মাইলানের সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তির ঘোষণা বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস’র

স্টাফ রিপোর্টার

শেষের পাতা ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:১৫

দেশের দ্রুত বর্ধনশীল জেনেরিক ফার্মাসিউটিক্যাল পণ্য ও সক্রিয় ফার্মাসিউটিক্যাল উপাদান প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের সঙ্গে স্বনামধন্য আন্তর্জাতিক ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি মাইলানের বাণিজ্যিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। ফলে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড এখন থেকে বাংলাদেশে মাইলান কোম্পানির নির্দিষ্ট কিছু পণ্য বাজারজাত করবে। মঙ্গলবার বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের পক্ষ থেকে এই চুক্তির ঘোষণা দেয়া হয়। চুক্তির শর্তানুযায়ী, নানান ধরনের ক্যান্সার, গেঁটে বাত, ক্রোনস রোগ, আলসারেটিভ কোলাইটিস ছাড়াও বিভিন্ন রোগের চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত মাইলানের প্রথম সারির মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডিজ ভিত্তিক ওষুধসমূহ এখন থেকে বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড সরাসরি বাজারজাত করতে পারবে। ২০২০ সালের প্রথম প্রান্তিকে মাইলান কোম্পানির প্রথম পণ্য হিসেবে স্তন ক্যান্সারের জন্য ব্যবহৃত অগিভ্রি (এৎড়ঁঢ় হধসব-ঞৎধংঃুঁঁসধন) ওষুধটি বাজারজাত করবে বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালস। এই অগিভ্রি ওষুধটি রোচ ফার্মাসিউটিক্যালসের জনপ্রিয় হারসেপ্টিনের বায়োসিমিলার।
উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে উক্ত ওষুধটির বিক্রি ৭ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যায়। অগিভ্রি ওষুধটি ইউ এস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন কর্তৃক অনুমোদিত এবং ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সিও ওষুধটিকে বাজারজাতকরণের অনুমোদন দিয়েছে।
বাংলাদেশে ব্যাধিজনিত মৃত্যুর অন্যতম প্রধান কারণ ক্যান্সার এবং বর্তমানে বাংলাদেশে ৫০ হাজারের বেশি রোগী টাইপ এইচইআর২-পজিটিভ স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত।
বেক্সিমকো ফার্মাসিটিক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান এমপি বলেন, আমরা মাইলানের সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তির ঘোষণা করতে পেরে খুবই উচ্ছসিত এবং এই ধরনের চুক্তি বাংলাদেশে প্রথমবারের মত হচ্ছে। মাইলান বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ ও বৈচিত্রময় বায়োসিমিলার পণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান যাদের প্রায় ৮০টি দেশে পণ্য বাজারজাতকরণের অনুমোদন রয়েছে। এইজন্য মাইলান বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের একজন আদর্শ অংশীদার হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। কেননা আমরা উভয়ই চিকিৎসাখাতে গুরুত্বপূর্ণ বায়োসিমিলার পণ্য নিয়ে কাজ করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আন্তর্জাতিক মানের পণ্য উন্নয়ন, বাজারজাতকরণ এবং নিয়ন্ত্রণ দক্ষতার সমন্বয়ে গঠিত এই অনন্য অংশীদারিত্বের মাধ্যমে বাংলাদেশে উন্নতমানের কিছু বায়োলজিক্স ও নির্দিষ্ট লক্ষ্যভিত্তিক উচ্চমানের মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডিজ বাজারজাত করা সম্ভব হবে। আমরা একসঙ্গে আমাদের রোগীদের এই অত্যন্ত প্রয়োজনীয় পণ্যগুলো আরো সাশ্রয়ী মূল্যে প্রদান করতে সক্ষম হব।
মাইলানের ভারত এবং সম্ভাবনাময় বাজারগুলোর প্রেসিডেন্ট রাকেশ বামজাই বলেন, উন্নয়নশীল দেশগুলোতে মহিলাদের মধ্যে স্তন ক্যান্সার হওয়ার ক্রমবর্ধমান প্রাদুর্ভাব জনস্বাস্থ্যের জন্য অন্যতম উদ্বেগ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বায়োসিমিলার ওষুধসহ অন্যান্য জটিল পণ্য বিকাশে আন্তর্জাতিক শীর্ষস্থানীয় কোম্পানি হিসেবে মাইলান, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তির মাধ্যমে ট্রান্সটুজুমাব গ্রুপের ওষুধকে বাংলাদেশের রোগীদের জন্য সহজলভ্য করে তুলতে পেরে খুবই সন্তুষ্ট। মাইলান এবং বেক্সিমকো প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলোতে সাশ্রয়ী মূল্যের এবং উচ্চমানের ওষুধ বাজারে আনার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এই বিকল্প চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়ে আসা তথাপি রোগীদের সময়য়োপযোগী এবং সাশ্রয়ী মূল্যের বিকল্প চিকিৎসা প্রদানের মাধ্যমে যাবতীয় প্রতিবন্ধকতা দূর করার ব্যাপারে আশাবাদী। মাইলান বায়োসিমিলার এবং অন্যান্য জটিল পণ্যগুলির উন্নয়নশীল বাজারের রোগীদের সরবরাহ করে সেবা প্রদানে গভীরভাবে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
বেক্সিমকো ফার্মা বাংলাদেশের ফার্মাসিউটিক্যালসের শীর্ষস্থানীয় রপ্তানিকারক। বর্তমানে এই সংস্থার ৫০টিরও বেশি দেশে বিশ্বব্যাপী পদচারনা রয়েছে এবং ইউএস এফডিএ, মাল্টা মেডিসিন অথোরিটি (ইইউ), টিজিএ (অস্ট্রেলিয়া), হেলথ কানাডা, জিসিসি (উপসাগরীয়) এবং টিএফডিএ (তাইওয়ান)সহ শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের দ্বারা অনুমোদিত।

আপনার মতামত দিন



শেষের পাতা অন্যান্য খবর

বড় সংকটে শ্রমবাজার

২৭ মার্চ ২০২০

করোনা ভাইরাস নিয়ে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

দক্ষিণ এশিয়ায় বাড়ছে সংক্রমণ

২৭ মার্চ ২০২০

আতঙ্কের জনপদ নিউ ইয়র্ক

আরো চার বাংলাদেশির মৃত্যু

২৬ মার্চ ২০২০



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত