ইংলিশ ক্লাবগুলোর ইতিহাস

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৮ ডিসেম্বর ২০১৭, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:০৭
ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ইতিহাস গড়লো ইংল্যান্ডের ক্লাবগুলো। এবারই প্রথমবারের মতো দেশটির পাঁচটি ক্লাব খেলবে ইউরোপসেরাদের এ লীগের দ্বিতীয় রাউন্ডে। চেলসি, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি ও টটেনহ্যাম এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ১৬ দলের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। এর আগে কেবল স্পেনের পাঁচ ক্লাব এক আসরের মূলপর্বে খেলে। ২০১৫-১৬ অর্থাৎ আগের মৌসুমেই স্পেনের রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ও ভ্যালেন্সিয়া সরাসরি আর সেভিয়া ইউরোপা লীগ বিজয়ী হিসেবে খেলে মূলপর্বে। তবে সবাই দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি।
বাদ পড়েছিল দুটি।
এবারই প্রথম ইংল্যান্ডের প্রিমিয়ার লীগের পাঁচ ক্লাব চ্যাম্পিয়ন্স লীগের মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে এবং সবাই সফলভাবে গ্রুপ পর্ব পার করে। লীগের সেরা চার দল সরাসরি আর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ইউরোপা লীগ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে মূল পর্বে খেলছে। এর মধ্যে বিস্ময়করভাবে সবাইকে ছাড়িয়ে গেছে টটেনহ্যাম। লন্ডনের ক্লাবটি খেলে তুলনামূলক শক্ত গ্রুপে। রিয়াল মাদ্রিদ ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের মতো ক্লাবকে পেছনে ফেলে তারা গ্রুপসেরা হয় এবং সবচেয়ে বেশি ১৬ পয়েন্ট অর্জন করে তারা। আর লিভারপুল এবার দ্বিতীয় সর্বাধিক গোল করে। তারা করে ২৩ গোল। আর তাদের চেয়ে ২ গোল বেশি করে কেবল পিএসজি।
২০০৬-০৭ মৌসুমের পরে এবারই প্রথম ইংল্যান্ডের চার দল চার গ্রুপের শীর্ষে থাকলো। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুল ও টটেনহ্যাম নিজ নিজ গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।
ইংল্যান্ডের ৪টি দল গ্রুপ পর্বে ৩০ খেলায় অংশ নিয়ে জয় পায় ২১টিতে। হারে মাত্র তিনটিতে। আর ড্র করে ৬ খেলায়। সাফল্যের হার ৭০ শতাংশ। অন্যদিকে স্পেনের চার দল ২৪ খেলায় অংশ নিয়ে জয় পায় ১১টিতে। তারাও তিনটিতে ড্র করলেও হারে ১০ খেলায়। তাদের সাফল্যের হার ৪৫.৮। জার্মানি আর ইতালির ক্লাবগুলোর সাফল্যের হার যথাক্রমে ৪৪.৪ ও ৩৮.৮।
লিভারপুলের ‘লাকি সেভেন’
ফিলিপ কুটিনহোর হ্যাটট্রিকে নিজেদের মাঠে স্পার্টাক মস্কোকে ৭-০ গোলে হারায় ইংলিশ ক্লাব লিভারপুল। এ জয়ে গ্রুপ ই’তে চ্যাম্পিয়ন হয়েই দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠে অলরেডরা। ড্র করতে পারলেই তারা দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করতে পারতো। ২০০৮-০৯- এর পর এবারই প্রথম লিভারপুল দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠলো। প্রথমার্ধেই তারা ৩-০ গোলে এগিয়ে যায়। কুটিনহো ছাড়া সাদিও মানে দুটি এবং সালাহ ও ফিরমিনো একটি করে গোল করেন। লিভারপুলের পক্ষে কুটিনহোর এটিই প্রথম হ্যাটট্রিক। লিভারপুল ইংল্যান্ডের পঞ্চম দল হিসেবে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করে।
দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠলো যারা
কোন দেশের কয় দল
ইংল্যান্ড ৫, স্পেন ৩, ইতালি ২, ফ্রান্স ১, জার্মানি ১, পর্তুগাল ১, তুরস্ক ১, ইউক্রেন ১ ও সুইজারল্যান্ড ১।
গ্রুপসেরা: বার্সেলোনা, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি, রোমা, পিএসজি, টটেনহ্যাম, বেসিকতাস, লিভারপুল।
রানার্সআপ: চেলসি, রিয়াল মাদ্রিদ, বায়ার্ন মিউনিখ, এফসি বাসেল ও জুভেন্টাস, শাখতার দনেতস্ক, পোর্তো ও সেভিয়া।
* সোমবার সুইজারল্যান্ডের নিয়নে দ্বিতীয়পর্বের ড্র অনুষ্ঠিত হবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন