‘রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়টিও আদালতে উঠতে পারে’

তামান্না মোমিন খান

অনলাইন ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৪:২৫

সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলেছেন, মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচির হেগে অবস্থিত জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল র্কোট অব জাস্টিস এ (আইসিজে) গেছেন তার সরকারের আত্মপক্ষ সর্মথনে। এখন প্রশ্ন হলো এই আদালতে গেলে  সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে যেতে হবে । দেখা যাক সূচির জবাব কি হয়। কিসের ভিত্তিতে তিনি মামলা লড়তে গেছেন? সত্যিকার অর্থে মিয়ানমার সরকার গণহত্যা করেছে। মানবতা বিরোধী অপরাধ করেছে। এটি আর্ন্তজাতিক আইনেও অপরাধ। সেজন্য বিচারটি হচ্ছে। বিচারে যদি প্রমাণীত হয় মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী দ্বারা নিরীহ জনগণ হত্যা করা হয়েছে এবং তাদের দেশ থেকে বিতাড়িত করা হয়েছে।
তাহলে যে রায় হবে সে অনুযায়ী সুচিকে রায় মানতে হবে। আমাদের এখন অপেক্ষা করতে হবে রায় কি হয়? বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়ার বিষয়টিও জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালতে উঠতে পারে। দেখা যাক কি হয়।

মানবজমিনকে দেয়া প্রতিক্রিয়ায় বিশিষ্ট এই আইনজীবী বলেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে বার বার আহ্বান জানানো পরেও তারা তা মানছিল না বলেই আন্তর্জাতিক এই আদালতে বিষয়টি গেছে। চীন মিয়ানমারের পাশে থাকবে এমন আলোচনার বিষয়ে তিনি বলেন, চীন আদালতে কি বলে তার উপর নির্ভর করবে বিষয়টি। পাশে থাকা আর আদালতে পক্ষে বলাতো এক নয়।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

পাকিস্তানের নতুন হাইকমিশনার ঢাকায়

১৯ জানুয়ারি ২০২০

পাকিস্তানের নতুন হাই কমিশনার ইমরান আহমেদ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে রিপোর্ট করেছেন। রোববার চিফ অব প্রটোকল মো. ...

প্রশাসনে ওএসডি ২৯০ জন

১৯ জানুয়ারি ২০২০





অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



একই পরিবারের ৩ জন নিহত

স্বামীর ঘরে যাওয়া হলো না পিয়াশার