উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক যুদ্ধের হুমকিতে উদ্বিগ্ন চীন

প্রথম পাতা

মানবজমিন ডেস্ক | ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২৫
পারমাণবিক ইস্যুতে উত্তর কোরিয়ার বাগাড়ম্বরে বিরক্ত হয়ে পড়েছে দেশটির দীর্ঘ দিনের মিত্র চীন। সাম্প্রতিক উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে বেইজিং পিয়ংইয়ংয়ের সমালোচনা করেছে। আর প্রশংসা করেছে যুক্তরাষ্ট্রকে। এ খবর দিয়েছে সিএনএন। খবরে বলা হয়, উত্তর কোরিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন, পিয়ংইয়ং প্রতি সপ্তাহে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করবে। হুমকির মুখে পড়লে প্রয়োজনে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি। এর একদিন পর চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু ক্যাং বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র কার্যক্রম নিয়ে ‘গভীরভাবে উদ্বিগ্ন’ বেইজিং। একই সংবাদ সম্মেলনে মি. ক্যাং উত্তর কোরিয়া ইস্যুতে মার্কিন বক্তব্যের প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেন, ‘মার্কিন কর্মকর্তারা কিছু ইতিবাচক ও গঠনমূলক মন্তব্য করেছে। যেমন, কোরিয়ান উপদ্বীপে পারমাণবিক ইস্যু সমাধায় সম্ভাব্য শান্তিপূর্ণ পথ অবলম্বনের কথা বলেছে দেশটি। যেই দৃষ্টিভঙ্গি আমরা সঠিক বলে মনে করি এমন মন্তব্যে তার প্রতিফলন রয়েছে। আর এটাই অবলম্বন করা উচিত।’ মি. ক্যাং আরো বলেন, ‘যেসব কথাবার্তা ও কর্মকাণ্ড বৈরিতা ও উত্তেজনা উস্কে দিতে পারে চীন কঠোরভাবে তার বিরোধিতা করে।’  
সিএনএন-এর প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার লাগাম টেনে ধরতে চীনের ওপর চাপ দিয়ে আসছে। ট্রাম্প ইঙ্গিত দিয়েছেন যে, চীন এই পথে হাঁটলে বাণিজ্য ও অন্যান্য ইস্যুতে মার্কিন-চীন সম্পর্ক সহজতর হবে।
বিশেষজ্ঞদের অভিমত, উত্তর কোরিয়াকে পূর্ণ পারমাণবিক ক্ষমতাধর রাষ্ট্রে পরিণত হওয়া ঠেকাতে চায় চীন। নিজেদের দক্ষিণ সীমান্তে তারা কোনো যুদ্ধও চায় না। কেননা, যুদ্ধ পরিস্থিতিতে লাখ লাখ শরণার্থীর ঢল যাবে চীনের দিকে। তাছাড়া, তেমন কোনো পরিস্থিতিতে চীনা সীমান্তে মার্কিন সেনা উপস্থিতির ঝুঁকি থাকবে।
চলতি বছরের শুরুর দিকে, চীন যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়াকে উত্তেজনা প্রশমনের আহ্বান জানিয়েছিল। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই মার্চের শুরুতে বলেছিলেন, পিয়ংইয়ংয়ের পারমাণবিক কার্যক্রম বন্ধের পরিবর্তে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার উচিত তাদের বার্ষিক সামরিক অনুশীলন স্থগিত করা যা উত্তর কোরিয়াকে উস্কে দেয়।
এরপর থেকে উত্তর কোরিয়া তাদের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা অব্যাহত রেখেছে। এরমধ্যে একটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানো হয় এপ্রিলের শুরুতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের মধ্যকার সম্মেলনের আগ দিয়ে। এছাড়া, নতুন ক্ষেপণাস্ত্র ও লঞ্চারের প্রদর্শন করে ব্যাপক পরিসরে সামরিক প্যারেড শোডাউন করে উত্তর কোরিয়া। যে কোনো সময় আরেকটি পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষার প্রতিশ্রুতি দেয়।
ওদিকে, যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের নৌবাহিনীর সঙ্গে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা অনুশীলন করেছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুশীলনের জন্য নতুন এফ-৩৫ স্টেলথ যুদ্ধবিমান পাঠিয়েছে। এছাড়াও মার্কিন মুল্লুক থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় উড়ে গেছে বি-১ বোমারু বিমান। আর বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে দু’দেশের মধ্যকার দ্বিতীয় বৃহত্তর সামরিক অনুশীলন ‘ম্যাক্স থান্ডার’। কোরিয়া উপদ্বীপের দিকে পেন্টাগন পাঠিয়েছে এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার ইউএসএস কার্ল ভিনসন। এই এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার পাঠানো নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে উত্তর কোরিয়া। দেশটির বার্তা সংস্থা কেসিএনএ এটাকে ‘আঞ্চলিক উত্তেজনা উস্কে দিতে আগ্রাসনের বেপরোয়া পদক্ষেপ’ বলে অভিহিত করেন।  
ইউএসএস কার্ল ভিনসন প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে মাপা উত্তর দেন লু ক্যাং। এক পর্যায়ে তিনি বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমরা নিবিড় যোগাযোগ বজায় রাখছি।’ উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক কার্যক্রম প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সোজাসাপটা জবাব দেন মি. ক্যাং।  বলেন, ‘পারমাণবিক ক্ষমতাধর উত্তর কোরিয়ার বিরোধিতায় চীনের অবস্থান সুদৃঢ়, স্পষ্ট এবং অবিচল।’ 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

২৮ ‘হিন্দু’র মৃতদেহ উদ্ধারের দাবি, জড়িত থাকার কথা অস্বীকার আরসার

ভেঙ্গে গেল স্পর্শিয়ার সংসার

মালিতে নিহত সার্জেন্ট আলতাফের বাড়িতে শোকের মাতম

বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী নিহত হওয়ায় জাতিসংঘ মহাসচিবের শোক, নিন্দা

যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় আরও তিন দেশ

‘যেভাবে ভাবি সেভাবে এখনো ক্যামেরার সামনে অভিনয় করতে পারিনি’

​ জার্মানির নির্বাচনে শেষ হাসি মার্কেলেরই

রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশের ব্যাপক আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রয়োজন: ইউএনএইচআরসি

ভিত্তিহীন খবরে তোলপাড়

মার্কেল?

ফের সীমান্তে রোহিঙ্গা স্রোত

সন্তানদের সামনেই শামিলাকে ধর্ষণ করে বার্মিজ সেনারা

মন্ত্রী-এমপিরা আমাদের সঙ্গে আছেন

মনোনয়ন দৌড়ে ২৩ নেতা

ট্রাকচালক থেকে সপরিবারে ইয়াবা ব্যবসায়ী

বাড়লো আটার দাম