এসডিজি অর্জনে তৃণমূলের জনগণকে ব্যাপকভাবে সম্পৃক্ত করতে হবে: স্পিকার

দেশ বিদেশ

সংসদ রিপোর্টার | ১৮ জুলাই ২০১৭, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৩৪
স্পিকার ও সিপিএ চেয়ারপারসন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জন করতে হলে তৃণমূলের জনগণকে ব্যাপকভাবে সম্পৃক্ত করতে হবে। তিনি বলেন, এ কাজে সংসদ সদস্যসহ জনপ্রতিনিধিদের যথাযথ ভূমিকা পালন করতে হবে। গতকাল সংসদ সচিবালয়ের শপথ কক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ও ইউএনএফপিএ’র যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘জনসংখ্যা ও উন্নয়ন বিষয়ে সংসদের সক্ষমতা বৃদ্ধি (এসপিসিপিডি)’ শীর্ষক প্রকল্পের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। স্পিকার বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে অবকাঠামোগত উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে মানব সম্পদেরও উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। মানুষের গড় আয়ু বৃদ্ধি, মাতৃ মৃত্যুহার হ্রাস, শিশু মৃত্যুহার হ্রাস এর প্রমাণ এবং এরই স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত হয়েছে। স্পিকার বলেন, নতুন নতুন ধ্যান-ধারণা ও আবিষ্কারের বিষয়ে সাধারণ মানুষকে আগ্রহী করে তুলতে জনসচেতনতা একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কাজ। এ কাজে স্থানীয় এমপিরা বিশাল ভূমিকা রাখতে পারেন। তিনি বলেন, সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার ন্যায় টেকসই উন্নয়ন অভীষ্টসমূহের সফল বাস্তবায়ন করতে হলে তৃণমূল পর্যায়ে এ কাজের বিস্তার ঘটাতে হবে এবং সাধারণ জনগণকে এর সঙ্গে ব্যাপকভাবে সম্পৃক্ত করতে হবে। তিনি বলেন, তাৎপর্য ও গুরুত্ব বিবেচনায় এসপিসিপিডি প্রকল্প দ্বিতীয় পর্যায়ে গ্রহণ করা হয়েছে এবং ইতিপূর্বে গৃহীত কর্মসূচির সফলতাগুলোকে শুধুমাত্র কমিটির সদস্যদের মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে বিভিন্ন প্রকাশনা ও নিবন্ধ লেখার মাধ্যমে সকলকে অবহিত করতে হবে। তিনি অতি দ্রুত প্রকল্পের এ্যাডভোকেসি প্রোগ্রামের পরিকল্পনা চূড়ান্ত করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন এবং গৃৃহীত প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ বৃদ্ধির আহ্বান জানান। স্পিকার বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব পার্লামেন্টারিয়ানস অন পপুলেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (বিএপিপিডি)-এর আওতায় এমপিদের সমন্বয়ে মাতৃ মৃত্যুরোধ ও নিরাপদ প্রসব নিশ্চিতকরণ, বাল্যবিয়ে রোধ ও যুব উন্নয়ন বিষয়ক তিনটি সাব-কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিনি প্রকল্পের প্রথম পর্যায়ের ন্যায় দ্বিতীয় পর্যায়েও সাব-কমিটিগুলো দক্ষতার স্বাক্ষর রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সিনিয়র সচিব ড. আবদুর রব হাওলাদারের সভাপতিত্বে চিফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ইউএনএফপি-এর আবাসিক প্রতিনিধি আইরি কাটো, অতিরিক্ত সচিব এওয়াইএম গোলাম কিবরিয়া এবং প্রকল্প পরিচালক এম এ কামাল বিল্লাহ বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে উন্মুক্ত আলোচনায় হুইপ মো. শহীদুজ্জামান সরকার, মো. আবুল কালাম আজাদ, ডা. আ ফ ম রুহুল হক, মো. হাবিবে মিল্লাত, ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা প্রমুখ বক্তৃতা করেন। হুইপ মো. আতিউর রহমান আতিক, হুইপ ইকবালুর রহিম, হুইপ মোছাঃ মাহবুব আরা বেগম গিনি, বিভিন্ন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতিবৃন্দ, সংসদ সদস্যবৃন্দ এতে অংশগ্রহণ করেন।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন