গ্রাহক নয়, উবার পাঠাওকে ৫% ভ্যাট দিতে হবে- এনবিআর

দেশ বিদেশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | ২০ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫৩
উবার-পাঠাওসহ সব অ্যাপসভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবার ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তবে এ ভ্যাট আদায় হবে রাইড শেয়ারিং সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের প্রাপ্য অর্থের ওপর। এ খাতে ভ্যাট আরোপ করায় খরচ বৃদ্ধির শঙ্কায় পড়েন আরামদায়ক ও যানজট এড়িয়ে দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছতে চাওয়া রাজধানীবাসী। ব্যবহারকারীদের ধারণা, এ ভ্যাট তাদের কাছ থেকে আদায় করা হবে। তবে এনবিআর বলছে, ব্যবহারকারীদের ওপর ভ্যাট আরোপ করা হয়নি। চালক ও রাইড শেয়ারিং কোম্পানির মধ্যে কমিশনের অর্থ ভাগাভাগির পর কোম্পানিগুলো যে পরিমাণ কমিশন পাবে তার ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।
মোবাইল অ্যাপসভিত্তিক এ সেবার বিপরীতে যাত্রী নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছানোর পর চালককে কিলোমিটারপ্রতি ভাড়া পরিশোধ করে থাকেন। এ সেবা মূল্যের বা ভাড়ার একটা অংশ মোবাইল অ্যাপসভিত্তিক সেবা সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান পেয়ে থাকে। ভ্যাট আইনে বর্তমানে সব ধরনের যানবাহন চালকের দেয়া সেবা ব্যক্তিগত সেবা হিসেবে ভ্যাট অব্যাহতি সুবিধা পাচ্ছে। রাইড শেয়ারিংয়ের চালকদের আয়ে ভ্যাট অব্যাহতি থাকলেও এ সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের আয়ের ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট দিতে হবে। রোববার এ সংক্রান্ত একটি ব্যাখ্যা জারি করেছে এনবিআর। এতে বলা হয়েছে, বর্তমানে মোবাইল অ্যাপভিত্তিক বিভিন্ন পরিবহনের রাইড শেয়ারিং সেবা খুব দ্রুত জনপ্রিয় হয়েছে। কিন্তু এ সেবাটি ভ্যাট অব্যাহতিপ্রাপ্ত দ্বিতীয় তফসিলের অন্তর্ভুক্ত না হওয়ায় ভ্যাট অব্যাহতিপ্রাপ্ত নয়। ভ্যাট আইনের দ্বিতীয় তফসিলের অনুচ্ছেদ ৬-এর (গ) অনুযায়ী সব ধরনের বাহনের চালকের সেবা ব্যক্তিগত সেবা হিসেবে ভ্যাট অব্যাহতি সুবিধা ভোগ করে। তাই গাড়ির চালক সেবার বিপরীতে যে অংশ প্রকৃতপক্ষে নিজে গ্রহণ করেন সে অংশটুকু ভ্যাট অব্যাহতিপ্রাপ্ত। তা ব্যতীত রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান বা কর্তৃপক্ষ যে পরিমাণ কমিশন পায় তার ওপর ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট আদায়যোগ্য হবে। মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক বিধিমালা, ২০১৬ এর বিধি ১১৮ক এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ ব্যাখ্যা করে এনবিআর। উল্লেখ্য, দেশে দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে ওঠা উবার ও পাঠাওয়ের মতো অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবা নিয়ন্ত্রণে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে এসব সেবাকে করের আওতায় আনা হয়। বাজেট পাসের পর ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট প্রদান করতে রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানগুলোকে চিঠিও দেয় এনবিআর। তবে প্রতিষ্ঠানগুলোর হিসাব জটিলতায় এখনো এ খাত থেকে উল্লেখযোগ্য রাজস্ব পাচ্ছে না সরকার। কিছু প্রতিষ্ঠান বিচ্ছিন্নভাবে ভ্যাট দিলেও টার্নওভার নির্ধারণে আটকে আছে প্রক্রিয়াটি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

sdd

২০১৯-০৮-২০ ০৯:৩৯:৩৮

উবার-পাঠাও কি নিজেদের পকেট থেকে দেবে? সার্ভিস রেট বাড়িয়ে গ্রাহকের পকেট থেকে নিয়েই দেবে। সরকার রাজস্ব আদায়ের আগে এই কমিটমেন্ট কি করছে তারা জনগণকে ঘুষ ছাড়া কোন সার্ভিস দিচ্ছে? কিংবা উন্নয়ন বাজেটে ব্যয় বাড়ির সেটাকা আত্মসাৎ করছে না? পাবলিকের পকেট কাটার জন্য রাজস্ব বিভাগ নানা ফন্দিফিকির করছে।

আপনার মতামত দিন

ছাত্রদলের প্রার্থী ও কাউন্সিলরদের সঙ্গে কথা বললেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান

বড় ঋণে ব্যাংক চেয়ারম্যানকেও ‘গ্যারান্টার’ করার নিয়ম হচ্ছে: অর্থমন্ত্রী

‘জাহাঙ্গীরনগরের মতো ঘটনা অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোতেও হচ্ছে’

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে ন্যাশনাল ডায়ালগ শুরু

পদ্মাসেতু উদ্বোধনের দিনই ট্রেন চলবে: রেলমন্ত্রী

পিএসজির জন্য সুখবর, নিষেধাজ্ঞা কমলো নেইমারের

প্রেস কাউন্সিলের বিজ্ঞপ্তি গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধের শামিল: এলআরএফ

ঢাকায় বাড়ছে ডেঙ্গু রোগী

‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

আফগান প্রেসিডেন্টের নির্বাচনী র‌্যালিতে বোমা হামলায় নিহত ২৪

চিকিৎসকের অবহেলা তদন্তে বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠনের নির্দেশ

ফ্রান্স গুগলকে ৫৫ কোটি ডলার জরিমানা করল

সেই রতনকে শেকলমুক্ত করলেন ইউএনও

ভারত সফরে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল

দোষ পেলে জাবি ভিসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: কাদের

রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ধর্ষণ করা হয়েছে আমাকে