কীভাবে হেরেমখানা গড়ে তোলেন পাপিয়া?

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার, ১:১১ | সর্বশেষ আপডেট: ৮:০৫

আটকের পর বহিষ্কৃত মহিলা যুবলীগ নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়ার অপরাধ জগতের চাঞ্চল্যকর নানা তথ্য বের হচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে দেহব্যবসা, অস্ত্র-মাদক ব্যবসা করে সম্পদের পাহাড় গড়ে তুলেছেন। ক্ষমতার শীর্ষে না থেকেও দাপট দেখিয়েছেন। মনোরঞ্জণ করে মন যুগিয়েছেন ওপরওয়ালাদের। আবার তাদেরই ব্লাকমেইলিং করে ফাঁদে ফেলেছেন। চাকরি দেয়ার নাম করে হাতিয়ে নিয়েছেন বিপুল পরিমাণ টাকা।  প্রশ্ন ওঠেছে, একজন শামীমা নূর পাপিয়া তো একদিনে তৈরী হয়নি। একদিনে হেরেম খুলে বসেননি তিনি। লোকচক্ষুর আড়ালে বসেও করেননি এগুলো।
প্রকাশ্যেই ছিলেন, দাপটেই ছিলেন তিনি। ওঠাবসাও করেছেন শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিবর্গদের সঙ্গে।  

প্রশ্ন ওঠেছে, কীভাবে তিনি গড়ে তোলেন এই আধুনিক হেরেমখানা। তার এই হেরেমে যাতায়াত করতেন কারা? তার পেছনেই বা কে ছিলো? যাদের কারণে এতোদিন নির্বিঘেœ এসব অপরাধ করে গেছেন তিনি। অনেকে বলছেন, শক্ত রাজনৈতিক কানেকশন তাকে বেপরোয়া করেছে। পাশাপাশি ছিলো প্রশাসনিক ব্যাকআপও।

জানা যায়, ২০০০ সালের দিকে নরসিংদী শহর ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক মতি সুমনের উত্থান শুরু। শৈশব থেকেই চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও ব্ল্যাকমেইল ছিল সুমনের প্রধান পেশা। দূরদর্শী, চতুর ও মাস্টারমাইন্ড সুমন রাজনীতিবিদদের সঙ্গে সখ্য গড়ে তোলেন। ২০০১ সালে পৌরসভার কমিশনার মানিক মিয়াকে যাত্রা প্যান্ডেলে গিয়ে হত্যার পর আলোচনায় আসেন তিনি। এরই মধ্যে বিয়ে করে রাজনীতিতে কাজে লাগান পাপিয়াকে। ভিড়িয়ে দেন প্রভাবশালী রাজনীতিবিদদের সঙ্গে।

২০১৪ সালের ১৩ই ডিসেম্বর জেলা যুব মহিলা লীগের সম্মেলনে  তৌহিদা সরকার রুনা সভাপতি ও শামীমা নূর পাপিয়া সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। সম্প্রতি আওয়ামী লীগের সাবেক জেলা সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রয়াত এডভোকেট আসাদুজ্জামানের স্মরণসভায় বিশাল শোউাউন করেন পাপিয়া-মতি সুমন।
এক ব্যবসায়ী জানান, ব্ল্যাকমেইলিংই পাপিয়া-মতি সুমন দম্পতির প্রধান  পেশা। তারা প্রথমে বিভিন্ন ধনাঢ্য ব্যক্তির কাছে সুন্দরী নারীদের পাঠান। তারপর কৌশলে ধনাঢ্য ব্যক্তিদের ডেকে এনে তাদের কর্মকা- ভিডিও করেন। পরে তাদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেন।

দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে পত্রিকাটির নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান লিখেছেন, ‘এদের কেউ রাজনৈতিকভাবে ক্ষমতাবান কেউ বা প্রশাসনিকভাবে ক্ষমতাবান কেউ বা অর্থবান। কেবল বেশ্যাকে আটক করলেই হবে না, তার দালাল এবং খদ্দেররা যত ক্ষমতাবানই হোক তাদেরকেও আটক করা প্রয়োজন। না হয় এই কলুষিত অন্ধকার পথ থেকে রাজনীতি, প্রশাসন ও সমাজকে আলোর পথে ফিরিয়ে আনা যাবে না। মন্ত্রীদের বাড়ি বাড়ি, অফিসে অফিসে, সচিবালয়ে কর্মকর্তাদের দুয়ারে দুয়ারে সকাল-সন্ধ্যা দলীয় পদ-পদবি পরিচয়ে একদল নারী কেন ছুটছে? দীর্ঘদিন ধরে এই প্রশ্ন সমাজে ওঠছে। ক্ষমতার ছায়ায় থেকে সারা দেশে কারা নানা পদ-পদবি ও ক্ষমতা এবং অর্থবিত্তের মালিক হচ্ছে এই প্রশ্ন জোরালো হচ্ছে। উত্তর মিলছে না। মানুষের মুখে মুখে একেকটি চরিত্র নিয়ে কত কথা উড়ে। কিন্তু মানুষ অসহায়। অতীতের কোনো কালে এই ধরনের আগ্রাসী রাজনৈতিক বাণিজ্যে একদল অসৎ পুরুষের সঙ্গে এমন করে একদল  লোভী অসৎ নারী পাল্লা দিয়ে ছুটেনি।

কারা চেয়েছেন তাকে শয্যায়। নষ্টদের হাতে সবকিছু চলে যাওয়ায় অসৎ দাপুটেরা ভুলে যাচ্ছে, কী নিয়ে অহংকার করা গৌরবের আর কী নিয়ে আত্মঅহংকারে ভোগা বা দম্ভ করা লজ্জা ও গ্লানির। একটা অস্থির ও অশান্ত সময় অতিক্রম করছি আমরা।

পাপিয়া পিউদের মতো নষ্ট নারী আটক হলে জানা যায় কতটা অপরাধী।  যে নারী ও পুরুষ ক্ষমতার ছায়ায় থেকে ক্ষমতাবানদের সহযোগিতায় অসৎ মতলব হাসিল করে অঢেল অর্থ-সম্পদ বাগিয়ে নিয়েছে তাদের খবর আর জানা যায় না।’

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

sifat khan

২০২০-০২-২৭ ১৯:২৩:০০

adae ainar ayty ana darkar

Saif Masum

২০২০-০২-২৪ ১৮:৫৪:৩২

আমাদের দেশে পাপিয়াদের মতো অনেক ***আছে যারা রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থেকে অথবা রাজনীতিবিদদের কাছের মানুষ সেজে এমন অনেক জঘন্য অপরাধ করছে যা আমরা জানতে ও পারিনা। শুধু পাপিয়া না আরো অনেক বড়ো বড়ো অপরাধী আছে আমাদের নাগের ডগায় অনেক অপরাধ করে বেড়ায়। কিন্তু আমরা জানিনা। অনেক সময় দেখে ও না দেখার ভান করতে হয়। অথচ আমাদের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী একটু সচেতন হলে এদেরকে গ্রেপ্তার করে, এই সমস্ত অপকর্ম দমন করে এদেরকে শাস্তি দেওয়া সম্ভব। পাপিয়ারা আজ ধরা পড়েছে , হয়তো তাদের শাস্তি ও হতে পারে। এদেরকে যদি এখন ই দমন করা না যায় তাহলে আমাদের স্বপ্নের সোনার বাংলা শুধু স্বপ্নের মধ্যে ই সীমাবদ্ধ থাকবে, কখনো বাস্তব হবেনা। আমরা সোনার বাংলাদেশ চাই , এই দেশে অপরাধীর কোনো জায়গা নাই।

KAMRUL ISLAM

২০২০-০২-২৪ ১৮:০৯:৪১

awamilegue top to botom same like peo !!!! shame on BAL !!

শওকত আলী

২০২০-০২-২৪ ১৮:০০:৫৪

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করতে হবে। নতুবা এই দেশে সাধারণ মানুষের বসবাস অযোগ্য হয়ে যাবে। নিরপেক্ষভাবে সৎ মানুষ দিয়ে এই অভিযানগুলো চালাতে হবে। রন্ধ্রে রন্ধ্রে আজ দুর্নীতি ও মাদক গোটা দেশকে ছেয়ে ফেলেছে। বাংলাদেশের প্রতি ইঞ্চি জায়গা, বাড়ি-ঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ইত্যাদি জায়গায় চিরুণী অভিযান পরিচালনা করে ন্যায়-অন্যায় বের করে আনতে হবে। তাহলে এই দেশটি সোনার বাংলায় রূপ পাবে।

Abdul Hannan

২০২০-০২-২৪ ১৭:৫৩:৪০

কেবল বেশ্যাকে আটক করলেই হবে না, তার দালাল এবং খদ্দেররা যত ক্ষমতাবানই হোক তাদেরকেও আটক করা প্রয়োজন। না হয় এই কলুষিত অন্ধকার পথ থেকে রাজনীতি, প্রশাসন ও সমাজকে আলোর পথে ফিরিয়ে আনা যাবে না। চমৎকার উপস্থাপনা। ধন্যবাদ মানবজমিন পত্রিকাকে।

Badsha Wazed Ali

২০২০-০২-২৪ ১৭:২২:৪২

পাপিয়া ধরা পড়েছে। মানুষ খুশী। মানুষ আরো খুশী হতে চায়। পাপীয়ার সাথে কাদের দহরম ছিল। তাদের নাম সামনে আসুক। এটা বেশী চাওয়া। তাহলে, রাজনীতি থাকলো কোথায়? রাজনীতি বড় নিষ্ঠুর। কারো চাওয়া- পাওয়া নয়। বরং, লাভ কোথায় বেশী-- সেটা বড় কথা। মাননীয় প্রধান মণ্ত্রীকে ধন্যবাদ পাপীয়াকে হাতকড়া পরানোর জন্য।

নাছিরউদ্দীন

২০২০-০২-২৪ ০১:৪৪:২৫

পাপিয়ার সাথে কারা, পাপিয়ার পেছনে কারা জাতি কি কখনও জানতে পারবে? নাকি কয়েক দিন লেখালেখি বলাবলি করে অন্য কোনো ইস্যুর ধাক্কায় হারিয়ে যাবে।

পলাশ

২০২০-০২-২৪ ১৩:৪৯:০১

খেলারাম নেত্রি, খেলারাম রাজনীতি, খেলারাম দখলদার বাহীনি। মিলে মিসে একাকার/

আপনার মতামত দিন



অনলাইন অন্যান্য খবর

মাধবদীতে জুয়াখেলা নিয়ে গোলাগুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ, আহত-১৫

৮ এপ্রিল ২০২০

মাধবদীতে জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে অন্তত ২০টি বাড়িতে ভাংচুর, লুটপাট ও ককটেল বিস্ফোরণসহ গোলাগুলির ঘটনা ...

তোমায় ভালোবাসি বলে

৮ এপ্রিল ২০২০

করোনা সন্দেহে উখিয়ায় একজনের বাড়ি লকডাউন

৮ এপ্রিল ২০২০

করোনা রোগী সন্দেহ করে লুকিয়ে থাকা উখিয়া থেকে একজনকে উদ্ধার করে স্যাম্পল টেস্টের জন্য পাঠানো ...

কমলগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে শিশুর মৃত্যু

৮ এপ্রিল ২০২০

কমলগঞ্জের রহিমপুর ইউপির কালেঙ্গায় করোনা উপসর্গ নুসরাত জাহান নামে দুই বছরের এক শিশু জ্বর ও ...

নারায়ণগঞ্জে যুবকের ফোন পেয়ে ওষুধ পৌছে দিলেন ইউএনও

৮ এপ্রিল ২০২০

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ইউএনও নাহিদা বারিকের মোবাইলে বুধবার সকালে এক যুবকের হঠাৎ ফোন। তিনি ফোনে ...

নোয়াখালীতে বিয়ের আসরে কুপিয়ে হত্যা

৮ এপ্রিল ২০২০

নোয়াখালী বেগমগঞ্জের কুতুবপুরে বিয়ে শেষে নববধূকে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে সুমন বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড ...



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত