প্রত্যেক জেলা হাসপাতালে আইসিইউ নিশ্চিতের নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার

প্রথম পাতা ৩ জুন ২০২০, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৫৪

প্রত্যেক জেলা হাসপাতালে পর্যাপ্ত অক্সিজেন এবং আইসিইউ দ্রুত নিশ্চিতের নির্দেশ দিয়েছেন  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় তিনি এ নির্দেশনা দেন। পরে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরেন। মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী আইসিইউ ইউনিট ও অক্সিজেন সরবরাহ স্থিতিশীল ও পর্যাপ্ত করার জন্য বলেছেন। এছাড়া যেখানে ভেন্টিলেটর প্রয়োজন সেখানে সেটাও দিতে হবে। একনেক সভায় মোট ১০টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। এর মধ্যে করোনা মোকাবিলায় জরুরি ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী দুটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছিলেন। প্রকল্প দুটির মধ্যে ‘কোভিড-১৯ ইমার্জেন্সি রেসপন্স অ্যান্ড পেন্ডামিক প্রিপেয়ার্ডনেস’ প্রকল্পটিতে মোট খরচ হবে এক হাজার ১২৭ কোটি ৫২ লাখ টাকা।
তার মধ্যে বিশ্বব্যাংক ঋণ হিসাবে দেবে ৮৫০ কোটি এবং বাংলাদেশ সরকার দেবে ২৭৭  কোটি ৫২ লাখ টাকা। ‘কোভিড-১৯ রেসপন্স ইমার্জেন্সি অ্যাসিস্ট্যান্স’ প্রকল্পে খরচ হবে এক হাজার ৩৬৪ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। তার মধ্যে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক ঋণ হিসাবে  দেবে ৮৪৯ কোটি ৯৭ লাখ এবং বাংলাদেশ সরকার দেবে ৫১৪ কোটি ৫৯ লাখ টাকা।
মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজেই বলেছেন স্বাস্থ্যখাতে ব্যাপক ব্যয়ের প্রস্তাব আছে দুটি প্রকল্পের মধ্যে। এর মধ্যে তিনি উচ্চতর অগ্রাধিকার দিয়েছেন জেলা হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপনে। প্রতিটি জেলা হাসপাতালে শুধু আইসিইউ স্থাপন নয়, এটাকে ইকুইপ করতে হবে। একটা আইসিইউতে যেসব যন্ত্রপাতি থাকার কথা, সেগুলো সরবরাহ করতে হবে। অতি জরুরি ভিত্তিতে এগুলোকে আপডেট করতে হবে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে অক্সিজেন সরবরাহ করতে হবে। তিনি চান এটা যেন আরও বৃদ্ধি পায়। হাই ফ্লো অক্সিজেন সাপ্লাইয়ে তিনি গুরুত্ব দিয়েছেন। এটা দিতে হবে বেশি করে।
এম এ মান্নান বলেন, অনেকেই বলেন, আমরা স্বাস্থ্যখাতে অনেক কম ব্যয় করি এই অঞ্চলের মধ্যে। অস্বীকার করার বিষয় নয়। তবে একটা পয়েন্ট আছে। অমুক রাষ্ট্র ৪০ লাখ জনসংখ্যা, জিডিপির পরিমাণ ১০০ টাকা, সে ব্যয় করে ৭০ টাকা। আর আমাদের জিডিপির পরিমাণ ৯ লাখ কোটি টাকা, ৩ লাখ কোটি টাকা ব্যয় করি, কিন্তু আনুপাতিক হারে কম। এসব বিচার আসলে যথাযথ নয়। এবার স্বাস্থ্যে প্রায় ১৫ হাজার কোটি টাকা বাজেট দিয়েছি। অনেক দেশে দেখেন ১৫ হাজার কোটি টাকা বাজেটই নেই। তবে স্বাস্থ্য খাতে অবশ্যই প্রচুর বিনিয়োগের প্রয়োজন আমাদের।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মাসুম

২০২০-০৬-০২ ১৯:০৯:৩৮

সরকারের উদ্যোগের প্রশংসা করি কিন্তু এই টাকাগুলো লুট হয়ে যাবে না সে নিশ্চয়তা চাই ।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

ফি দিয়েও পরীক্ষার সুযোগ মিলছে না

তিন দিন ধরে ঘুরছেন ক্যানসার আক্রান্ত রোগী

৩ জুলাই ২০২০

১১৭ দিনে আক্রান্ত দেড় লাখ ছাড়ালো

৩ জুলাই ২০২০

দেশে করোনার স্রোতকে কোনো ক্রমেই ঠেকানো যাচ্ছে না। সংক্রমণ শুরুর ১১৭ দিনের মাথায় আক্রান্ত দেড় ...

দেশে আবিষ্কৃত করোনা ভ্যাকসিনের প্রাথমিক সফলতার দাবি

৩ জুলাই ২০২০

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো মরণঘাতী করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি করেছে গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড। আবিষ্কৃত ভ্যাকসিন প্রাথমিক ...

ফি নিয়ে করোনা পরীক্ষা

দরিদ্ররা পরীক্ষার বাইরে থাকবে, সংক্রমণ বাড়বে

২ জুলাই ২০২০

১১১ বিশ্ব ব্যক্তিত্বের বিবৃতি

করোনা ভ্যাকসিনকে জনগণের সম্পত্তি ঘোষণার আহ্বান

২ জুলাই ২০২০



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



হোটেলে না থেকেও বিল, খাবার যায় ক্যান্টিন থেকে

যে কৌশলে টাকা লোপাট ঢামেকে

আল-কাবাসের রিপোর্ট

পাপুলের সহযোগী কে সেই এমপি?

বুড়িগঙ্গায় লাশের সারি, স্বজনদের আহাজারি

খামখেয়ালি, না পরিকল্পিত?

সরজমিন: রায়েরবাজার কবরস্থান

দূর থেকে শেষ বিদায়