ছয় বছরে ৩১ লাখ পর্যটক বাংলাদেশ ভ্রমণ করেছেন

এক্সক্লুসিভ

সংসদ রিপোর্টার | ২০ জুন ২০১৭, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:১৩
 বিগত ৬ বছরে ৩১ লাখ ২২ হাজার ৭৫৬ জন পর্যটক বাংলাদেশ ভ্রমণ করেছেন বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তরপর্বে তিনি এ তথ্য জানান। তিনি আরো জানান, বিদেশি সংস্থার সুপারিশের ভিত্তিতে দেশের বিমানবন্দরগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা আধুনিক ও উন্নত করা হয়েছে। সরকারি দলের সদস্য সামশুল হক চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, ২০১০ সালে ৫ লাখ ৩০ হাজার ৬৬৫ জন, ২০১১ সালে ৫ লাখ ৯৩ হাজার ৬৭৭ জন, ২০১২ সালে ৫ লাখ ৮৮ হাজার ১৯৩ জন, ২০১৩ সালে ২ লাখ ৭৭ হাজার ৫৯৬ জন, ২০১৪ সালে ৪ লাখ ৮৯ হাজার ৫৩১ জন এবং ২০১৫ সালে ৬ লাখ ৪৩ হাজার ৯৪ জন পর্যটক বাংলাদেশে এসেছে। তিনি জানান, বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। বিদেশি ট্যুর অপারেটর বা পর্যটন বিষয়ক সাংবাদিক বা লেখক বাংলাদেশে পরিচিতিমূলক ভ্রমণে নিয়ে আসার জন্য কার্যক্রম গ্রহণ করা হচ্ছে।
বাংলাদেশের ট্যুর অপারেটরগণ যাতে সম্ভাবনাময় সোর্স দেশগুলোর ট্যুর অপারেটরদের সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারে সে লক্ষ্যে বিজনেস টু বিজনেস সভার আয়োজন করা হচ্ছে। এছাড়া ডিজিটাল ও অনলাইন মাধ্যমে বাংলাদেশে ভ্রমণ সংক্রান্ত তথ্য যাতে পর্যটকগণ সহজে পেতে পারেন সে লক্ষ্যে ওয়েবসাইট হালনাগাদ করা হচ্ছে। একই প্রশ্নের জবাবে পর্যটনমন্ত্রী বলেন, দেশি-বিদেশি পর্যটকদের জন্য ‘ভিসা অন এরাইভেল’র পরিধি বাড়িয়ে আরো বেশ কয়েকটি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করতে সেমিনার আয়োজন করা হচ্ছে। বিটিভি নির্মিত প্রামাণ্য চিত্র এবং টিভিসি দেশের পর্যটন বিপণনে বিশেষ ভূমিকা রেখেছে এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সাফল্য অর্জন করেছে। তিনি আরো জানান, দেশি-বিদেশি পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্য ট্যুরিস্ট পুলিশ গঠন করা হয়েছে। গত ২০১৬ সালের ২৩ থেকে ২৫শে নভেম্বরে কক্সবাজার সফলভাবে ‘পাতা নিউ ফ্রন্টিয়ারস ফোরাম-২০১৬’ আয়োজন করার ফলে পর্যটন দেশ হিসেবে বাংলাদেশের পরিচিতি বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া দেশি-বিদেশি পর্যটকদের নিকট বাংলাদেশের বিভিন্ন পর্যটন আকর্ষণ তুলে ধরতে সমপ্রতি ‘এক্সপ্লোরার অব ট্যুরিজম’ নামে একটি ভিডিও চিত্র তৈরি ও প্রচার করা হচ্ছে।
বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা উন্নত: সরকারি দলের সংসদ সদস্য কামাল আহমেদ মজুমদারের প্রশ্নের জবাবে বিমানমন্ত্রী সংসদে জানান, বিমানবন্দরের উন্নয়নে আধুনিক যন্ত্রপাতিসহ ডুওয়াল ভিউ এক্স- রে মেশিন স্থাপন করা হয়েছে। বৃটিশ সংস্থা রেডলাইনের সুপারিশের ভিত্তিতে নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে উন্নত করা হয়েছে। এছাড়া চোরাচালান রোধে বিমানবন্দরসমূহের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে বিমানবন্দরে বিভিন্ন স্থাপনায় সিসিটিভি স্থাপন করা হয়েছে। মন্ত্রী আরো জানান, বিমানবন্দরে  নিরাপত্তার বিষয়টি একটি সমন্বিত কার্যক্রম যাতে সিভিল এভিয়েশন, বিমান, এপিবিএন, আনসার ইমিগ্রেশন এবং অন্যান্য নিরাপত্তা সংস্থা যেমন ডিজিএফআই, ইউকে রেডলাইন সিকিউরিটি, দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট এবং এনএসআই সম্মিলিতভাবে অংশগ্রহণ করে থাকে। এ বিষয়ে একটি সমন্বিত সভা প্রতি মাসে অনুষ্ঠিত হয়। বিমানবন্দরের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিভিন্ন ইস্যুসমূহ নিয়ে আলোচনা হয়। সে মোতাবেক প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়ে থাকে। একই প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বিমানবহর আধুনিকায়নের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এজন্য বিমানের পুরাতন এ-২৮ ও ডিসি ১০-৩০ উড়োজাহাজ ফেউজ আউট করা হয়েছে। ৩১০-৩০০ উড়োজাহাজ ফেউজ আউট করার লক্ষ্যে গ্রাউন্ডেট করা হয়েছে। বোয়িং কোম্পানির নিকট থেকে নতুন প্রজন্মের ৪টি ৭৭৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজ ২০১১-২০১৪ সালে ও ২টি ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজ ২০১৫ সালে বিমানবহরে সংযোজনের মাধ্যমে বহর আধুনিকায়ন করা হয়েছে। ফলে বিমানের উড়োজাহাজের রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামত ব্যয়সহ জ্বালানি খরচ কমেছে। সি-চেক মেইন্টেনেন্স সম্পর্কে বিমান মন্ত্রী জানান, বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর ও ৭৭৭-২০০ ইআর ও ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজের সি-চেক মেন্টেনেইন্স বিমানের নিজস্ব জনবল/রিসোর্স দ্বারা সম্পন্ন করা হচ্ছে। এতে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করা সম্ভব হয়েছে। সরকারি দলের বেগম সফুরা বেগমের প্রশ্নের জবাবে বিমান মন্ত্রী জানান, বিগত ২০১৪-১৫ ও ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ৬০০ কোটি ১২ লাখ ৩৩ হাজার টাকা লাভ করেছে। এরমধ্যে ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ৩২৪ কোটি ১৩ লাখ ৩৫ হাজার টাকা এবং ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ২৭৫ কোটি ৯৮ লাখ ৯৮ হাজার টাকা লাভ করেছে।


 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

আশফাক

২০১৭-০৬-২০ ০৭:১৯:৫৩

এদের মধ্যে প্রতিবেশি দেশের কতজন টুরিস্ট ভিসা তে এসে চাকুরী বা কন্সাল্টেন্সি করে গেল সে হিসাব কি আছে!!

আশফাক

২০১৭-০৬-২০ ০৭:০২:৫৫

এদের মধ্যে প্রতিবেশি দেশের কতজন টুরিস্ট ভিসা তে এসে চাকুরী বা কন্সাল্টেন্সি করে গেল সে হিসাব কি আছে!!

আপনার মতামত দিন