পশ্চিমবঙ্গের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য্য হাসপাতালে

কলকাতা প্রতিনিধি

ভারত ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার

পশ্চিমবঙ্গের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য্যকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি সিওপিডি-জনিত শ্বাসকষ্টের সমস্যায় ভুগছেন। গত দুই দিনে তার শরীরে রক্তক্ষরণ হয়েছে। শুক্রবার সিপিআইএম নেতা চিকিৎসক ফুয়াদ হালিম জোর করেই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।  চিকিৎসার জন্য গঠন করা হয়েছে পাঁচ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে রুপালি বসু শুক্রবার রাতে জানিয়েছেন, বুদ্ধবাবুর অবস্থা এখন স্থিতিশীল। তবে আরও সময় নিয়ে চিকিৎসা করাতে হবে। জানা গেছে, তাকে শুক্রবার রাতের দিকে রক্ত দেওয়া হয়েছে। বুদ্ধবাবুর স্বাস্থ্য-সঙ্কটের খবর পেয়েই শুক্রবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালে পৌঁছে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
সাবেক মুখ্যমন্ত্রীর চিকিৎসায় যাতে কোনও ঘাটতি না থাকে, তা নিয়ে হাসপাতালের চিকিৎসকদের সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন। হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে মমতা জানিয়েছেন, রক্ত দিতে হচ্ছে ওঁকে। তবে যখন আনা হয়েছিল, তার চেয়ে এখন একটু ভাল আছেন। উঠে বসে কথাও বলছেন। মুখ্যমন্ত্রী বেরিয়ে যাওয়ার পরে হাসপাতালে আসেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। তিনি গত সপ্তাহেই বুদ্ধবাবুর বাড়ি গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করেছিলেন। পারিবারিক ও দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বুদ্ধবাবুর শরীর অন্যান্য দিনের তুলনায় খারাপ হচ্ছিল বৃহস্পতিবার থেকেই। প্রবল শ্বাসকষ্টের পাশাপাশি বুদ্ধদেব বাবুর রক্তচাপও খুব কমে যাওয়াতেই হাসপাতালে ভর্তি জরুরি হয়ে উঠেছিল।  হাসপাতালে নিয়ে দেখা গেছে, কোনও ওষুধের জেরে বুদ্ধবাবুর শরীরের ভিতরে বেশ খানিকটা রক্তক্ষয় হয়েছে। সেই কারণেই বাইরে থেকে রক্ত দেওয়ার ব্যবস্থা হয়েছে। হাসপাতালে দেখতে গিয়েছিলেন সিপিআইএম নেতারাও।  বুদ্ধবাবুকে দেখতে গিয়েছিলেন তারই প্রতিবেশি কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য্যও।

ভারত অন্যান্য খবর

সৃজিত-মিথিলা আল্পসের দেশে

১০ ডিসেম্বর ২০১৯





আপনার মতামত দিন

ভারত সর্বাধিক পঠিত