সায়েমের মুখে হাসি ফোটাতে প্রয়োজন ...

সানিউর রহমান তালুকদার

ষোলো আনা ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৪৬

ছোট্ট সায়েম। বয়স মাত্র দুইবছর। নাম ধরে ডাকলেই ফ্যালফ্যাল করে তাকিয়ে থাকে। ঠোঁট নাড়িয়ে কিছু একটা বলার চেষ্টা করে। মিশুক এই শিশুটি হাত বাড়ালেই আসে যেকোনো কারো কোলে। তবে সায়েম আজ জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে। জন্মের পর থেকেই তার হার্টে ছিদ্র। শিশুটির বাবার নাম ফুল মিয়া।
তিনি ১৩ বছর আগে ব্রেইন স্ট্রোক করে প্যারালাইজড হয়ে যান। এরপর থেকেই থাকতে হয় বাড়িতেই। তার পরিবারের একমাত্র ভরসা ভাতা। যা দিয়ে কোনো রকম অভাবে দিন চলে তার। একমাত্র ছেলের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে আসছেন। কিন্তু সহায় সম্বলহীন মানুষটি সন্তানের করাতে পারছেন না উন্নত চিকিৎসা।

তাদের বাড়ি হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার বাউসা গ্রামে। সিয়ামের বাবা জানান, জন্মের কয়েক দিন পর শিশু চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেলে চিকিৎসক জানায় সায়েমের হার্টে ছিদ্র ধরা পড়েছে। এরপর থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। গত দুইবছর ধরে অভাব অনটনের মধ্যেও সায়েমকে সামর্থ্য অনুযায়ী চিকিৎসা করিয়ে আসছেন। তবে এখন দ্রুত অপারেশন করা প্রয়োজন। কিন্তু টাকার অভাবে সায়েমের হার্টের অপারেশন করাতে পারছেন না। চিকিৎসকরা বলেছেন, সায়েমের অপারেশন করাতে প্রায় ৩ লাখ টাকা প্রয়োজন। এতগুলো টাকা আমি কোথায় পাবো? তিনি সামর্থ্যবানদের প্রতি অনুরোধ করেন সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবার।

ষোলো আনা অন্যান্য খবর

একজন প্রতিবাদী শারমিন

৩ ডিসেম্বর ২০১৯

বিশ্বনাথের নিজের গল্প

৩ ডিসেম্বর ২০১৯

তবুও স্বপ্ন বুনছেন ওরা

৩ ডিসেম্বর ২০১৯

সরজমিন

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অন্যরকম জীবন

১৫ নভেম্বর ২০১৯

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়

ক্ষমতাধর জয়

১৮ অক্টোবর ২০১৯

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

অঙ্গীকারেই সীমাবদ্ধ

১৮ অক্টোবর ২০১৯





পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

efti hasan

২০১৯-১০-১৭ ২১:৩৬:০৬

ভালো লাগছে রিপোর্টটা

আপনার মতামত দিন

ষোলো আনা সর্বাধিক পঠিত