মিঠামইনে প্রেসিডেন্ট

‘ভালো রেজাল্ট করতে না পারলেও ছাত্র আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছি’

আশরাফুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জ থেকে

এক্সক্লুসিভ ১৩ অক্টোবর ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৫৭

প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ছাত্র জীবনে ভালো রেজাল্ট করতে পারিনি। তবে ছয় দফাসহ দেশের প্রতিটি ছাত্র আন্দোলনের সময় তাদের দাবি-দাওয়া আদায়ের ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছি। গতকাল বিকালে নিজ জন্মভূমি হাওর উপজেলা মিঠামইনে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মিঠামইন, ইটনা ও অষ্টগ্রাম উপজেলার কৃতী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ও বৃত্তিপ্রদান উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ এসব কথা বলেন। বক্তৃতায় প্রেসিডেন্ট শিক্ষার্থীদেরকে যে কোনো প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে মনোযোগ দিয়ে পড়াশুনা করার তাগিদ দেয়ার পাশাপাশি দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হয়ে ভবিষ্যতে দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

হাওরে ঝরেপড়া ও পিছিয়ে থাকা শিক্ষার্থীদের মানোন্নয়নে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে প্রেসিডেন্ট বলেন, যে কোনো নিয়োগ পরীক্ষায় অধিকাংশ ক্ষেত্রে প্রিলিতেই শিক্ষার্থীরা অকৃতকার্য হয়ে পড়ে। এ ক্ষেত্রে শহরের ছেলেমেয়েদের তুলনায় হাওরাঞ্চলের শিক্ষার্থীরাই বেশি। এ জন্য তিনি শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে শিক্ষক-অভিভাবকদেরকে আরও বেশি মনোযোগী দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব অধ্যক্ষ আবদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য প্রেসিডেন্টপুত্র রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পিপি শাহ আজিজুল হক প্রমুখ। এ সময় প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন, জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চুসহ বিভিন্ন সামরিক, বেসামরিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মিঠামইন, ইটনা ও অষ্টগ্রাম উপজেলার প্রায় ৮৫ জন শিক্ষার্থীকে সম্মাননা ও বৃত্তিপ্রদান করা হয়। এছাড়া মিঠামইনের ১৫ জন ব্যক্তিকে সেলাই মেশিন প্রদান করা হয়।

এর আগে বেলা ১২টায় প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ কামালপুরের নিজবাড়ি থেকে ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশা করে নির্মাণাধীন সারা বছর চলাচল উপযোগী ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়কের দুটি সেতুসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন করেন।
এ সময় তিনি প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়ক অটোরিকশা দিয়ে ঘুরে দেখেন। পরে প্রেসিডেন্ট তার নিজবাড়ির পেছন দিকের শান্তিরহাট ইসলামপুর-মিঠামইন বাজার সড়কের উন্নয়ন কাজও পরিদর্শন করেন। এরপর তিনি জেলা পরিষদ ডাকবাংলোয় বিশ্রামসহ গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন।

সন্ধ্যায় তিনি মিঠামইনস্থ আবদুল হক ডিগ্রি কলেজে পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পরিবেশনা দেখেন। প্রেসিডেন্ট কামালপুর গ্রামের নিজবাড়িতে রাত্রিযাপন করে আজ রোববার তিনি ইটনা উপজেলা সফরে যাবেন।
প্রসঙ্গত প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ গত ৯ই অক্টোবর ৭ দিনের সফরে কিশোরগঞ্জে এসেছেন। তাঁর এ সফরে ইতিমধ্যে তাড়াইল উপজেলায় সুধী সমাবেশ ও জেলা সদরে আইনজীবী সমিতির সংবর্ধনাসহ বেশকিছু অনুষ্ঠানে যোগদান এবং নিজ জন্মভূমি হাওর উপজেলা মিঠামইনে সুধী সমাবেশ ও উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনসহ শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ও বৃত্তিপ্রদান অনুষ্ঠানে যোগদান করেছেন। সফরের শেষদিন আগামী ১৫ই অক্টোবর অষ্টগ্রাম উপজেলার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন শেষে বেলা দুইটায় প্রেসিডেন্ট হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন।

আপনার মতামত দিন

এক্সক্লুসিভ অন্যান্য খবর

করোনা ভাইরাস

বিশ্বব্যাপী মারা যেতে পারে সাড়ে ৬ কোটি মানুষ

২৮ জানুয়ারি ২০২০

ইশরাকের প্রচারণায় মা

২৮ জানুয়ারি ২০২০

টাইমস অব ইন্ডিয়ার রিপোর্ট

৪০ দিনের যুদ্ধের জন্য সামরিক সরঞ্জামের মজুত গড়ছে ভারত

২৮ জানুয়ারি ২০২০

পাকিস্তান ও চীনের কথা মাথায় রেখে পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধের জন্য অস্ত্রের মজুত গড়ে তুলছে ভারতের ১৩ ...





এক্সক্লুসিভ সর্বাধিক পঠিত