বিশ্বজিৎ হত্যা মামলা হাইকোর্টের রায় ৬ই আগস্ট

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ জুলাই ২০১৭, মঙ্গলবার
পুরান ঢাকার দর্জি দোকানি বিশ্বজিৎ দাস হত্যা মামলায় হাইকোর্টে আপিলের রায় ঘোষণা করা হবে আগামী ৬ই আগস্ট। নিম্ন আদালতের রায়ে দণ্ডপ্রাপ্তদের ডেথ রেফারেন্স, আপিল ও জেল আপিলের  শুনানি গতকাল শেষ হয়। শুনানি শেষে আগামী ৬ই আগস্ট এ মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ। ২০১২ সালে সংঘটিত আলোচিত এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিম্ন আদালতের রায়ে  ৮ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ১৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। পরে ডেথ রেফারেন্স নথি হাইকোর্টে আসে। একই সঙ্গে আসামিরাও সাজার বিরুদ্ধে আপিল করেন।
পরে প্রধান বিচারপতির নির্দেশে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এ মামলার পেপারবুক প্রস্তুত করা হয়। গত ১৬ই মে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে এ মামলার শুনানি শুরু হয়। ২৩শে মে রাষ্ট্রপক্ষে যুক্তি উপস্থাপন শেষ হওয়ার পর আসামিপক্ষের আইনজীবীরা যুক্তি উপস্থাপন করেন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নজিবুর রহমান। আসামিপক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী এসএম শাহজাহান, মনসুরুল হক চৌধুরী, মো. শাহ আলম। ২০১২ সালের ৯ই ডিসেম্বর বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকা  অবরোধের সময় পুরান ঢাকার বাহাদুর শাহ পার্ক এলাকায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের একটি মিছিল বের হয়। একপর্যায়ে মিছিলে নেতৃত্ব দেয়া ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বিশ্বজিৎকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করে। নিরীহ বিশ্বজিৎকে হত্যা করার ওই ঘটনার খবর ও ছবি দেশ-বিদেশে আলোড়ন ও নিন্দার ঝড় তোলে। ২০১৩ সালের ১৮ই ডিসেম্বর ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৪ এর বিচারক এ বি এম নিজামুল হক এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। রায়ে ২১ আসামির মধ্যে আটজনকে মৃত্যুদণ্ড ও ১৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়। এছাড়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরো এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। ফাঁসির আদেশ পাওয়া আট আসামি হলেন-রফিকুল ইসলাম শাকিল, মাহফুজুর রহমান নাহিদ, এমদাদুল হক এমদাদ, জি এম রাশেদুজ্জামান শাওন, সাইফুল ইসলাম, কাইয়ুম মিঞা, রাজন তালুকদার ও মীর নূরে আলম লিমন। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ১৩ আসামি হলেন- গোলাম মোস্তফা, এ এইচ এম কিবরিয়া, ইউনুস আলী, তারিক বিন জোহর তমাল, আলাউদ্দিন, ওবায়দুর কাদের তাহসিন, ইমরান হোসেন, আজিজুর রহমান, আল-আমিন, রফিকুল ইসলাম, মনিরুল হক পাভেল, কামরুল হাসান ও মোশাররফ হোসেন। আসামিদের মধ্যে মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া রাজন ও লিমন এবং যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে আসামি ইউনুস, তমাল, আলাউদ্দিন, তাহসিন, ইমরান, আজিজ, আল-আমিন, রফিকুল, পাভেল, কামরুল ও মোশাররফ রায়ের সময় পলাতক ছিলেন।
 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কীভাবে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারকের পদ হারালো বৃটেন?

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে রাজশাহী কিংস

গুম আর জোর করে গুম এক নয়

আনন্দ শোভাযাত্রা শুরু

‘দুর্নীতি বাড়ার জন্য রাজনীতিবিদরা দায়ী’

রংপুর ও রাজশাহীতে শীত বাড়ছে

‘ভারত ও চীন রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বাড়ি ঘর নির্মাণে সহায়তা করবে’

দিনাজপুরে পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত: যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ

বিডিআর বিদ্রোহ মামলায় হাইকোর্টের রায় কাল

বরিশালে রানী এলিজাবেথের পুত্রবধূর একদিন

ইরান-সৌদি আরব বাকযুদ্ধ

বরখাস্ত তিনজন, তদন্ত কমিটি

‘শিগগিরই সুখবরটি শুনতে পাবেন’

যে রাস্তাগুলো বন্ধ থাকবে আজ

‘শেষ মুহূর্তে হলে সরকার সমঝোতায় আসবে’

রবি-সোমবার সব সরকারি কলেজে কর্মবিরতি