দক্ষিণ চীন সাগরে যুক্তরাষ্ট্রের দুই রণতরী

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ৪ জুলাই ২০২০, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৯

যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী বলেছে, বিরোধপূর্ণ দক্ষিণ চীন সাগরে শনিবার সামরিক মহড়া চালাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের দুটি এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার বা রণতরী। চীন যখন ওই অঞ্চলে সামরিক কসরত করছে এবং তা নিয়ে সমালোচনা উঠেছে পেন্টাগন ও প্রতিবেশী দেশগুলোতে, তখন সেখানে ওই দুটি যুদ্ধজাহাজবাহী রণতরী পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। উল্লেখ্য, হংকংয়ের সঙ্গে বাণিজ্য নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বর্তমানে উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছে। হংকং ইস্যুতে জাতীয় নিরাপত্তা আইন পাস করেছে চীন। এ নিয়ে উত্তপ্ত হোয়াইট হাউজ। চীনের যেসব কর্মকর্তা হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে নির্যাতনে যুক্ত, তাদের সঙ্গে যেসব ব্যাংক লেনদেন করবে তাদের বিরুদ্ধে অবরোধ প্রস্তাব এরই মধ্যে পাস হয়েছে মার্কিন কংগ্রেসের নি¤œকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে। এর পাল্টা হুমকি দিয়েছে চীন। তারা বলেছে, প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে তারা।
ফলে উত্তেজনা আগের চেয়ে তীব্র হয়েছে উভয় দেশের মধ্যে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
মার্কিন নৌবাহিনী এক বিবৃতিতে বলেছে, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল উন্মুক্ত ও খোলা রাখার ব্যাপারে সহযোগিতা দিতে দক্ষিণ চীন সাগরে অপারেশন ও মহড়া চালিয়ে যাচ্ছে ইউএসএস নিতিটজ এবং ইউএসএস রোনাল্ড রিগ্যান। তবে দক্ষিণ চীন সাগরের কোন অংশে তারা এ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে তা ঠিক করে বলা হয় নি। উল্লেখ্য, দক্ষিণ চীন সাগর বিস্তৃত প্রায় ১৫০০ কিলোমিটার এলাকায়। এর মধ্যে শতকরা ৯০ ভাগ নিজেদের বলে দাবি করে চীন। তবে এ নিয়ে প্রতিবেশীদের সঙ্গে বিরোধ আছে তার। রিয়ার এডমিরাল জর্জ এম ইউকফ’কে উদ্ধৃত করে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই মহড়ার উদ্দেশ্য হলো আমাদের অংশীদার ও মিত্রদের কাছে এই বার্তা দেয়া যে, আমরা আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ইউএস রোনাল্ড রিগ্যান নেতৃত্বাধীন স্ট্রাইক গ্রুপের কমান্ডার উইকফ। তিনি বলেছেন, চীন যে মহড়া দিচ্ছে তার পাল্টা হিসেবে তাদের মহড়া নয়। তবে চীনের মহড়ার সমালোচনা করেছে পেন্টাগন এই সপ্তাহে। যুক্তরাষ্ট্রের এমন সমালোচনাকে শুক্রবার উড়িয়ে দিয়েছে চীন। তারা দাবি করেছে, উত্তেজনা বৃদ্ধির জন্য দায়ী থাকবে যুক্তরাষ্ট্র। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের ক্যারিয়ার দীর্ঘদিন ধরে ওয়েস্টার্ন প্যাসিফিকেও মহড়া দিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে দক্ষিণ চীন সাগর। সম্প্রতি এক পর্যায়ে ওই অঞ্চলে উপস্থিত হয় যুক্তরাষ্ট্রের তিনটি ক্যারিয়ার। গত সপ্তাহে চীন ঘোষণা করে যে, ১লা জুলাই থেকে প্যারাসেল আইল্যান্ডের কাছে তাদের ৫ দিনের মহড়া শুরু হচ্ছে। এই প্যারাসেল আইল্যান্ড দাবি করে ভিয়েতনাম ও চীন উভয়েই। ফলে চীনের ওই মহড়ার কড়া সমালোচনা করেছে ভিয়েতনাম ও ফিলিপাইন। তারা হুঁশিয়ারি দিয়েছে যে, এ ঘটনায় ওই অঞ্চলে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাবে। প্রতিবেশীদের সঙ্গে বেইজিংয়ের সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

জাপান টাইমসের রিপোর্ট

বাংলাদেশসহ চার দেশের ওপর জাপান প্রবেশে কড়াকড়ি

৩ আগস্ট ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



ট্রাম্পের অভিবাসন বিষয়ক নির্দেশ-

যে প্রভাব পড়বে ভিসা ও গ্রিনকার্ডের ওপর

মালয়েশিয়ায় গ্রেপ্তার রায়হান

ক্রাইম করিনি, মিথ্যা বলিনি