অরুণা এখন

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৩৮
জনপ্রিয় অভিনেত্রী অরুণা বিশ্বাস এখন বহুমাত্রিক কাজেই ব্যস্ত। অভিনয়ের পাশাপাশি সেন্সর বোর্ডের সদস্য হিসেবে ব্যস্ততা তার। এছাড়া এবারের শিল্পী সমিতির নির্বাচনে কার্যনির্বাহী সদস্য পদে জয়লাভের পর সমিতির হয়ে শপথও নিয়েছেন। কিন্তু এত কিছুর ব্যস্ততার পরও অরুণা বিশ্বাস নিজেকে অভিনয়েই ব্যস্ত রাখতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। কারণ তিনি মনে করেন অভিনয়ই তাকে দর্শকের মধ্যে বাঁচিয়ে রাখবে। তাই আনুষঙ্গিক কাজ যাই করেন না কেন অভিনয়ে কোনোরকম ছাড় দেন না তিনি। এদিকে অরুণা বিশ্বাস সম্প্রতি সেন্সর বোর্ডের সদস্য হিসেবে জয়া আহসান অভিনীত ‘কন্ঠ’ সিনেমাটি দেখে খুব মুগ্ধ হয়েছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অনেকদিন পর একটি সিনেমা দেখে ভালো লাগলো।
যে সিনেমায় রবীন্দ্রনাথ আছেন, আছেন আমাদের জাতীয় কবি নজরুল। আছে ভালোলাগার মতো আরো অনেক কিছু। সিনেমার গল্পটা অসাধারণ। আর আমাদের জয়া এতে খুব ভালো অভিনয় করেছেন। এই ধরনের সিনেমাই দর্শক দেখতে আগ্রহী। অন্যদিকে সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে শাহআলম মণ্ডল পরিচালিত অরুণা বিশ্বাস অভিনীত ‘ডনগিরি’ সিনেমাটি। এতে তিনি অভিনয় করেছেন আলীরাজের বিপরীতে। এই সিনেমাতে অভিনয়ের জন্যও বেশ সাড়া পেয়েছেন তিনি। এরইমধ্যে অরুণা বিশ্বাস প্রায় শেষ করেছেন রহিম পরিচালিত ‘শান’ সিনেমার কাজ। এতে তিনি অভিনয় করছেন পূজা চেরীর মায়ের চরিত্রে। দীপ্ত টিভিতে প্রচার চলতি ধারাবাহিক নাটক ‘ভালোবাসার আলো আঁধার’ ও এটিএন বাংলায় প্রচার চলতি আরেকটি ধারাবাহিক নাটকেও অভিনয় করছেন তিনি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সমন্বয়হীনতা ও পর্যবেক্ষণের অভাবে বাজারে এমন অবস্থা

মাবিয়ার ইতিহাসের দিনে তিন স্বর্ণ বাংলাদেশের

বন্ধু সৈকত গ্রেপ্তার

তিন বিভাগের মধ্যে সমন্বয়ে গুরুত্বারোপ

ওবায়দুল কাদেরের বিকল্প কে?

দীর্ঘ হচ্ছে দুদকের অনুসন্ধান তালিকা বেশির ভাগই সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী

রাজধানীর পৃথকস্থানে দু’টি বাসে আগুন

বঙ্গবন্ধুকে ‘ডক্টর অব ল’ সম্মাননা দেবে ঢাবি

জটিলতায় আটকে আছে ২ লক্ষাধিক ড্রাইভিং লাইসেন্স

‘আওয়ামী লীগ আমার আবেগ আমার অস্তিত্ব’

সভাপতি এমএ সালাম সম্পাদক আতাউর

রোহিঙ্গাদের অধিকার বিষয়ক অফিস বন্ধের নির্দেশ বাংলাদেশের

সমাধান খুঁজছে সিলেট বিএনপি

নিহত রুম্পার গ্রামের বাড়িতে শোকের মাতম

সেনাবাহিনী প্রধান মিয়ানমার সফরে যাচ্ছেন আজ

রাখে আল্লাহ মারে কে!