হকি ফেডারেশন কেন বারবার পিছু হটে

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৮ জুলাই ২০১৭, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৪
নিজেদের সিদ্ধান্তে কখনই অটল থাকতে পারে না বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন। সম্প্রতি তেমনই এক ঘটনা ঘটেছে। চলতি বছর ওয়ার্ল্ড হকি লীগের রাউন্ড-২তে বাজে পারফরমেন্স ও দলের শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে রাসেল মাহামুদ জিমিকে নিষিদ্ধ করার সুপারিশ করেছিল ওয়ার্কিং কমিটি। নির্বাহী কমিটির সভাতেও সেই সিদ্ধান্ত বহাল ছিল। কিন্তু এখন পিছু হটছে ফেডারেশন। জিমিকে এশিয়া কাপের দলে ডেকেছেন কোচ মাহবুব হারুন। এর আগেও বিভিন্ন  মেয়াদে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন জিমিসহ চার সিনিয়র খেলোয়াড়।
সে শাস্তিও প্রত্যাহার করে ফেডারেশন। কোচ মাহবুব হারুন, মেরিনার্সের সাধারণ সম্পাদক হাসানউল্লাহ খান রানসহ বিভিন্ন জনকে দেয়া শাস্তিও শেষ পর্যন্ত প্রত্যাহার করে নিয়েছে তারা। ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত বহাল রাখতে না পারাকে সাংগঠনিক ব্যর্থতা হিসেবেই দেখছেন সহ-সভাপতি খাজা রহমতউল্লাহ।
২০১৩ সালে এশিয়া কাপ হকিতে ব্যর্থতার জন্য গড়া তদন্ত কমিটির সুপারিশে বড় শাস্তি হয়েছিল কোচ মাহবুব হারুনসহ রাসেল মাহমুদ জিমি, জাহিদ হোসেন ও ইমরান হাসান পিন্টুকে। দুই বছরের জন্য সব ধরনের ঘরোয়া হকিতেও তারা নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। আর কামরুজ্জামান রানাকে জাতীয় দল থেকে দুই বছর আর ঘরোয়া হকিতে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। কোচ মাহবুব হারুনকে জাতীয় দলের সব ধরনের কোচিং থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছিল। তাদের শাস্তি দেয়া হয় ৪ঠা নভেম্বর ২০১৩তে। এক বছর যেতে না যেতেই তাদের শাস্তি প্রত্যাহার করে নিয়েছিল ফেডারেশন। ছয় মাস না পেরুতেই জাতীয় দলের জন্য ডাকা হয় মাহবুব হারুনকে। চলতি বছরের শুরুর দিকে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয় ওয়ার্ল্ড হকি লীগের রাউন্ড-২। আট দলের এ আসরে বাজে ফল করে বাংলাদেশ। মাঠে এবং মাঠের বাইরে দারুণ ভাবে সমালোচিত হন রাসেল মাহমুদ জিমি। বাধ্য হয়েই তাকে তিন বছরের জন্য নিষিদ্ধ করার সুপারিশ করে ওয়ার্কিং কমিটি। নির্বাহী কমিটির সভাতেই তা বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নেয় হয়। কিন্তু হঠাৎ করে আবারও জিমিকে জাতীয় দলে ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয় হয়। জানা গেছে, জিমিকে ক্যাম্পে ফেরানোর পুরো প্রক্রিয়াটা ঘটেছে নির্বাচক কমিটি আর ফেডারেশন সভাপতির আগ্রহে। নির্বাচক কমিটির সদস্য হিসেবে আছেন মামুনুর রশিদ, রফিকুল ইসলাম কামাল, আবু জাফর তপন, আরিফুল হক প্রিন্স, মাহবুব এহসান রানা। নির্বাচক কমিটির এই চারজন সদস্য জিমিকে শাস্তির সুপারিশ করেছিলেন, তারাই আবার জিমির শাস্তি প্রত্যাহারের সুপারিশ করেছে। জিমি তাদের সঙ্গে বৃহস্পতিবার যোগ দিয়েছেন ফেডারেশন নির্বাচনে সাধারন সম্পাদক প্রার্থী রশিদ শিকদারের নির্বাচনী প্রচারনায়। কর্মকর্তাদের বেলায়ও এমন ঘটনা ঘটে চলছে অহরহ। গত লীগে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ঊষার সমর্থকদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন মেরিনার্সের সমর্থকরা। ফেডারেশন সাধারণ সম্পাদকের উপস্থিতিতে তারা এক পর্যায়ে স্টেডিয়ামের ভিআইপি বক্স ভাঙচুর চালায়। এই ঘটনার জের ধরে আর্থিক জরিমানাসহ পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয় মেরিনার্সের সাধারণ সম্পাদক হাসানউল্লাহ খানা রানাকে। শেষ পর্যন্ত ওই সিদ্ধান্তও ঠিখ রাখতে পারেনি ফেডারেশন। মোহামেডানের আরিফুল হক প্রিন্স, বাংলাদেশ স্পোটিংয়ের হাজী হুমায়ুনকেও নিষিদ্ধ করেছিলো ফেডারেশন। প্রিন্সের  মামলাও করেছিলো। এরা কিন্তু এখন ফেডারেশনের সদস্য। এমন উদাহরণ আরো আছে ভুরি ভুরি। বিশ্লেষকরা বলছেন, হকি ফেডারেশনের এমন নতজানু মনোভাবেই হকিতে ঘটছে একের পর এক অপ্রীতিকর পরিস্থিতি। এর কারণ হিসেবে ফেডারেশনের সহ-সভাপতি খাজা রহমতুল্লাহ বলেন, ফেডারেশনের কিছু লোক আছেন, যারা দেশের স্বার্থের দিকে না তাকিয়ে ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলে এসব হটকারী সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন, যা পরবর্তীতে ফেডারেশনের পক্ষে বহাল রাখা সম্ভব হয় না। তিনি নিজেও এ দায় থেকে মুক্ত নন বলে স্বীকার করেন রহমতুল্লাহ। বলেন, ‘হ্যাঁ এটা ঠিক আমরাও কিছু সিদ্ধান্ত বিভিন্ন সময় নিয়েছি। কিন্তু পরবর্তীতে তা বহাল রাখতে পারিনি। তবে আমরা যা করেছি হকির স্বার্থেই করেছি’। তবে জিমির বিষয়টি ভিন্ন উল্লেখ্য করে ফেডারেশন  সাধারন সম্পাদক আব্দুস সাদেক বলেন, জিমি যা করেছে এর জন্য ওকে কঠিন শাস্তি পেতে হবে। ফেডারেশনের পরবর্তী সভাতেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।


 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কীভাবে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারকের পদ হারালো বৃটেন?

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে রাজশাহী কিংস

গুম আর জোর করে গুম এক নয়

আনন্দ শোভাযাত্রা শুরু

‘দুর্নীতি বাড়ার জন্য রাজনীতিবিদরা দায়ী’

রংপুর ও রাজশাহীতে শীত বাড়ছে

‘ভারত ও চীন রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বাড়ি ঘর নির্মাণে সহায়তা করবে’

দিনাজপুরে পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত: যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ

বিডিআর বিদ্রোহ মামলায় হাইকোর্টের রায় কাল

বরিশালে রানী এলিজাবেথের পুত্রবধূর একদিন

ইরান-সৌদি আরব বাকযুদ্ধ

বরখাস্ত তিনজন, তদন্ত কমিটি

‘শিগগিরই সুখবরটি শুনতে পাবেন’

যে রাস্তাগুলো বন্ধ থাকবে আজ

‘শেষ মুহূর্তে হলে সরকার সমঝোতায় আসবে’

রবি-সোমবার সব সরকারি কলেজে কর্মবিরতি