আমাদের প্রার্থীরা ক্লিন ইমেজের, বিজয় হবেই

স্টাফ রিপোর্টার

প্রথম পাতা ১৯ জানুয়ারি ২০২০, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:০৯

আসন্ন ঢাকা সিটি করর্পোরেশন নির্বাচনে নৌকার পক্ষে জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত ঢল নেমেছে দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমরা ক্লিন ইমেজের দু’জন প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছি। জনমতের যে দৃশ্যপট, তাতে জনগণ স্বচ্ছ ভাবমূর্তির প্রার্থীকেই ভোট দিতে চায়। পরাজয় নিশ্চিত জেনেই বিএনপি ইভিএম নিয়ে বিষোদাগার করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বলেন, নির্বাচন হওয়ার আগেই নির্বাচনকে বিতর্কিত করার জন্য বিএনপি নানা ধরনের টালবাহানা করছে। আসলে ইভিএমটা টার্গেট নয়। এটার ছুতো ধরেই তারা নির্বাচনকে বিতর্কিত করার অপপ্রয়াস চালাচ্ছে। গতকাল শনিবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। নির্বাচনে ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে- দলটির নেতাদের এমন দাবিকে ‘দিবাস্বপ্ন’ বলে মন্তব্য করে কাদের বলেন, সাত আসন পাওয়ার আগে তো জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তো শুনেছিলাম তাদের গণজোয়ার হয়েছে।
ফলাফলে তো তারা তার কোনো প্রমাণ রাখতে পারেননি। বিএনপি সব সময়ই দিবাস্বপ্ন দেখে। গণজোয়ারও তাদের একটা দিবাস্বপ্ন, যা দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে।

পূজার জন্য ভোটের দিন পেছানোর দাবি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমরা বলেছি, এখানে তারিখ পরিবর্তনও যদি হয়, আগে বা পরে, আমাদের সরকার বা দলের পক্ষ থেকে কোনো আপত্তি করব না। আমরা আমাদের অবস্থান পরিষ্কার করেছি, তারিখ পরিবর্তন করলে আমাদের কোনো অসুবিধা নেই। ভোটের তারিখ নিয়ে যে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে, ইসি তার বাস্তবসম্মত সমাধান দেবে বলে আশা করেন মন্ত্রী কাদের।

নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে তিনি বলেন, বিদ্রোহীদের জন্য আওয়ামী লীগ শেষ ও ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে, এমন তো না। এটা হয়েই আসছে। আমরা ১১ বছর ধরে ক্ষমতায় আছি, এত বড় দলে বিদ্রোহী প্রার্থীর মতো বিষয়গুলো থাকে। আমরা নির্বাচন করছি, এসব ছোটখাট সমস্যাকে নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা নির্বাচনেও বিজয়ী হচ্ছি এবং বিরোধী দলের চ্যালেঞ্জও মোকাবেলা করছি। এটা আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ বিষয় মন্তব্য করে কাদের বলেন, এটা আমাদের উপর ছেড়ে দিন। আমরা আমাদের সমস্যাগুলোর সমাধান করতে পারি বা না পারি তাতে আপনাদের অসুবিধা কী? এখানে বিদ্রোহী থাকলে আপনাদের অসুবিধা কী? তবে বিদ্রোহী প্রার্থীদের বসাতে দলের দায়িত্বশীল নেতারা সক্রিয় আছেন বলে জানান কাদের।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন, সাখাওয়াত হোসেন শফিক, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সবুর, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ও উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান উপস্থিতি ছিলেন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ahammad

২০২০-০১-১৯ ০৭:৫৫:২৮

জনাব,যদি ভয়ভিতী ও ত্রাসের রাজ্বও কায়েম না করেন আর প্রশাসনকে নিরপেখ্খ থাকতে দেন, তাহলে কোন অবস্হায়ই জিততে পারবেন না ।

আপনার মতামত দিন



প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

করোনায় মৃত্যু ২০০০ ছাড়ালো

সিঙ্গাপুরে আক্রান্ত বাংলাদেশি সংকটাপন্ন

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

করোনা নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে কারা?

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

৩০ টাকার মাস্ক ১২০

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ফাইলবন্দি সুপারিশ

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ঢাকা সিটি নির্বাচন

রিটার্নিং কর্মকর্তার গেজেট প্রকাশ নিয়ে বিতর্ক

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মালয়েশিয়ায় শ্রমবাজার উন্মুক্তকরণ

জেডব্লিউজি’র বৈঠক হচ্ছে মন্ত্রীর সফর অনিশ্চিত

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

রাজনৈতিক বাহাস

১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী

মোদি আসছেন, ঢাকা ঘুরে গেল অগ্রবর্তী দল

১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত