পিরোজপুরে মালবাহী কার্গোর ধাক্কায় ফেরি ডুবি

বাংলারজমিন

পিরোজপুর প্রতিনিধি | ৭ ডিসেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার
পিরোজপুরের কঁচা নদীর বেকুটিয়া ফেরির সঙ্গে মংলাগামী একটি মালবাহী কার্গোর সংঘর্ষে ফেরির তলা ফেটে ক্ষতিগ্রস্ত হলেও চালকের দক্ষতায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে ফেরিতে থাকা ৯টি যানবাহন ও যাত্রী। মঙ্গলবার রাত দুইটার দিকে কঁচা নদীতে ফেরিটি কুমিরমারা প্রান্ত থেকে যাত্রীবাহী বাস ও গরু বহনকারী ট্রাকসহ কাউখালী উপজেলার বেকুটিয়া প্রান্তে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে। ফেরির একাংশ নিমজ্জিত হওয়ায় পানির নিচে আটকা পড়ে যায় ৬টি গাড়ি। জানা গেছে, রাতেই স্থানীয়দের সহযোগিতায় আটকেপড়া গাড়ি থেকে যাত্রীদের ও গরু বহনকারী ট্রাকে থাকা ৫০ টি গরু উদ্ধার করা হয়। পরে গতকাল বুধবার ভোরে বরিশাল থেকে উদ্ধারকারী একটি ক্রেন ও একটি রেকার ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার কাজ চালায়। পাশাপাশি কাউখালী ও বরিশালের ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিট উদ্ধার কাজে অংশ নেয়।
খবর পেয়ে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মো. খায়রুল আলম শেখ ও পুলিশ সুপার মো. সালাম কবির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
বেকুটিয়া ইউটিলিটি ফেরির ইজারাদার মো. আজমীর হোসেন জানান, নদীতে ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন থাকায় মালবাহী কার্গোটি মাঝ নদীতে ফেরিটির ধাক্কা লাগলে ফেরির তলা ফেটে পানি ঢুকতে শুরু করে। এ অবস্থায় চালক দ্রুত ফেরিটি চালিয়ে পাশের একটি চরে উঠিয়ে দিলে যানবাহন ঝুঁকির হাত থেকে রক্ষা পায়। আজমীর হোসেন আরও জানান, ফেরিতে কুয়াকাটা এক্সপ্রেস নামের একটি যাত্রীবাহী বাসে ৩৫ জন যাত্রী ও ট্রাকগুলোতে গরু ও গ্যাস সিলিন্ডার ভর্তি ছিল। এ ব্যাপারে ফেরির চালক মাহবুব হোসেন জানান, তলা ফাটা অবস্থায় তিনি ফেরিটি দ্রুত চালিয়ে কাউখালী প্রান্তের চরে উঠিয়ে দিলে যানবাহনগুলো ঝুঁকির হাত থেকে রক্ষা পায়। রাতে নদীর পানি হ্রাস পাওয়ায় ফেরি থেকে দু’টি ট্রাক পানিতে পড়ে গেলেও বাকি গাড়িগুলোর তেমন কোনো ক্ষতি হয়নি বলেও জানান তিনি।
বেকুটিয়া ফেরি বন্ধ থাকায় ১৮ রুটের যান চলাচল বন্ধ থাকায় নদীর দু’পাড়ে সৃষ্টি হয় যানজট। পরে ফেরি সচল রাখার লক্ষ্যে কঁচা নদীর চরখালী-টগরা অপর ফেরিঘাট থেকে বাড়তি একটি ইউটিলিটি ফেরি বেকুটিয়া ঘাটে এনে সচল করা হয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন