রেকর্ড মৃত্যুর দিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত

করোনার লাল চোখ

স্টাফ রিপোর্টার

প্রথম পাতা ১ জুন ২০২০, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:০৯

দেশে সংক্রমণ শুরুর আড়াই মাস পর চোখ রাঙাচ্ছে করোনা ভাইরাস। চোখ লাল করে কেড়ে নিচ্ছে মানুষের প্রাণ। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু ও আক্রান্তের রেকর্ড হয়েছে। একদিনেই মারা গেছেন ৪০ জন। নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৫৪৫ জন। করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ও আক্রান্তের দিনেই খুলে দেয়া হয়েছে সরকারি-আধা সরকারি অফিস। ট্রেন-লঞ্চে যাত্রী পরিহবন শুরু হয়েছে ঝুঁকি নিয়েই। আজ থেকে শুরু হচ্ছে গণপরিবহন।
সব কিছু চালু হওয়ায় সংক্রমণ আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। এদিকে শুরুর দিকে লকডাউন মেনে চলায় সংক্রমণের হার অনেকটাই কম ছিল। ধীরে ধীরে লকডাউন ভেঙে পড়ায় বাড়তে থাকে সংক্রমণ। গত কয়েক দিন থেকে দ্রুত গতিতে বেড়েছে আক্রান্ত ও মৃত্যু। সংক্রমণ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পরীক্ষার হার বাড়লে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা আরো বাড়বে। এদিকে দ্রুত সংক্রমণ বাড়লেও দেশে এখনও চিকিৎসার প্রস্তুতি উন্নত হয়নি। ৫০ শয্যার বেশি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসার জন্য পৃথক ব্যবস্থা রাখতে সরকারি নির্দেশনা দেয়া হলেও এখন পর্যন্ত বেশিরভাগ হাসপাতালে এমন কোন ব্যবস্থা দেখা যাচ্ছে না।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সর্বশেষ বুলেটিনে জানানো হয়, এ পর্যন্ত দেশে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৭ হাজার ১৫৩ জন। আর মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাড়ে ছয়শতে। অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, ৫২টি ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১২ হাজার ২২৯টি। পরীক্ষা করা হয়েছে ১১ হাজার ৮৭৬টি। পরীক্ষা করা নমুনার মধ্যে ২ হাজার ৫৪৫ জনের দেহে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া যায়।
তিনি আরো বলেন, ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ৪০৬ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৭৮১ জন।
তিনি জানান, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ৩৩ জন পুরুষ এবং সাত জন নারী। অঞ্চল বিবেচনায় ঢাকা বিভাগে ২৮ জন, চট্টগ্রামে বিভাগে আট জন, খুলনায় দু্থজন এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগে একজন করে রয়েছেন। বয়স বিবেচনায়, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আট জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১১ জন এবং ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে চার জন রয়েছেন।
তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার ২১ দশমিক ৪৩ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২০ দশমিক ৭৪ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩৮ শতাংশ।
গত ৮ই মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় বলে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) জানায়। শুরুর দিকে রোগীর সংখ্যা কম থাকলেও এখন সংক্রমণ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে।
গত ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে চীনের উহানে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হয়। ভাইরাসটি ক্রমে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে।
যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটার বলছে, বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩ লাখ ৭১ হাজার ১৮৬ জন মানুষ। এছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা ৬১ লাখ ৭২ হাজার ৪৪৮ জন । অন্যদিকে সুস্থ হয়েছেন ২৭ লাখ ৪৪ হাজার ৪৪ জন।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

ক রো না কা ল

ঘরে ঘরে টানাটানি

৬ জুলাই ২০২০

বিশ্বে ১ দিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণ

৬ জুলাই ২০২০

মহামারি শুরুর পর থেকে এযাবৎকালের মধ্যে একদিন বা ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে বিশ্বে রেকর্ড পরিমাণ মানুষ ...

ভ্যাট জটিলতা

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট বন্ধের হুঁশিয়ারি

৫ জুলাই ২০২০

ভ্যাট জটিলতার সমাধান না হলে সীমিত আকারে সারা দেশে ইন্টারনেট বন্ধ করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ব্রডব্যান্ড ...

সুখবর দিলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

৫ জুলাই ২০২০

শিগগিরই কোভিড-১৯ চিকিৎসায় কার্যকরী ওষুধ আবিষ্কারের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সংস্থাটির প্রধান ...

আমেরিকায় বিয়ে, চট্টগ্রামে করোনাযোদ্ধাদের আপ্যায়ন

৫ জুলাই ২০২০

আমেরিকায় দিলেন মেয়ের বিয়ে। আর সেই বিয়ের ভোজন হলো চট্টগ্রামের করোনা হাসপাতালে। করোনাযোদ্ধা ও আক্রান্তদের ...



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত