প্লাজমা ব্যাংক স্থাপনের উদ্যোগ জাফরুল্লাহর

স্টাফ রিপোর্টার

প্রথম পাতা ৩০ মে ২০২০, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৫৫

চিরকালের যোদ্ধা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। মাতৃভূমির প্রতিটি দুর্যোগে ছুটে এসেছেন। এবার করোনা মহামারির সময়েও শুরু থেকে উদ্যোগী তিনি। তার প্রতিষ্ঠান ‘গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র’ এরইমধ্যে করোনা পরীক্ষার কিট উদ্ভাবন করেছে। যদিও সে কিট এখনো অনুমোদন পায়নি। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী করোনায় আক্রান্ত এ খবর এখন সবার জানা। প্রায় ৮০ বছর বয়স্ক এ মুক্তিযোদ্ধা কিডনি সমস্যাসহ নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন। কিন্তু এখনো তিনি উদ্যোমী, সংগ্রামী।
তার লড়াইয়ের যেন শেষ নেই।
করোনা আক্রান্ত হয়ে প্লাজমা থেরাপি নিয়েছেন। এখন তার চিন্তা কীভাবে এ সুযোগ দেশের সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়া যায়। এরই মধ্যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ‘প্লাজমা ব্যাংক’ গঠন করার। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, এটা একটা দূর্দান্ত থেরাপি। জাদুর মতো কাজ করে। আমি যখন এই থেরাপি নিয়েছি তখনই বিষয়টা বুঝেছি।  থেরাপি  নেয়ার পর চাঙ্গা হয়ে উঠেছি। এখন প্লাজমা থেরাপি সব করোনা  রোগীর পাওয়া দরকার। শুধু আমরা কয়েকজন সুবিধা পাবো, আর দেশের অন্যরা বঞ্চিত থাকবে, তা হতে পারে না। তিনি বলেন ,এখন প্লাজমা  ডোনেট করার জন্য  দেশের মানুষকে  বোঝাতে হবে। যদি সবাই মিলে উদ্যোগ নেয়া যায়, বোঝানো হয়, তাহলে যারা করোনায় আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে গেছেন ও শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে  গেছে, তারা খুব সহজে  ডোনেট করতে পারবে। আমাদেরকে এটাই এখন মানুষকে  বোঝাতে হবে।
উদ্যোগের অগ্রগতি নিয়ে জাফরুল্লাহ বলেন, এটার জন্য কিছু সরঞ্জামও লাগবে। আমরা এখন উদ্যোগ নিচ্ছি।  প্রফেসর ডা. মহিউদ্দিন খান ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কাজ করছেন। শিশু হাসপাতালে কাজ করছেন ডা. হারুন। এটা অত্যন্ত মহৎ কাজ। তাদের সেই কাজের অংশ হিসেবেই আমরা খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে একটি ‘প্লাজমা ব্যাংক’ গড়ে  তোলার উদ্যোগ নিতে যাচ্ছি। এর জন্য কিছু সরঞ্জাম বিদেশ  থেকে আমদানি করতে হবে। কিছু অর্থও লাগবে।  অর্থের  ক্ষেত্রে  প্রয়োজনে গণস্বাস্থ্যের সম্পদের বিপরীতে ব্যাংক  থেকে লোন নিয়ে নেবো। প্রয়োজনীয় সরঞ্জামগুলো যদি উড়োজাহাজে করে আনি, তাহলে দুই সপ্তাহের বেশি সময় লাগবে না। সবকিছু মিলিয়ে দুই সপ্তাহের মধ্যেই আমরা সরঞ্জাম এনে স্থাপন করে  ফেলতে পারবো।
টেলিভিশন-মোবাইল ফোন সঙ্গী করে দিন কাটছে ঘরবন্দি জাফরুল্লাহ চৌধুরীর। তিনি বলেন, কিছুক্ষণ বইপত্র পড়ি, কিছুক্ষণ টেলিভিশন  দেখি, রিমোট নিয়ে একটার পর একটা চ্যানেল বদলাই। আবার কিছুক্ষণ  মোবাইলের কল রিসিভ করে নানা মানুষের কথা শুনি। কিছুক্ষণ ঘুমাতেও হয়। এভাবেই আমার দিন যায়, রাত আসে। এটাই আমার আইসোলেশন লাইফ। দেশের অসংখ্য মানুষ তার জন্য দোয়া করেছেন, তার খোঁজ খবর নিয়েছেন। এজন্য তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

রুহুল হক

২০২০-০৫-৩০ ২০:০৭:৩৯

জনাব ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী সাহেব ! এখন থেকে নিয়মিত পবিত্র কোরআন বুঝে বুঝে অধ্যায়ন , তার উপর আন্তরিক বিশ্বাস স্থাপন এবং সেই আলোকে কাজ করার জন্য আন্তরিক আহবান জানাচ্ছি। মহান আল্লাহ যেন আপনাকে করোনা থেকে সুস্থতা ও নিরাপত্তা দান করেন - এই কামনা করছি।

Abu Ahamed Bhy

২০২০-০৫-৩০ ০৮:৫২:৪৪

I want to talk him.How i get him mobile number. pls help me....

আনিস উল হক

২০২০-০৫-২৯ ১১:২২:২২

রাষ্ট্র পরিচালনায়রত গণ জাফরুল্লাহ সাহেবের সাথে যে আচরণ করছেন তা যেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের " জুতা আবিস্কার " কবিতার চলচ্চিত্রায়ণ।

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

ফি দিয়েও পরীক্ষার সুযোগ মিলছে না

তিন দিন ধরে ঘুরছেন ক্যানসার আক্রান্ত রোগী

৩ জুলাই ২০২০

১১৭ দিনে আক্রান্ত দেড় লাখ ছাড়ালো

৩ জুলাই ২০২০

দেশে করোনার স্রোতকে কোনো ক্রমেই ঠেকানো যাচ্ছে না। সংক্রমণ শুরুর ১১৭ দিনের মাথায় আক্রান্ত দেড় ...

দেশে আবিষ্কৃত করোনা ভ্যাকসিনের প্রাথমিক সফলতার দাবি

৩ জুলাই ২০২০

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো মরণঘাতী করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি করেছে গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড। আবিষ্কৃত ভ্যাকসিন প্রাথমিক ...

ফি নিয়ে করোনা পরীক্ষা

দরিদ্ররা পরীক্ষার বাইরে থাকবে, সংক্রমণ বাড়বে

২ জুলাই ২০২০

১১১ বিশ্ব ব্যক্তিত্বের বিবৃতি

করোনা ভ্যাকসিনকে জনগণের সম্পত্তি ঘোষণার আহ্বান

২ জুলাই ২০২০



প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত



হোটেলে না থেকেও বিল, খাবার যায় ক্যান্টিন থেকে

যে কৌশলে টাকা লোপাট ঢামেকে

আল-কাবাসের রিপোর্ট

পাপুলের সহযোগী কে সেই এমপি?

বুড়িগঙ্গায় লাশের সারি, স্বজনদের আহাজারি

খামখেয়ালি, না পরিকল্পিত?

সরজমিন: রায়েরবাজার কবরস্থান

দূর থেকে শেষ বিদায়