকে ২য় বিয়ে করে। এরই ধারাবাহিতকায় রোববার রাতে মাসুদ হোসেন চট্টগ্রামে থেকে এসে বাড়িতে উপস্থিত হয়ে ভাইদের সাথে পরামর্শ করে পরিকল্পিতভাবে শারমিনের উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শারমিন বলেন, ভোর ৪টার দিকে স্বামী মাসুদ, বাসুর জাকির হোসেন বাচ্চু, দেবর রাশেদ, বাসুর পুত্র রায়হান, শাশুড়ি আম্বিয়া ধারালো চোরা নিয়ে আমার ঘরে প্রবেশ করে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। এ সময় আমার চিৎকারে লোকজন ছুটে আসলে তারা দৌড়ে পালিয়ে যায়। এব্যাপারে বারবার যোগাযোগে চেষ্টা করেও মাসুদ ও তার পরিবারের কাউকে পাওয়া যায়নি। রামগঞ্জ থানার (ওসি তদন্ত) মো. ফজলুল হক বলেন, কুপিয়ে জখম হওয়ায় গৃহবধূর সাথে তার স্বামী, দেবর, বাসুরদের দীর্ঘ কয়েক মাস যাবত মামলা চলে আসছে। রোববার ভোর ৪টার দিকে ঘটে যাওয়ায় ঘটনায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধূ তার ভাইয়ের মাধ্যমে দায়ের করা এজাহার তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

আপনার মতামত দিন



বাংলারজমিন অন্যান্য খবর



বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত