সাকিব-তামিমের মিশন ‘ফাইনাল’

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ৮ ডিসেম্বর ২০১৭, শুক্রবার
দুই বছর আগে প্রথম আসরেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। পরের আসরে শেষ চারে যেতেই পারেনি দলটি। অন্যদিকে একই আসরে এলিমিনেটর  থেকে বরিশাল বুলসের সঙ্গে হেরে বিদায় নিয়েছিল ডায়নামাইটস। তবে পরের আসরে তারা সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে চ্যাম্পিয়ন হয়। এবারও শিরোপা ধরে রাখার লড়াইয়ে মুখোমুখি হচ্ছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের। যেখানে প্রথম কোয়ালিফায়ারে বন্ধু সাকিবের বিপক্ষে কুমিল্লা অধিনায়ক তামিম ইকবালের মিশন ‘ফাইনাল’।
আজ জিতলেই এই আসরের শীর্ষে থাকা কুমিল্লা চলে যাবে সরাসরি ফাইনালে। তবে যে দলই হারুক ফাইনালে খেলার আরো একটি সুযোগ থাকবে দুই দলের জন্য। কুমিল্লা এবার ১২ ম্যাচে জিতেছে ৯টিতে। এর মধ্যে দুইবারই জয় পেয়েছে ঢাকার বিপক্ষে। তাই দলটির প্রধান কোচ প্রতিপক্ষ ঢাকাকে নিয়ে ভাবছে না বলেই জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘কাল আমাদের ঢাকার সঙ্গে খেলা। প্রতিপক্ষ নিয়া চিন্তাও করি না। সাতটা টিমই আসলে শক্ত প্রতিপক্ষ। এখানে আসলে কাউকেই আলাদা করে দেখার বিষয় না।’ আজ সন্ধ্যা ৭টায় মিরপুর শেরেবাংলা মাঠে মুখোমুখি হবে দুই দল।  
শীর্ষে না থাকায় কুমিল্লাকেই ফেবারিট ভাবছেন ঢাকার কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন। তিনি বলেন, ‘প্রতিপক্ষকে আপনি কন্ট্রোল করতে পারবেন না। কেবল নিজেদেরটাই করতে পারবেন। যখন টপ-অর্ডার পারফর্ম করে তখন বেশি কিছু লাগে না। মূল কথা হচ্ছে আমাদের টপ-অর্ডার কেমন করছে সেটা। আমাদের টপ-অর্ডারে দারুণ কিছু প্লেয়ার আছে, যেমন লুইস, নারিন। এরা প্রমাণ করেছে তারা বড় ইনিংস খেলতে পারে। জো ডেনলি শেষ ম্যাচ ছাড়া ভালো করেছে। টপ-অর্ডারে রান পেলে আমার মনে হয় আমরা বড় স্কোর দিতে পারবো।’ ঢাকার হয়ে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি রান করেছেন এভিন লুইস। তার সংগ্রহ ১০ ম্যাচে ৩৩৪ রান। এছাড়াও ২০২ রান করে দ্বিতীয় স্থানে আছেন পোলার্ড। বল হাতে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান নিয়েছেন ১৯ উইকেট। এই বিপিএলে পেসারের ভিড়ে এ স্পিনারই সবচেয়ে সফল। তার সফলতা মিরপুর শেরে বাংলা মাঠেই। যে কারণে এ উইকেটে আজ কুমিল্লার অন্যতম প্রতিপক্ষ হতে পারেন সাকিবই। এছাড়াও বল হাতে ১২ উইকেট নিয়ে দারুণ করেছে দলের তরুণ পেসার আবু হায়দার রনি।
তবে দুই দলের কোচই উইকেট নিয়ে কিছুটা হলেও চিন্তিত। তাদের চাওয়া যেন আজ উইকেটে অন্তত রান থাকে। তবে উইকেট নিয়ে কুমিল্লার অভিযোগ থাকলেও  নেই ঢাকার। উইকেট নিয়ে কুমিল্লার কোচ বলেন, ‘উইকেটটা আমাদের হাতে নেই, আসলে উইকেটটা কেমন হবে। তবে এর চেয়ে বেটার উইকেট অবশ্যই আশা করি। এ ধরনের উইকেটে রান করাটা অনেক কঠিন। অনেকে বলছেন, আমাদের ছেলেদের স্কিল নেই। এখানে তো অনেক বাইরের প্লেয়াররাও আসছে, ভালো ভালো প্লেয়ার আসছে। তাদের স্কিলও আমাদের ছেলেদের সঙ্গে হেরফের হচ্ছে না, কারণ তারাও রান করতে পারছে না। উইকেটটা আশা করি ভালো হবে। যেহেতু একদিন রেস্ট পেয়েছে। উইকেটটা ভালো হলে টুর্নামেন্টের জন্য ভালো। একটা ব্যাটসম্যান যদি আগেই বোঝে বল উঁচুনিচু হচ্ছে তাহলে ড্রেসিং রুম প্যানিকড হয়ে যায়।’
কুমিল্লা দলের অন্যতম ভরসা ব্যাট হাতে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। এছাড়াও লিটন কুমার দাস শেষ ম্যাচে ফিফটি হাঁকিয়ে দেখিয়েছেন আশার আলো। ইমরুল কায়েস ও সোয়েব মালিকরাও দলের জয়ে দারুণ ভূমিকা রেখেছে। অন্যদিকে বোলিংয়ে কুমিল্লার ভরসা পাকিস্তানের হাসান আলি ও দেশি তরুণ মেহেদী হাসান।
এছাড়াও আজ আবহওয়ার পূর্বাভাসে বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা ছিল। যে কারণে রিজার্ভ ডে নিয়ে প্রস্তাব করেছে তিন দল ঢাকা, খুলনা ও রংপুর। তবে কুমিল্লা এ নিয়ে আপত্তি তুলেছে। যদি শেষ পর্যন্ত ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে যায় তাহলে কুমিল্লা শীর্ষ দল হিসেবে উঠে যাবে ফাইনালে। রিজার্ভ ডে নিয়ে গতকাল রাত পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন