দেনা শোধ করতে না পেরে ধর্ষকের হাতে মেয়েকে তুলে দিলো বাবা

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন ১৫ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার, ১২:৩১ | সর্বশেষ আপডেট: ৮:০১

দেনা শোধ করতে না পেরে নিজের ১৩ বছর বয়সী মেয়েকে পাওনাদার ধর্ষকের হাতে তুলে  দিয়েছে এক বাবা। দীর্ঘদিন ধরে ওই পাওনাদার মেয়েটিকে ধর্ষণের এ প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো তারই বাবার কাছে। অবশেষে বাবা রাজি হয়ে মেয়েটিকে তার কাছে তুলে দেয়। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে ঢাকার কামরাঙ্গীরচর এলাকায়। এ ঘটনায় কিশোরীকে উদ্ধারের পাশাপাশি তার বাবাকেও আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়। এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ৯৯৯-এ কল পেয়ে মেয়েটিকে কামরাঙ্গীরচরের বেটারিঘাট এলাকা থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

কামরাঙ্গীরচর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মোর্শেদ আলী জানান, কামরাঙ্গীরচর বেটারিঘাট এলাকায় থাকে কিশোরীর পরিবার। তার মা বিদেশে থাকে। তার বাবা একটি মুরগীর দোকানে কাজ করে।
দোকানের মালিক আবুল (৩৫) কিশোরীর বাবার কাছে ৬ হাজার টাকা পায়। সেই টাকা দিতে না পারায় তার মেয়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে চায় ওই মালিক। দীর্ঘদিন চেষ্টার পর কয়েকদিন আগে বাবার সহায়তায় কিশোরীকে ধর্ষণ করে সে।

এসআই আরও জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পাশের বাসার এক মহিলার কাছে সব ঘটনা খুলে বলে। এরপর ওই মহিলা ৯৯৯-এ  ফোন দেয়। ফোন পেয়ে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। আর ধর্ষণে সহায়তা করার জন্য তার বাবাকেও আটক করা হয়। প্রতিবেশী ওই মহিলা বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন।

এদিকে ধর্ষক আবুলকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

শাহ আহমদ

২০২০-০১-১৫ ০২:৫৮:৪৩

বাবা এবং ধর্ষক কে ক্রোশ ফায়ারে দেওয়া হোক ।

এম অার তাহরীম

২০২০-০১-১৫ ০২:৫০:০৪

অসুস্থ রাষ্ট্রে এমন বর্বরোচিত কাজ অসম্ভব নয়!

tahir

২০২০-০১-১৫ ১৪:৫৩:৫১

পরকালের ধর্ষণের শাস্তি জানে না বলেই ওরা সেটা করতে পারল । সবাইকে আহ্বান জানাবো কোরাণ থেকে শিক্ষা নেওয়ার ।

আব্দুর রহিম

২০২০-০১-১৫ ০১:৫৩:১৯

চিড়িয়াখানার ক্ষুধার্ত বাঘের খাঁচায় কয়েকদিন একজন করে ধর্ষনের আসামি ছেড়ে দিলে ধর্ষনের মাত্রা কমে যেতো।

Akash

২০২০-০১-১৫ ০১:৪৪:৩৮

মেয়েটির বাবাকে হাঁটুর নীচে আর লোভী ধর্ষককে ডাইরেক্ট বুকের বাম পাশে শুধু একটা গুলি খরচ করে আদর করা হোক ।। দুটি গুলির যত মূল্য promise করছি আমি দিয়ে দিব।সৌদী থেকে প্রতিজ্ঞা করে বলছি।।।

Khokon

২০২০-০১-১৫ ০১:২৬:২৩

This is not something surprised but I think both of them drugs addicted. So need to be punishment both if police is sincer bring them in justice.

জাকারিয়া মাহমুদ

২০২০-০১-১৫ ১৪:২৫:৩৯

শুধুমাত্র অর্থনৈতিক উন্নয়নের দিকে জোড় দিলে সমাজের এই অবস্থাই হয়। নীতি-নৈতিকতা বিহীন আদিম সমাজে রূপান্তরিত হচ্ছি আমরা। এখনই যথাযথ পদক্ষেপ না নিলে সামনে আরো ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হবে।

হিমেল

২০২০-০১-১৫ ০১:১৭:১২

ঐ পাশবিক ঘটনার মূল হোতা দোকান মালিক কে গ্রেপ্তার করে তাকে নিয়ে তার সহযোগিদের আস্তানয় অভিযান চালানো দরকার। তবে তার আগে তার অপ্রাপ্তবয়স্ক সন্তান সন্ততিদের কে আর্থিক নিরাপত্তা র ব্যবস্থা করলে ভাল হয়। এমনিতে তার স্ত্রী কন্যা পুত্র তার সাথে সংসার করবে না। তাকে সারাজীবন যতদিন বাচবে ততদিন যেন এই চিহ্ন নিয়ে বেচে থাকে (যদি ক্রস ফায়র থেকে বেচে যায় ও)।

karim

২০২০-০১-১৫ ১৪:০৭:৫৯

if fact is true then without any argument rapist should cross fire immediate

সালামত উল্লাহ তানভীর

২০২০-০১-১৫ ০০:৪৮:১০

প্রতিবেদনটা পড়ে নিজের বিবেকে বারবার প্রশ্ন আসতেছে কিভাবে পারলো মেয়েটির বাবা তার নিজের মেয়েকে ধর্ষক নামের হায়েনার হাতে তুলে দিতে? আর পাওনাদার ধর্ষক কিভাবে পারলো তার মেয়ের বয়সের একটা মেয়ের সাথে শারীরিক সম্পর্ক করার কথা প্রস্তাব দিতে?

Golam hossain

২০২০-০১-১৫ ০০:০৫:৪৮

এতদিন এগুলো সিনেমাতে দেখে এসেছি এখন তা বাস্তবে পাওয়া গেল। যে দেশের আইন অপরাধীর শাস্তি নিশ্চিত করতে পারে না সে দেশে সব সম্ভব।

Reza

২০২০-০১-১৫ ১২:৫৩:০২

এতদিন এগুলো সিনেমাতে দেখে এসেছি এখন তা বাস্তবে পাওয়া গেল। যে দেশের আইন অপরাধীর শাস্তি নিশ্চিত করতে পারে না সে দেশে সব সম্ভব।

আপনার মতামত দিন



অনলাইন অন্যান্য খবর

করোনাভাইরাস

ওমরাহ যাত্রীদের প্রবেশ স্থগিত করল সৌদি আরব

২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

যশোর-৬ আসনের উপ-নির্বাচন

জাপার মনোনয়ন পেলেন হাবিবুর রহমান

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত