স্টেশনের ফুটেজ দেখে সনাক্ত করা হয় স্টকহোম হামলাকারীকে

প্রবাসীদের কথা

এ. কে. সুজাউল করিম, স্টকহোম, সুইডেন থেকে | ১২ এপ্রিল ২০১৭, বুধবার
সুইডেনের স্টকহোমে ট্রাক সন্ত্রাসী রাখমত আকিলভকে পাতাল রেল স্টেশনের ভিডিও ফুটেজ দেখে সনাক্ত করেছিল পুলিশ। ওই ভিডিও দ্রুত প্রচারের পর সে আর পালিয়ে যেতে পারেনি। গত শুক্রবার দুপুর দুইটা-৫৩ মিনিটে সুইডেনের রাজধানী স্টকহোম শহরের কেন্দ্রস্থলে ট্রাক সন্ত্রাসী উজবেক নাগরিক রাখমত আকিলভ সাধারণ পথচারীদের উপর ১০০ কিলোমিটার বেগে ট্রাক চালিয়ে ৪ জন পথচারীকে হত্যা করে। যার মধ্যে ১১ বছরের এক স্কুল ছাত্রীও ছিল। ১৬ জন গুরুতর আহত আবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তাদের দুই জনের অবস্থা গুরুতর।  মৃত চার জনের একজন বেলজিয়াম নাগরিক,  মাইলিজ (৩১) বন্ধুদের সাথে দেখা করতে এসেছিলেন সুইডেন বেড়াতে, দ্বিতীয় জন ব্রিটিশ নাগরিক,  ক্রিস (৪১) দীর্ঘদিন ধরে এখানে পরিবারসহ বসবাস করছেন।
তৃতীয় জন সুইডেনের অন্য শহরে বসবাসকারী। ঘটনার পর পরই উত্তর মেরুর সাধারণ শান্তিপ্রিয় এ জনপদ অশান্ত , আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ে। ঘটনাস্থল থেকে চারিদিকে ছুটোছুটি শুরু করে মানুষজন, সেই ফাঁকে সন্ত্রাসী রাখমত আকিলভ স্টকহোম এর পাতাল রেল স্টেশনে পৌঁছাতে সক্ষম হয়। সেখান থেকে ট্রেনে করে পালিয়ে অন্য স্টেশনে ঘোরাঘুরির সময় ধরা পড়ে। পাতাল রেলে ধারণ করা ছবি পুলিশ দ্রুততার সঙ্গে প্রচার করে। এতে সহজে রাখমত আকিলভকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়। ৯১ ভাগ মানুষ পুলিশের কর্মকা-ে সন্তোষ প্রকাশ করে। শত শত ফুলে  পুলিশের গাড়িকে আচ্ছাদিত করে  তুলে। পুলিশি হেফাজতে রাখমত দুর্বিষহ, অমানবিক এ ঘটনার দায় স্বীকার করে জানিয়েছে যে ‘তোমরা আমার দেশে বোমা মেরেছ তাই আমি এটা করেছি’। রাখমত নিজেকে একজন বোমা প্রস্তুতে পারদর্শী বলে জানায়। ঘটনার সময় বোমা তৈরির যাবতীয় সরঞ্জাম তার সাথে ছিল বলে জানা যায় । ২০১৪ সালে ১০ই নভেম্বর রাখমত আকিলভ স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য আবেদন করে। ১৫ই জুন ২০১৫তে  তা নামঞ্জুর করা হয়। সে চার সস্তানের পিতা এবং রীতিমতো বাড়িতে টাকা পাঠাত বলেও জানা গেছে।  ঘটনার পর উজবেকিস্তানের আরও কয়েকজনকে সন্দেহ করে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত তাদের বিষয়ে তেমন কিছু জানা যায়নি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষণের দাবি

এখনও আসছে রোহিঙ্গারা, সমঝোতা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

৯০ টাকা ছাড়ালো পিয়াজের কেজি

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি মামুলি ব্যাপার

‘মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা’

চিরঘুমে লোকসংগীতের মহীরুহ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বন্যার ক্ষতি পোষাতে দরকার ১০০ কোটি টাকা

জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ

দুই দলেই হেভিওয়েট প্রার্থী

দরিদ্রদের জন্য বিচারের বাণী নীরবে কাঁদে

৭ই মার্চ ভাষণের স্বীকৃতিতে দেশব্যাপী শোভাযাত্রা আজ

সম্মতিপত্র প্রকাশের দাবি বিএনপির

ঘরে ঘুরে দাঁড়ালো চিটাগং

মিশরে মসজিদে জঙ্গি হামলা, নিহত কমপক্ষে ২৩০

‘শেষ মুহূর্তে হলে সরকার সমঝোতায় আসবে’

রবি-সোমবার সব সরকারি কলেজে কর্মবিরতি