প্লে-অফ খেলতে হবে সাইফ স্পোর্টিংকে

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ৮ ডিসেম্বর ২০১৭, শুক্রবার
এএফসি কাপে বাংলাদেশের দুটি ক্লাব খেলার সুযোগ পেলেও এখনো তাদের নাম চূড়ান্ত হয়নি। তাইতো এএফসি কাপে ড্র’তে বাংলাদেশের ক্লাব দুটিকে রাখা হয়েছে এ ও বি হিসেবে। তবে নানা হিসাব-নিকাশে ফেডারেশন কাপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ঢাকা আবাহনী খেলছে এটা বলা যায়। ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের শর্ত পূরণে এগিয়ে আছে সাইফ স্পোর্টিং। তবে সাইফকে সরাসরি খেলতে হলে লীগ চ্যাম্পিয়ন হতে হইবে। লীগ চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলে থাকতে হবে চারের মধ্যে।
সেক্ষেত্রে প্রাক-বাছাই পর্ব খেলে গ্রুপে ঢুকতে হবে নবাগত এই দলটিকে।
এএফসির প্রথম শর্ত হলো, যারা এএফসির ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের শর্ত পূরণ করেছে শুধু তারাই খেলতে পারবে এই টুর্নামেন্টে। সেই মতে আবাহনী, সাইফ ও মোহামেডান আছে দৌড়ে। তারাই ক্লাব লাইসেন্সিংয়ের শর্ত পূরণ করেছে, তাই অন্য কোনো দল লীগ জিতলেও এএফসি কাপ খেলার সুযোগ পাবে না। পরের শর্ত হলো, লীগ চ্যাম্পিয়ন অথবা ফেডারেশন কাপ জিততে হবে। তাই সর্বশেষ ফেডারেশন কাপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ঢাকা আবাহনী খেলছেই, এটা একরকম নিশ্চিত। বাংলাদেশের অন্য দল বাছাইয়ের জন্য লীগ শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।  সেখানে সাইফ স্পোর্টিং চ্যাম্পিয়ন হলে তো কথাই নেই। তখন তারা এএফসি কাপের ড্র অনুযায়ী ‘ই’ গ্রুপে সরাসরি খেলবে। নইলে তাদের পয়েন্ট টেবিলে বর্তমান অবস্থান চারের মধ্যে থাকতেই হবে। এভাবে টিকিট মিললে তাদের প্রাক প্লে-অফ এবং প্লে-অফ জিতেই ঢুকতে হবে গ্রুপে। তবে লীগ শেষে আবাহনী পয়েন্ট টেবিলে সাইফের আগে থাকলে সরাসরি গ্রুপে খেলার সুযোগ পাবে। ‘ই’ গ্রুপে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের একটি দল আইজল এফসি অথবা মোহনবাগান। এ ছাড়া মালদ্বীপের নিউ রেডিয়ান্ট এবং প্লে-অফ উত্তীর্ণ হওয়া একটি দল। ২৩শে জানুয়ারি থেকে প্লে-অফের প্রাক-বাছাই। সেখানে বাংলাদেশের দলটি খেলবে মালদ্বীপের প্রতিপক্ষের সঙ্গে। এই হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ম্যাচ জেতা দল প্লে-অফে খেলার টিকিট পাবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন