গঙ্গাচড়ায় ২০ লাখ টাকার মাছ নিধন

বাংলারজমিন

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বুধবার
রংপুরের গঙ্গাচড়ায় কাজী ফার্মের মুরগীর ময়লা দিয়ে কৃষকের পুকুর ও ধানক্ষেতে চাষকৃত প্রায় ২০ লাখ টাকার মাছ নিধন করা হয়েছে। এ ঘটনায় কৃষকগণ আয়ের পথ হারিয়ে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পরেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার আলমবিদিতর সয়রাবাড়ী এলাকায়। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকগণ জানান, সয়রাবাড়ীতে অবস্থিত কাজী ফার্মের মুরগীর ময়লাসহ জমে থাকা বিষাক্ত নোংরা পানি গত দু’দিন আগে ফার্ম কর্তৃপক্ষ ছেড়ে দিলে তা ফার্মের পার্শ্ববর্তী ধানক্ষেতে মাছ চাষাবাদকৃত জমিতে ও পুকুড়ে গিয়ে পড়ে। এতে ওই এলাকার রুহুল আমিনের ১ একর জমির পুকুর, ছকর আলীর ২ একর পুকুর, হাউয়ল ইসলামের ২ বিঘা, কাইয়ুমের দেড় একর, লিখনের ২ একর ও আব্দুল কুদ্দুছের ১ বিঘা পুকুর ও আড়াই একর জমির ধানক্ষেতে চাষাবাদকৃত মাছ মরে যায়। তারা জানান, জমি একটু নিচু হওয়ায় বর্ষা মৌসুমে ধান চাষাবাদের পাশাপাশি সেখানে মাছ চাষ করে বাড়তি আয় করেন। এজন্য তাদের অধিক পরিশ্রম ও দেখাশুনার জন্য লোক রেখে বাড়তি খরচ করতে হয়। কিন্তু কাজী ফার্ম কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় এবং তাদের ফার্ম রক্ষায় মুরগীর ময়লা ও বিষাক্ত পানি রাতের আঁধারে ছেড়ে দিয়ে কৃষকের প্রায় ২০ লাখ টাকা ক্ষতি করেছে। তারা বলেন, আমরা ধানক্ষেত ও পুকুরে গিয়ে দেখি মাছ মরে মরে ভেসে আছে। মাছ দেখাশুনার দায়িত্বে থাকা আয়নাল, ময়নুল, লুতফর, মানিক, হকি, এরশাদ, জিয়ারুল, অতুল, সেকেন্দার ও বাদল বলেন, ধানক্ষেতের মাছ দেখার দায়িত্বে থেকে আমরা যে মজুরি পেতাম তা দিয়ে সংসার চলত।
মাছ মরে যাওয়ায় এখন আমরা কর্মহীন হয়ে পড়লাম। এ ব্যাপারে কাজী ফার্মের ম্যানেজার আজিজুল ইসলাম বলেন, কৃষকের ক্ষতির বিষয়টি ফার্মের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ম্যানচেস্টারে এবার মসজিদের বাইরে একজন ডাক্তারকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কলেরা সংক্রমণের আশঙ্কা বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থার

স্বামীকে বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণ, আটক ১

২৮ ‘হিন্দু’র খুনী কে!

ভেঙ্গে গেল স্পর্শিয়ার সংসার

নির্বাচিত মারকেল, ইসলামবিরোধী এএফডির উত্থান, কঠিন চ্যালেঞ্জ সামনে

মালিতে নিহত সার্জেন্ট আলতাফের বাড়িতে শোকের মাতম

বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী নিহত হওয়ায় জাতিসংঘ মহাসচিবের শোক, নিন্দা

যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় আরও তিন দেশ

‘যেভাবে ভাবি সেভাবে এখনো ক্যামেরার সামনে অভিনয় করতে পারিনি’

​ জার্মানির নির্বাচনে শেষ হাসি মার্কেলেরই

রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশের ব্যাপক আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রয়োজন: ইউএনএইচআরসি

ভিত্তিহীন খবরে তোলপাড়

মার্কেল?

ফের সীমান্তে রোহিঙ্গা স্রোত

সন্তানদের সামনেই শামিলাকে ধর্ষণ করে বার্মিজ সেনারা