‘রিভেঞ্জ পর্নো’ প্রতিরোধে নগ্ন ছবির ‘ছাপ’ সংরক্ষণের উদ্যোগ ফেসবুকের

এক্সক্লুসিভ

মানবজমিন ডেস্ক | ১৫ নভেম্বর ২০১৭, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৩৫
সাবেক সঙ্গীর ওপর প্রতিশোধ নিতে তার একান্ত অবস্থার ছবি বা ভিডিও প্রকাশ করে দেয়ার প্রবণতা বিশ্বের দেশে দেশে বাড়ছে। এই অপর্চ্চার নাম দেওয়া হয়েছে ‘রিভেঞ্জ পর্নো।’ এসব ছড়িয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকেও ব্যবহার করা হচ্ছে। আর তাই নিজেদের প্লাটফর্মে রিভেঞ্জ পর্নো ছড়িয়ে পড়া প্রতিরোধে অভিনব এক পরীক্ষা শুরু করেছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। নতুন এই পদ্ধতিতে ফেসবুক ব্যবহারকারীকে নিজের নগ্ন ছবি নিজের কাছেই প্রেরণ করতে বলা হচ্ছে। ফেসবুক এই ছবির ‘ছাপ’ সংরক্ষণ করবে, যাতে করে ওই ব্যবহারকারীর যেকোনো নগ্ন দৃশ্য সংবলিত ভিডিও বা ছবি ফেসবুকে কেউ শেয়ার করতে না পারে। বিবিসি জানিয়েছে, ফেসবুক আপাতত অস্ট্রেলিয়ায় এই পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে।
অস্ট্রেলিয়াকে বেছে নেয়ার বিশেষ কারণও আছে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, দেশটির প্রতি পাঁচজন ১৮-৪৫ বছর বয়সী নারীর একজন রিভেঞ্জ পর্নোর শিকার হয়েছেন। অর্থাৎ, সম্পর্ক ছাড়াছাড়ির পর তাদের ব্যক্তিগত ছবি অনলাইনে প্রকাশ করে দিয়েছে সাবেক প্রেমিক। ফেসবুক বলছে, তারা এই পরীক্ষা নিয়ে মানুষের মতামত জানতে আগ্রহী। ফেসবুকের নতুন এই পরীক্ষা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া এসেছে। একজন বিশেষজ্ঞ বলছেন, ফেসবুক ও তাদের সহযোগী প্লাটফর্ম হোয়্যাটসঅ্যাপ বা ইন্সটাগ্রামের বাইরে ঠিকই সমস্যাটি রয়ে যাবে। অস্ট্রেলিয়ার ইন্টারনেট সেফটি কমিশনার জুলি ইনমান গ্রান্ট বলেছেন, অস্ট্রেলিয়ায় রিভেঞ্জ পর্নো একটি বাড়ন্ত সমস্যা। তিনিও ফেসবুকের এই পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। তিনি বলেন, ‘আমরা এমন অনেক ঘটনা দেখেছি যে, হয়তো সম্পর্কের একপর্যায়ে কারও ছবি বা ভিডিও ধারণ করা হয় অনুমতিসাপেক্ষে। কিন্তু এই ছবি বা ভিডিও প্রকাশ হয় কোনো অনুমতি ছাড়াই।’
কিন্তু অনেক ব্যবহারকারীই ফেসবুকে নিজেদের নগ্ন ছবি দেয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন। জুলি ইনমান গ্রান্ট তাদের আশ্বস্ত করে বলেছেন, পুরো ব্যাপারটা অনেকটা নিজের কাছে নিজে ই-মেইল করার মতো। বরং, এই ছবি আরও নিরাপদ, নিশ্চিদ্র মাধ্যমের ভেতর দিয়ে প্রেরিত হবে। তিনি বলেন, ‘ফেসবুক এই ছবি সংরক্ষণ করবে না। তারা ছবির লিংক সংরক্ষণ করবে। ছবির ‘ছাপ’ থেকে ছবি শনাক্তে ব্যবহৃত হবে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা (আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স) ও অন্যান্য ফটো-শনাক্তকরণ প্রযুক্তি।’ অর্থাৎ, এই প্রক্রিয়ায় কোনো মানুষের অংশগ্রহণ থাকবে না। তবে আপাতত যেসব ব্যবহারকারী নিজের নগ্ন ছবি দিয়ে এই পরীক্ষায় সাহায্য করতে চান, তাদের অবশ্যই আগে কমিশনার জুলি ইনমানের কাছে একটি রিপোর্ট জমা দিতে হবে। কমিশনার যাচাই-বাছাই শেষে তা ফেসবুককে দেবেন।
ডারহাম ল’ স্কুলের অধ্যাপক ক্লেয়ার ম্যাকগ্লিন একে আখ্যায়িত করেছেন ‘সৃজনশীল পরীক্ষা’ হিসেবে। তবে তিনি সন্দেহ প্রকাশ করে বলেন, ‘এই ইস্যুটি মোকাবিলায় পদক্ষেপ নেয়ায় ফেসবুককে আমি স্বাগত জানাই। কারণ, অতীতে এসব ইস্যুতে সক্রিয় হতে অনেক সময় নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। তবে, এই প্রচেষ্টা কাজ করবে খুব অল্প কিছু মানুষের বেলায়। আমরা যখন দেখছি যে প্রতিদিন প্রচুর সংখ্যক নগ্ন ছবি ধারণ করা হচ্ছে ও শেয়ার করা হচ্ছে, তখন বলতে হয় যে, এই উদ্যোগ কোনো সমাধান নয়।’ এই প্রকল্পের নিরাপত্তা পরামর্শক গ্রাহাম ক্লুলে বলেন, পুরো প্রক্রিয়ায় নিরাপত্তা হবে অগ্রাধিকারমূলক। তিনি বলেন, ‘ফেসবুক জানে যে, অনেক মানুষের মনেই উদ্বেগ থাকবে যে, এ ধরনের সংবেদনশীল ছবি বা ভিডিও’র ব্যবস্থাপনা ফেসবুক কীভাবে করবে। আমি বুঝি যে, কোনো ভুল যাতে না হয়, সেজন্য অনেকেই এ ব্যাপারে অনেক ভেবেছেন।’ তাই পুরো প্রক্রিয়ায় নিরাপত্তাকেই বেশি প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে বলে দাবি করছেন তিনি।এ বছরের মার্চে প্রকাশিত হয় যে, ম্যারিন ইউনাইটেড নামে ৩০ হাজার সদস্যবিশিষ্ট একটি গোপন ফেসবুক গ্রুপে নিয়মিতই নগ্ন নারীদের ছবি পোস্ট করা হতো। মার্কিন মেরিন সেনাদের ওই গ্রুপে নগ্ন ও অর্ধনগ্ন নারী সহকর্মীদের ছবিও শেয়ার করা হতো। এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে ফেসবুক। খবর প্রকাশ পাওয়ার পর, ফেসবুক এক নতুন ফিচার চালু করে। এই ফিচারের আওতায় ফটো-শনাক্তকরণ প্রযুক্তির মাধ্যমে রিভেঞ্জ পর্নো হিসেবে চিহ্নিত ছবি ফেসবুকের ছড়িয়ে পড়া বন্ধ করার ব্যবস্থা নেয়া হয়। এ ধরনের ছবি যেসব অ্যাকাউন্টে আপলোড করা হয়েছে, সেগুলো বন্ধ হয়ে যায়। পাশাপাশি, নতুন কোনো অ্যাকাউন্ট থেকে সেসব ছবি আপলোড দেয়ার সুযোগও রহিত হয়ে যায়। এরপর থেকেই রিভেঞ্জ পর্নো প্রতিরোধে নতুন এই পরীক্ষায় নেমেছে ফেসবুক।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বিএনপিকে ভোট দিয়ে অশান্তি ফিরিয়ে আনবে না জনগণ: প্রধানমন্ত্রী

অভিযোগ মিথ্যা এতিমখানার টাকা আত্মসাৎ করিনি

আরো ব্লগার হত্যার হিটলিস্ট

আসিফ নজরুলের বিরুদ্ধে মামলা, অতঃপর...

ফের বেড়েছে বিদ্যুতের দাম

চাহিদা নেই, তবুও রাজউকের নতুন ফ্ল্যাট প্রকল্প

‘আনিসুল হককে নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা ভিত্তিহীন’

মৌলভীবাজারে গ্রাহকের কোটি টাকা নিয়ে লাপাত্তা ভিডিএন চেয়ারম্যান ও এমডি

সিলেটে জামায়াতের ‘স্বতন্ত্র প্রার্থী’, জল্পনা

সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ

রোহিঙ্গা জাতি নিধনের তুমুল সমালোচনা যুক্তরাষ্ট্রের

‘আমি হতবাক’

ডাক্তাররা বেশ প্রভাবশালী ও তদবিরে পাকা: স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী

যশোর জেলা স্পেশাল জজের বিরুদ্ধে ঘুষ নেয়ার অভিযোগ

রোহিঙ্গা শব্দ ব্যবহার না করতে বলা হলো পোপকে

অসুস্থ রাজনীতি বাংলাদেশকে গ্রাস করছে: ড. কামাল হোসেন