‘সোলাইমানির মৃত্যুতে ফিলিস্তিনিদের প্রতিরোধ থেমে যাবে না’

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ২১ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৪৫

মার্কিন হামলায় নিহত ইরানের আল কুদস ফোর্সের কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলাইমানির মৃত্যুতে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলন থেমে যাবে না। কুদস দিবস উপলক্ষে দেয়া এক বক্তব্যে এমন প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন অঞ্চলটির প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের নেতা মাহমুদ আজ-জেহার। তিনি বলেন, ফিলিস্তিনিরা গত ৭২ বছর ধরে যেমন তাদের মাতৃভূমি মুক্ত করার শপথে অটল ছিল তেমনি ভবিষ্যতেও তাদের এ শপথ অটুট থাকবে। মাহমুদ আজ-জেহার বুধবার বিশ্ব কুদস দিবস উপলক্ষে একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেন। এতে তিনি বলেন, ইসরাইলের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ সংগ্রামে ফিলিস্তিনি জনগণকে সহযোগিতা করার জন্য বিশ্বের স্বাধীনচেতা দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানান। মাহমুদ আজ-জেহার আসন্ন কুদস দিবসকে ফিলিস্তিনি জনগণের অধিকার আদায়ের গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, এই দিবস আরব দেশগুলোর সঙ্গে অন্যান্য মুসলিম দেশগুলোর সম্পর্ক শক্তিশালী করতে পারে। উল্লেখ্য, ইরানের সাবেক শাসক আয়াতুল্লাহ খোমেনি ১৯৭৯ সালে রমজান মাসের শেষ শুক্রবারকে বিশ্ব কুদস দিবস হিসেবে পালন করার আহ্বান জানান।
তখন থেকে প্রতিবছর এ দিবস পালিত হয়ে আসছে। যতদিন ইসরায়েলের হাত থেকে আল-আকসা মসজিদ মুক্ত না হচ্ছে ততদিন প্রতিবছর এ দিবস পালনের আহ্বান জানানো হয়। এ বছর শুক্রবার বিশ্ব কুদস দিবস পালন করা হবে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

আহমেদ

২০২০-০৫-২৩ ০৭:৩৫:১১

মি সাব্বির সব আরব দেশ যখন পশ্চিমা পা চাটা গোলাম তখন জেনারেল সোলায়মানি ফিলিস্তিনিদের মুক্তির আলোর দিশারি, শিয়া সুন্নি বলবেন না । মুসলিম সবাই এক। কিয়ামতের দিনের জন্য নিজে তৈরি হন ।

সাব্বির

২০২০-০৫-২১ ১৬:২০:৩২

সোলাইমানি কি করছে ফিলিস্তনিতের জন্য? সিরিয়া, ইরাক, ইয়েমেন আর বারহাইনে সাম্প্রদায়িকতা ছড়ানো ছাড়া এর কি কাজ ছিল? নাকি ফিলিস্তিন যাইতে গেলে আগে সিরিয়া, ইরাক, ইয়েমেন আর বারহাইনে সুন্নিদের বাস্তুহারা করতে হবে? সোলাইমানি একটা শিয়া জঙ্গি ছিল।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত