পাপুলকাণ্ড: ভিডিও বার্তায় যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

কূটনৈতিক রিপোর্টার

অনলাইন ৭ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার, ৯:৪৫ | সর্বশেষ আপডেট: ৪:৩১

মানবপাচার ও মানি লন্ডারিংয়ের দায়ে কুয়েতে সিআইডির হাতে গ্রেফতার বাংলাদেশি সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল বিষয়ে এখনও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কোনো তথ্য পায়নি বলে দাবি করেছেন মন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন। এমপি পাপুল আটকাদেশের এক মাসে (গত ৬ই জুন কুয়েত সিটির বাসা থেকে ধরে নিয়ে টানা ৯ দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর এখন তিনি জেলহাতে) কুয়েতে তোলপাড় হয়ে গেলেও দেশটির সরকার এখনও ঢাকাকে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায় নি। লকডাউনের কারণে কুয়েতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নাকী কেউ ফোনই ধরেন না দূতাবাসের এমন রিপোর্ট পাওয়ার পর ঢাকায় কুয়েত মিশনে যোগাযোগ করা হয়েছিল জানিয়ে মন্ত্রী মোমেন বলেন, এক সপ্তাহ হয়ে গেছে তারাও রেসপন্স করেনি। তবে মন্ত্রী মোমেন জানিয়েছেন, এমপি পাপুল বা তার দলবল চাইলে তাকে কনস্যুলার একসেস (আইনগত সহায়তা) দেবে সরকার। ভোরে পররাষ্ট্র মন্ত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তা এ নিয়ে দু'টি ভিডিও ক্লিপ প্রচার করেন। তাতে একজনকে প্রশ্ন করতে শোনা যায় এবং মন্ত্রীকে জবাব দিতে দেখা যায়। তবে কে প্রশ্ন করছেন ভিডিওতে তার চেহারা প্রচার পায়নি। উল্লেখ্য, পাপুলকাণ্ড বিষয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে যখন কুয়েতের দৈনিক আল কাবাস ও আরব টাইমস প্রথম রিপোর্ট করেছিল তখন দূতাবাসের উদ্বৃতি দিয়ে মন্ত্রী এটাকে 'ফেক নিউজ' বলে দাবি করেছিলেন।
মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. তৌহিদুল ইসলাম অবশ্য পরে মানবজমিনকে বলেন, ভিডিও ক্লিপ দু'টি একটি টেলিভিশনের সাক্ষাতকারের অংশ।
যা সোমবার ধারণকৃত। করোনাকালে যাতে সবাই মন্ত্রীর বক্তব্য বা ভাষ্য পেতে পারেন এ জন্য তা হোয়ার্টসআপ গ্রুপে প্রচার করা হয়েছে।

বিস্তারিত ভিডিওতে...

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Khokon

২০২০-০৭-০৭ ০৯:৩৮:০৮

H. minister, it is not one step backward, one of our citizen in Quwait prison approximately one month but still now your foreign administrations and Bangladesh embassy could not findout what reason he is in jail ? Although, everybody knows his criminals business but officially Quwait government bound to give you all informations ? He is VIP persons and member of parliament respectable person no doubt but now in prison ? We feel shame for him, we feel sorry for others who has spent lot of money to go to Quwait for suffer through this cheater ? Your administrations may be not qualified to find out or to put pressure to Quwait government give official reasons ? Or we thiñk Quwait government don't care about you or your government ? Probably, they care you like, how you care your citizen outside ? So, we no need embassador's out side our country who get third classe treatments from foreign goverments ?

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঋণ পুনর্গঠনের সময় বাড়ল

৯ আগস্ট ২০২০

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের ঋণ পুনর্গঠনের সময় বৃদ্ধি করলো বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন থেকে ঋণ পুনর্গঠনে আগের ...

লাখো শ্রমিককে কুয়েত ছাড়তে হচ্ছে

২০ হাজার শ্রমিক থেকে পাপুলের আয় ১৪০০ কোটি

৯ আগস্ট ২০২০

কবিতা

আবার ফিরে আসবো

৯ আগস্ট ২০২০



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত