শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটির দ্বিতীয় সমাবর্তন অনুষ্ঠিত

শিক্ষাঙ্গন

স্টাফ রিপোর্টার | ২৮ নভেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার
শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজির দ্বিতীয় সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বিকাল তিনটায় বসুন্ধরার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির ৩ নম্বর হলে এ সমাবর্তন হয়। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি’র সভাপতিত্বে সমাবর্তনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি, সমাবর্তন বক্তা ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান, শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. ইমামুল কবীর শান্ত, ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. কাজী মো. মফিজুর রহমান ও রেজিস্ট্রার স্থপতি হোসনে আরা রহমান। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, বিগত দেড়দশক ধরে এ প্রতিষ্ঠান অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে দেশ ও জাতি গঠনে। প্রিয় শিক্ষার্থীবৃন্দ, আজ আপনাদের জন্য বিশেষ আনন্দের দিন। এই সাফল্যের জন্য আপনাদের অভিনন্দন জানাচ্ছি।
একই সঙ্গে আপনাদের অভিভাবক ও শিক্ষক শিক্ষিকাদেরও অভিনন্দন জানাই। তিনি বলেন, বাস্তব জীবনকে মেধা ও শ্রম দিয়ে মোকাবিলা করতে হবে, তাহলে সফলতা আসবে। দেশপ্রেম, সততা ও নিষ্ঠা দিয়ে সব জয় করতে হবে। আপনাদের অর্জিত জ্ঞান দিয়ে সমাজের কম অগ্রসর মানুষগুলোর পাশে দাঁড়াবেন। তিনি বলেন, আমরা সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে আলাদাভাবে দেখি না, তারা সকলে আমাদের সন্তান। শিক্ষার পরিবেশ ও মান-উন্নয়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, আমি বেশ কিছুদিন থেকে এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত আছি। দেশ ও জাতি গঠনে এ বিশ্ববিদ্যালয় অনন্যসাধারণ অবদান রেখে চলেছে। এজন্য কর্তৃপক্ষ বিশেষত এর স্বপ্নদ্রষ্টা মো. ইমামুল কবীর শান্তকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানাই। সমাবর্তন বক্তা প্রফেসর আবদুল মান্নান বলেন, এদেশের তরুণদের অনেক সাফল্য এখন শুধু আমাদের গর্বিতই করে না- অন্যদেশের তরুণদেরও অনুপ্রাণিত করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা সম্পর্কে প্রফেসর মান্নান বলেন- ‘একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম লক্ষ্য হওয়া উচিত গবেষণার পরিবেশ সৃষ্টি করা এবং শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের গবেষণার প্রতি উৎসাহিত করা। শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি কর্তৃপক্ষ আমাকে জানিয়েছেন তারা এই ব্যাপারে সম্পূর্ণ সজাগ এবং তাদের বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা ও গবেষণার সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য নিরলস চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।’ চ্যান্সেলর পর্বে বিভিন্ন বিভাগের গ্র্যাজুয়েটদের ডিগ্রি ও কৃতী শিক্ষার্থীদের চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক প্রদান করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। আমন্ত্রিত অতিথিদের ক্রেস্ট প্রদান এবং বক্তৃতার মধ্য দিয়ে এ পর্বটি সম্পন্ন হয়। পরে বিভিন্ন বিভাগের গ্র্যাজুয়েটদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়। শেষপর্বে ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক পর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মহামান্য প্রেসিডেন্টের সহধর্মিণী বেগম রাশিদা হামিদ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

তাবিথ আউয়ালই ডিএনসিসির উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী

ফের টেস্ট অধিনায়ক সাকিব

দুই বছর ওএসডি ছিলেন মারুফ জামান

সারা দেশ গুম-খুনে জর্জরিত

শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্কের যাত্রা শুরু

চালের দাম ফের বাড়ছে

কুড়িগ্রামে মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা

আওয়ামী লীগে প্রার্থীর ছড়াছড়ি নির্ভার বিএনপি

সিলেটে শামীমের বিরুদ্ধে রুমার মামলা, তোলপাড়

আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাপা প্রার্থীর ভাবনা

এবি ব্যাংক চেয়ারম্যানসহ ৪ জনকে দুদকে তলব

আড়াইহাজারের এমপির সঙ্গে মাওলানা হাবিবুরের বাগবিতণ্ডার ভিডিও ভাইরাল

রাবি চারুকলা অনুষদের সেই ডিনের পদত্যাগ

সাভারে জমি দখল নিয়ে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৯

সাকিব ফের বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক

এমপি মুক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ইসিকে দুদকের চিঠি