এশিয়ান আরচারি চ্যাম্পিয়নশিপ

উদ্বোধন আজ লড়াই শুরু কাল

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২৫ নভেম্বর ২০১৭, শনিবার
এশিয়ার সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতা এশিয়ান আরচারি চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজনের মাধ্যমে ক্রীড়াঙ্গনে নতুন করে নিজেদের চেনাবে বাংলাদেশ। আজ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হবে এশিয়ার তীরন্দাজদের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই। প্রতিযোগিতার ২০তম আসরের সাক্ষী হতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। টুর্নামেন্টের গায়ে এশিয়া কাপের তকমা থাকলেও এ প্রতিযোগিতা অনেক উঁচু মানের। আরচারিতে যে দেশগুলো বিশ্ব শাসন করে তাদের বেশিরভাগই এশিয়ার। অলিম্পিকে পদকজয়ী কয়েকজন আরচারও খেলবে এ চ্যাম্পিয়নশিপে।
তাই এ প্রতিযোগিতায় লড়াই হবে অনেক বিশ্বসেরাদের মধ্যেও। আরচারদের এ মিলনমেলায় অংশ নিতে এন্ট্রি করেছিল ৩৫ দেশ। তবে উজবেকিস্তান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত টুর্নামেন্টে অংশ নিতে নাম নিবন্ধন করলেও তাদের আসা নিশ্চিত নয়। যে কারণে আরচারি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী রাজীব উদ্দিন আহমেদ চপল আভাস দিলেন টুর্নামেন্ট হতে পারে ৩৩ দেশের। টুর্নামেন্টের আজ উদ্বোধন হলেও আসল লড়াই শুরু হবে আগামীকাল।
৩৩ দেশের এ টুর্নামেন্টে নেই দেশ সেরা দুই আরচার সজীব শেখ ও শ্যামলী রায়। দুর্বল পারফরম্যান্সই দূরে রেখেছে দুই আরচারকে। গেল আট মাসের অনুশীলনে ধীরে ধীরে তাদের স্কোর কমতে থাকায় বাদ দেয়া হয়েছে। তবে যাদেরকে নেয়া হয়েছে, দীর্ঘদিনের স্কোর যোগ করেই নেয়া হয়েছে।
দুই আরচার বাদ পড়ায় বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর আগের দিন বাংলাদেশের কোচ নিশিথ দাস বলেন ‘প্রত্যেক সপ্তাহে আমরা তিনটি করে টেস্ট করেছিলাম। শেষ দিকে এসে শ্যামলী রায় ও সজীব শেখ তাদের পারফরম্যান্স ধরে রাখতে পারেনি। তাই সিনিয়র হয়েও বাদ পড়েছে তারা।’ এছাড়া জানুয়ারিতে ঢাকায় অনুষ্ঠিত ইসলামিক সলিডারিটি আরচারি চ্যাম্পিয়নশিপে সোনাজয়ী হীরামনি অসুস্থতার জন্যই দলে আসতে পারেননি। একমাস ধরেই চিকুনগুনিয়ায় ভুগছেন তিনি। স্বাগতিক হয়েও যেন স্বাগতিক নয় বাংলাদেশ। কারণ নিজ দেশে খেলা হলেও মূল ভেন্যুতে অনুশীলন করার সুযোগ পায়নি এতদিন। গতকাল সবার সঙ্গে সেই সুযোগ পায় লাল সবুজের তীরন্দাজরা। তবে আগে থেকে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলন করতে পারলে ভালো হতো বলেই মনে করেন আরেক কোচ জিয়াউল হক। ‘বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের তুলনায় মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়াম ছোট। এখানে বাতাস চারিদিকে ঘুরে। ফলে তীর লক্ষ্যভেদ করা কঠিন হয়ে পড়ে। তাই খোলামেলা বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে অনুশীলনটা বড় প্রয়োজন ছিল’- বলেন তিনি।
এশিয়ান আরচারিতে পদক জয়ের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে স্বাগতিকদের। তবে ভাল ফল এনে দিতে পারেন রোমান সানা, তামিমুল ইসলাম এবং ইব্রাহিম। তাছাড়া রিকার্ভ পুরুষ এবং কম্পাউন্ড পুরুষ ও মহিলা দলগতেও স্বাগতিকদের উজ্জ্বল সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করেন নিশিথ দাস। বলেন ‘দলগত ইভেন্টে এগিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা দেখছি। তাছাড়া রোমান সানাকে নিয়ে সেমিফাইনালের স্বপ্নও দেখছি।’ তরুণদের নিয়ে নিশিথের কথা, ‘তরুণ আরচাররা খুবই ভালো করছে। তারা যোগ্যতা অর্জন করেই দলে জায়গা করে নিয়েছে। এত বড় টুর্নামেন্টে সুযোগ পেয়ে ওরাও খুশী। আশাকরি আমার প্রত্যাশানুযায়ী তারা খেলবে।’
আজ সকালে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে চ্যাম্পিয়নশিপের উদ্বোধান করবেন বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা। চ্যাম্পিয়নশিপ উদ্বোধন হওয়ার পর দুপুর ১২টায় ম্যানেজারস মিটিং অনুষ্ঠিত হবে। যেখানেই সকল প্রতিযোগিতার সুচি ঘোষণা করা হবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

তাবিথ আউয়ালই ডিএনসিসির উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী

ফের টেস্ট অধিনায়ক সাকিব

দুই বছর ওএসডি ছিলেন মারুফ জামান

সারা দেশ গুম-খুনে জর্জরিত

শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্কের যাত্রা শুরু

চালের দাম ফের বাড়ছে

কুড়িগ্রামে মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা

আওয়ামী লীগে প্রার্থীর ছড়াছড়ি নির্ভার বিএনপি

সিলেটে শামীমের বিরুদ্ধে রুমার মামলা, তোলপাড়

আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাপা প্রার্থীর ভাবনা

এবি ব্যাংক চেয়ারম্যানসহ ৪ জনকে দুদকে তলব

আড়াইহাজারের এমপির সঙ্গে মাওলানা হাবিবুরের বাগবিতণ্ডার ভিডিও ভাইরাল

রাবি চারুকলা অনুষদের সেই ডিনের পদত্যাগ

সাভারে জমি দখল নিয়ে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৯

সাকিব ফের বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক

এমপি মুক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ইসিকে দুদকের চিঠি