বিদায় কাঠমান্ডু, দেখা হবে ইসলামাবাদে

স্পোর্টস রিপোর্টার, কাঠমান্ডু (নেপাল) থেকে

খেলা ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৬

ফুটবলে নেপালের শ্রেষ্ঠত্বের মধ্য দিয়ে পর্দা নামলো ১৩তম সাউথ এশিয়ান গেমসের (এসএ গেমস)। হিমালয় কন্যার দেশে অনুষ্ঠিত এই আসরে ৯টি ডিসিপ্লিনে অংশ না নিয়েও সবার উপরে থেকে শেষ করেছে ভারত। ১৬৪ সোনা ৯১ রৌপ্য ও ৪৪ ব্রোঞ্জ জিতেছে দেশটির অ্যাথলেটরা। চমক দেখিয়েছে আয়োজক দেশ নেপাল। ৫১ সোনা ৫৫ রৌপ্য ও ৮৮ ব্রোঞ্জ নিয়ে শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান ও বাংলাদেশকে টপকে দ্বিতীয় স্থান দখল করেছে তারা। এটি তাদের এএস গেমসের ইতিহাসে সেরা সাফল্য। অন্যতম সেরা একটি আসর উপহার দেয়া নেপাল গতকাল ব্যাটন তুলে দেয় পাকিস্তানের হাতে। এসএ গেমসের পরবর্তী আসর অনুষ্ঠিত হবে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে।
 

গতকাল গেমসের সমাপনী দিনে দুপুরে অনুষ্ঠিত হয় নেপাল-ভুটানের মধ্যকার ফুটবল ফাইনাল। ম্যাচ দেখতে দুপুরের আগেই জনাকীর্ণ হয়ে যায় দশরথ স্টেডিয়ামের আশপাশ। ফুটবল নিয়ে নেপালিদের যে উন্মাদনা তা এখানে না এলে বোঝা যাবে না। মাঝে মাঝেই এই সুযোগটা কাজে লাগায় অল নেপাল ফুটবল ফেডারেশন। এই যেমন কাল হঠাৎ ফাইনালের টিকিটের দাম বাড়িয়ে দেয় আয়োজকরা। টিকিটের দাম বাড়ানো নিয়ে প্রতিবাদে পুলিশের সঙ্গে  সংঘর্ষে জড়ায় সমর্থকরা। পুলিশের আক্রমণের শিকার হন এক নেপালি সাংবাদিক। এ ঘটনায় ফুটবল ফাইনাল বয়কট করেন নেপালি সাংবাদিকরা। এসব ছাপিয়ে এসএ গেমসের ফুটবলের শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখে নেপাল। ফাইনালের মহামঞ্চে ভুুটানকে ২-১ গোলে হারিয়ে আসরের ৫১তম সোনা জেতে আয়োজকরা। গতকাল ম্যাচ দেখতে ৩০ হাজার দর্শক ধারনক্ষমতার স্টেডিয়াম কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে ম্যাচ শুরুর আগেই। বিকাল সাড়ে চারটার মধ্যে স্টেডিয়ামের সকল প্রবেশদ্বার বন্ধ করে দেয়া হয়। অনেকেই টিকিট হাতে দাঁড়িয়ে থাকেন বাইরে। শুরু থেকেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে উপভোগ্য হয়ে ওঠে ফাইনাল। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা নেপালকে ১৭ মিনিটেই এগিয়ে দেন অভিষেক রিজাল (১-০)।  ম্যাচের ৩৭ মিনিটে ভুটানের চেনচো গেইলশেন স্বাগতিকদের হতাশ করে ম্যাচে সমতা ফেরান। দ্বিতীয়ার্ধে জয়সূচক গোল করে দলকে আনন্দে ভাসান সুনিল বাল (২-১)। ফুটবল ফাইনালের পরই শুরু হয় সমাপনী অনুষ্ঠান। উদ্বোধনীতে চমক ছিল লেজার শো’র মাধ্যমে ডিসিপ্লিনগুলো ফুটিয়ে তোলা। সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষত্ব ছিল ড্রোন। দেড়শ’র বেশি ড্রোন উড়ছিল দশরথ স্টেডিয়ামের আকাশে। উদ্বোধনের মতো খুব বেশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল না। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয় স্কুলবালক-বালিকারা । মাঝে চলেছে গেমসের আনুষ্ঠানিকতাও। পরবর্তী গেমসের আয়োজক পাকিস্তানের হাতে পতাকা হস্তান্তর করেন নেপালের অলিম্পিকের কর্তাব্যক্তিরা। গেমসের মশাল নেভানো হয়। সমাপনীতেও উল্লেখসংখ্যক অ্যাথলেট মার্চ পাস্টে অংশ নেন। নেপাল অলিম্পিক এসোসিয়েশনের সভাপতি জীবন রাম শ্রেষ্ঠা সবাইকে ধন্যবাদ জানান। প্রধানমন্ত্রী অসুস্থ থাকায় সমাপনী অনুষ্ঠানে না আসলেও তার বক্তব্য ভিডিওর মাধ্যমে প্রচার হয়। ক্রীড়া মন্ত্রী ও আয়োজকরা সংক্ষিপ্ত আকারে বক্তব্য দেন। এর পরেই পাকিস্তান অলিস্পিক এসোসিয়েশনের হাতে আগামী আসরের মশাল হস্তান্তর করে নেপাল। আগামী ছয়মাসের মধ্যে পাকিস্তান অংশগ্রহণকারী দেশগুলোকে তাদের দেশে গেমস আয়োজনে রাজি করাতে না পারলে পরবর্তী আসর অনুষ্ঠিত হবে শ্রীলঙ্কা কিংবা মালদ্বীপে। এবার ভারত দ্বিতীয়  সারির দল পাঠিয়েও পদক তালিকায় শীর্ষে। নেপাল প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় স্থানে। বাংলাদেশ সর্বোচ্চ সংখ্যক পদক জিতেও পঞ্চম স্থানে। মোট পদক সংখ্যায় বাংলাদেশ পাকিস্তানের চেয়ে বেশি থাকলেও স্বর্ণ কম হওয়ায় টেবিলে অবস্থান নিচে।

পদকের তালিকা
দেশ    স্বর্ণ    রৌপ্য    ব্রোঞ্জ    মোট
ভারত    ১৭২    ৯৩    ৪৫    ৩১০
নেপাল    ৫১    ৫৯    ৯৪    ২০৪
শ্রীলঙ্কা    ৪০    ৮২    ১২৮    ২৫০
পাকিস্তান    ৩১    ৩৯    ৫৯    ১৩১
বাংলাদেশ    ১৯    ৩৩    ৯২    ১৪২
মালদ্বীপ    ১    ০    ৩    ৪
ভুটান    ০    ৭    ১৩    ২০

আপনার মতামত দিন

খেলা অন্যান্য খবর

‘লক্ষ্মীপুর থেকে লাহোর’

১৯ জানুয়ারি ২০২০

ব্যাটে-বলে উজ্জ্বল যারা

১৯ জানুয়ারি ২০২০

ইংল্যান্ডে ‘লাল যুদ্ধ’ আজ

লিভারপুলের বিপক্ষে ম্যানইউ’র প্রেরণা ‘সিটি-পিএসজি’

১৯ জানুয়ারি ২০২০





খেলা সর্বাধিক পঠিত



পাকিস্তান সফরে যাবেন না মুশফিক

তামিমের ইনজুরি, রিয়াদের জ্বর