বিয়ের খবরটি নিশ্চিত করেছে হৃদয়ের পরিবার

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৬
শেষ পর্যন্ত সত্যি হলো গুঞ্জনটি। সংগীতশিল্পী হৃদয় খান বিয়ে করেছেন। খবরটি সত্যি বলে নিশ্চিত করেছে তার পরিবার। হুমায়রা নামে এক তরুণীর সঙ্গে গত ১০ই সেপ্টেম্বর ঢাকার ধানমন্ডিতে কনের বাসায় এ বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। এর আগের দিন হয়েছে গায়ে হলুদ। হৃদয়ের বাবা সংগীত পরিচালক রিপন খান এ প্রসঙ্গে গণমাধ্যমকে বলেন, হৃদয়ের বিয়ের খবরটি সত্যি।
আমরা দুই পরিবার মিলে তাদের বিয়ে দিয়েছি। এখানে আমাদের আত্মীয়স্বজনরা ছিলেন। সবার আশীর্বাদ নিয়ে তারা নতুন জীবন শুরু করেছে। রিপন খান আরো বলেন, মালয়েশিয়ায় পড়াশোনা শেষ করে এসেছে হুমায়রা। সে এখন হৃদয়ের বাসায় আছে। জানা যায়,  হুমায়রা হৃদয়ের স্কুলের বন্ধু। তারা একসঙ্গে ও লেভেল করেছেন। মাঝে অনেক দিন যোগাযোগ ছিল না। গত বছর আবার যোগাযোগ হয়। দু’জনের মধ্যে মন দেয়া-নেয়া চলছিল বেশ কয়েক মাস ধরে। অবশেষে এই ভালোবাসার সফল সমাপ্তি হলো বিয়ের মধ্য দিয়ে। উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হৃদয় ও হুমায়রার বিয়ের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে ইন্টানেটে একটি ছবি ফাঁস হওয়ার মাধ্যমে। এতে দেখা যাচ্ছে, পাঞ্জাবি পরা হৃদয় ও লাল বেনারসী পরা নববধূর সাজে এক তরুণী হাস্যোজ্জ্বলভাবে তাকিয়ে আছেন একে অপরের দিকে। বিয়ের দিনই এটি তোলা হয়েছে বলে জানা যায়। এদিকে বিয়ের খবর ছড়িয়ে যাওয়ার পর থেকে একাধিকবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও সাড়া দেননি হৃদয়। বারবারই ফোন কেটে দেন তিনি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বলিউড ছবি নিয়ে ভারতে তোলপাড়, নিষেধাজ্ঞা নেই-সুপ্রিম কোর্ট

চকবাজারে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত

ভারতে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে ধর্ষণ

দেশীয় অস্ত্রসহ আটক ৯ ডাকাত

রাজধানীতে মা-মেয়ের ‘আত্মহত্যা’

লন্ডনে ফিন্সবারি পার্ক মসজিদে হামলাকারী: 'যত বেশি সম্ভব মুসলিম মারতে চেয়েছি।'

সিএনজি চালক হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারের অচলাবস্থার অবসান

নতুন নতুন পথ খুঁজছেন সুচি

দু’বছরের মধ্যে জেরুজালেমে দূতাবাস খুলবে যুক্তরাষ্ট্র

রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন বিলম্বিত করার কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয় নি মিয়ানমারকে

শিক্ষামন্ত্রণালয়ের দুই কর্মচারী ও লেকহেড স্কুলের মালিকের বিরুদ্ধে মামলা

প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচন ১৯শে ফেব্রুয়ারি

ফেরত পাঠালে রোহিঙ্গারা ঝুঁকিতে পড়বে

একই রাতে মা ও ছেলের মৃত্যু

ধনী ১ শতাংশ মানুষের হাতে বিশ্বের ৮২ শতাংশ সম্পদ