অ্যাপিকটা মেরিট অ্যাওয়ার্ড পেল রিটস ব্রাউজার

তথ্য প্রযুক্তি

| ২৩ ডিসেম্বর ২০১৭, শনিবার
এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যালায়েন্স (অ্যাপিকটা) মেরিট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে বাংলাদেশি প্রথম অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ব্রাউজার রিটস ব্রাউজার। ১৬টি দেশের বিভিন্ন প্রতিযোগীদের মধ্য থেকে কমিউনিকেশন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার জিতে নেয় এই বাংলাদেশি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ব্রাউজারটি।
গত ১০ ডিসেম্বর রোজ রোববার ঢাকার আগারগাঁওস্থ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই পুরস্কার গ্রহণ করেন রেইজ আইটি সলিউশন লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কে. এ. এম. রাশেদুল মজিদ এবং একাউন্ট ম্যানেজার সাফোয়ান হোসেনসহ দলের অন্যান্য সদস্যরা।
অ্যাপিকটায় কমিউনিকেশন ক্যাটাগরিতে এবারই প্রথম বাংলাদেশের কোনো প্রকল্প এই পুরস্কার পেল। এই পুরস্কার প্রাপ্তি কমিউনিকেশন বা অনলাইন যোগাযোগ খাতে বাংলাদেশের জন্য অপার সম্ভাবনার নয়া দিগন্ত উন্মোচিত হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। কমিউনিকেশন ক্যাটাগরিতে হংকং এর এলটিই মেট্রো বাংলাদেশের রিটস ব্রাউজার থেকে মাত্র ০.৩৬২ পয়েন্ট বেশী পেয়ে প্রথম হয় এবং তৃতীয় হয় মালয়েশিয়ার এলটিই ওয়ারলেস লেন এগ্রিগেশন।
রেইজ আইটি সলিউশন লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কে. এ. এম. রাশেদুল মজিদ বলেন, সারা পৃথিবীর, বিশেষ করে দেশের ও উপমহাদেশের মোবাইল ব্যবহারকারীদের প্রতিবন্ধকতা ও উপযোগিতা যাচাই করে দেশের স্বনামধন্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান রেইজ আইটি সলিউশন ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে গুগল প্লে স্টোরে রিটস ব্রাউজার অ্যাপসটি সাবমিট করে। ওপেন হওয়ার পর থেকে বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই রিটস ব্রাউজার ব্যবহার হচ্ছে এবং দিন দিন ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়ে-ই চলেছে। তাই, রিটস ব্রাউজারের সুনাম দেশেরসীমা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়েছে।
রাশেদুল মাজিদ বলেন, ইতোপূর্বে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) কর্তৃক আয়োজিত ‘বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডস ২০১৭’-এর কমিউনিকেশন ক্যাটাগরিতে সেরাদের সেরা হয়ে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি লাভ করেছে রিটস ব্রাউজার।
রেইজ আইটি সলিউশন এর প্রধান নির্বাহী আরো বলেন, ব্যবহারকারীদের চাহিদা ও পছন্দকে প্রাধান্য দিতে রিটস ব্রাউজারে কিছুদিন পরপর নতুন-নতুন ও আকর্ষণীয় ফিচার সংযুক্ত করা হয় এবং ব্রাউজারটির নতুন সংস্করণ করা হয়।
রাশেদুল মাজিদ আরো বলেন, অ্যাপিকটার এই স্বীকৃতি কমিউনিকেশন খাতে-ই নয়, অন্যান্য খাতেও প্রযুক্তির বিপ্লব আনতে আমাদের আরও উৎসাহিত করবে।
এবার মোট ১৭টি বিভাগে ১৭টি উইনার ও ৪৯টি মেরিট পুরস্কার দেওয়া হয়।
অংশগ্রহণ করেন ১৬টি দেশের প্রতিযোগীরা।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগ জুনাইদ আহমেদ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী, আইসিটি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বনমালী ভৌমিক, বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার এবং বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ও ১৭তম অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ঢাকা ২০১৭–এর আহ্বায়ক রাসেল টি আহমেদ।
এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বৃহত্তম সংগঠন এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যালায়েন্স (অ্যাপিকটা), এ অঞ্চলের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নের পাশাপাশি সম্ভাবনাময় ও সফল উদ্যোগ, সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর সেবার স্বীকৃতি দিতে প্রতিবছর অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডসের আয়োজন করে থাকে। ২০১৫ সালে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) অ্যাপিকটার সদস্যপদ লাভ করার পর দেশে অ্যাপিকটার এটাই প্রথম আয়োজন। এশিয়ার প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের আইসিটি অস্কার খ্যাত ১৮তম অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস চীনের গুয়াংজুতে অনুষ্ঠিত হবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ঝিনাইদহের ওসি কবিরকে প্রত্যাহার

যশোরে পৃথক দুই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

হোটেলে যেতে রাজি না হওয়ায় প্রেমিকাকে কুপিয়ে জখম

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কার্যক্রম বন্ধ

বগুড়ায় ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই পথচারীর

ইয়েমেনির হামলায় নিহত ৮ সৌদি সেনা

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিচার দাবি, প্রত্যাবর্তনে কানাডাকে বিরোধিতা করার আহ্বান

চালককে গলাকেটে হত্যার পর অটো ছিনতাই

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা নীতিতে বড় পরিবর্তন এনে সামরিক শক্তি বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

ইংলিশ চ্যানেলে ব্রিজ নির্মাণ করে ফ্রান্সকে যুক্ত করার প্রস্তাব: বিদ্রুপের শিকার ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের ২ গ্রুপের গোলাগুলি, নিহত ১

উত্তরাঞ্চলের কয়েক জায়গায় মৃদু ভূমিকম্প

‘মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমার একটা দাপটের সিনেমা করার ইচ্ছা ছিল’

স্বাক্ষর করে গরহাজির এমপিদের চিফ হুইপের চিঠি

কলেজে এসকেলেটর বিলাস, ৪৫৪ কোটি টাকার প্রকল্প

ইইউয়ে পোশাক রপ্তানিতে প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে বাংলাদেশ