দুর্নীতির দুই মামলা

খালেদার আত্মপক্ষ সমর্থন ফের পেছালো

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১২ জানুয়ারি ২০১৭, বৃহস্পতিবার, ৩:০৯ | সর্বশেষ আপডেট: ৩:০৯
জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার আত্মসমর্পনের অসমাপ্ত বক্তব্যে  জন্য ২৬শে জানুয়ারি দিন ধার্য করেছেন আদালত। এই মামলায় সাক্ষীদের শপথ চ্যালেঞ্জ করে একটি আবেদন উচ্চ আদালতে বিবেচনাধীন মর্মে খালেদার আইনজীবীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ঢাকার বকশীবাজারে কারা অধিদপ্তরের প্যারেড গ্রাউন্ডে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আবু আহমেদ জমাদার আজ নতুন করে এ দিন ধার্য করেন। দুর্নীতির দুই মামলায় হাজিরা দিতে আজ সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে বিশেষ আদালতে যান বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এর আগে সকাল ১০টা ১০ মিনিটে রাজধানীর গুলশানের বাসা থেকে আদালতের উদ্দেশে রওনা হন খালেদা। দুপুর ১টা ৫ মিনিটে আদালত প্রাঙ্গন ত্যাগ করেন তিনি। আজ আদালতের কার্যক্রমের শুরুতে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার প্রথম অনুসন্ধানকারি কর্মকর্তা নূর আহমদকে জেরা করেন খালেদার আইনজীবী আবদুর রেজাক খান। পরে কিছু সময়ের জন্য বিরতিতে যান আদালত। বিরতির পর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনের বিষয়ে নতুন করে দিন ধার্যের আবেদন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। শুনানি শেষে আদালত এ বিষয়ে প্রথমে ১৯শে জানুয়ারি দিন ধার্য করেন। কিন্তু ওইদিন বিএনপির প্রতিষ্টাতা প্রয়াত জিয়াউর রহমানের জন্মদিন হওয়ায় আবারও তারিখ পিছানোর আবেদন করেন আইনজীবীরা। পরে আদালত ২৬শে জানুয়ারি করেন দিন ধার্য করেন। নূর আহমদের জেরা এখন চলছে। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় নতুন সাক্ষী হিসেবে দুদক কর্মকর্তা নূর আহমদকে জেরা করার জন্য ৫ই জানুয়ারি আবেদন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা।  
দুটি মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানিতে ছিলেন ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, খন্দকার মাহবুব হোসেন, আবদুর রেজাক খান, জয়নাল আবেদীন, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, অ্যাডভোকেট রাশেদা আলম প্রমুখ। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন মোশাররফ হোসেন কাজল। বিএনপি নেতাদের মধ্যে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী প্রমুখ আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
২০১০ সালের ৮ আগস্ট জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের নামে তেজগাঁও থানায় দুর্নীতির অভিযোগে মামলা করেছিলেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক হারুনুর রশিদ। অন্যদিকে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়া, তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় আরো একটি মামলা করে দুদক।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন