হার মানতে নারাজ

ষোলো আনা ডেস্ক

ষোলো আনা ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:০৫

প্রতীকী ছবি
আমেনা বেগম। বয়স মাত্র ৩৫। স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ নেই তার। শুধু জানেন ঢাকায় থাকেন। বিয়ে করেছেন আরেকটা। ২ বছর ধরে কোনো যোগাযোগ নেই। এক পুত্রসন্তানকে নিয়ে যুদ্ধ তার। ছেলে আমিনুর রহমান পড়ে পঞ্চম শ্রেণিতে।
হেরে যাওয়ার পাত্র নন তিনি। কঠোর পরিশ্রমী হত দরিদ্র আমেনা দেখছেন নতুন স্বপ্ন।

আমেনার বাড়ি নীলফামারী জেলার, ডোমারে। স্বামী চলে যাওয়ার পর থেকে থাকেন বাবার বাড়িতে। মিলেছে কোনোরকম মাথা গোঁজার ঠাঁই। এখানে তিনি পালন করেন গরু। তার তত্ত্ব্বাবধানে বড় হয় দু’টি গরু। পরম যত্নে গরু দু’টি ৮ মাস ধরে পালন করেছেন তিনি। বিক্রির জন্য দিয়ে দেন বড় ভাইয়ের হাতে। তার ভাই ধানের ব্যবসা করেন। তবে কোরবানি ঈদে বিভিন্ন এলাকা থেকে গরু নিয়ে ঢাকায় বিক্রি করেন।

বড় ভাই রাজধানীতে আনেন ১৮টি গরু। সব গরু বিক্রি হয়। আর তার বোনের গরু দু’টি বিক্রি করে মেলে প্রায় ২ লাখ টাকা। এতে লাভ হয় প্রায় ৮০ হাজার টাকা। এই টাকা দিয়ে আবার ২টি গরু কিনেছেন ৪৫ হাজার টাকা দিয়ে। বাকি টাকা সারা বছরের চলার রশদ। এছাড়াও তিনি করেন মৌসুমি বিভিন্ন কৃষি কাজ।

ষোলো আনা অন্যান্য খবর

একজন প্রতিবাদী শারমিন

৩ ডিসেম্বর ২০১৯

বিশ্বনাথের নিজের গল্প

৩ ডিসেম্বর ২০১৯

তবুও স্বপ্ন বুনছেন ওরা

৩ ডিসেম্বর ২০১৯

সরজমিন

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অন্যরকম জীবন

১৫ নভেম্বর ২০১৯

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়

ক্ষমতাধর জয়

১৮ অক্টোবর ২০১৯

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

অঙ্গীকারেই সীমাবদ্ধ

১৮ অক্টোবর ২০১৯





পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

efti hasan

২০১৯-১০-১৭ ২১:৩৬:০৬

ভালো লাগছে রিপোর্টটা

আপনার মতামত দিন

ষোলো আনা সর্বাধিক পঠিত