মুখিয়ে মিনহাজুল আবেদিনও

স্পোর্টস রিপোর্টার, ইন্দোর (ভারত) থেকে

খেলা ১৪ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

দীর্ঘদিন জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব পালন করছেন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। তবে দেশের সাবেক এই শীর্ষ ক্রিকেটারের টেস্ট খেলতে না পারার আক্ষেপ আছে। তার নির্বাচক থাকা অবস্থায় ভারতের মাটিতে বাংলাদেশ দল প্রথম ও একমাত্র টেস্ট ম্যাচ খেলেছিল ২০১৭তে। তবে এবারই প্রথম এখানে খেলছে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। টি-টোয়েন্টি সিরিজে দারুণ চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিল টাইগাররা। দলের সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের অভাব বুঝতে দেয়নি মাহমুদুল্লাহর দল।

দিল্লিতে প্রথম ম্যাচে জয় দিয়ে সিরিজটাও নিজেদের করে ইতিহাস গড়ার সুযোগ হয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।
টেস্টেও একই রকম চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিবে বাংলাদেশ এমনটাই বিশ্বাস মিনহাজুল আবেদিনের। এক কথায় দারুণ এক লড়াইয়ের জন্য মুখিয়ে আছেন তিনি। ইন্দোরের হলকার স্টেডিয়ামে দৈনিক মানবজমিনের সঙ্গে একান্ত আলোচনায় তিনি বলেন, ‘আমরা দুই দিন এখানে অনুশীলন করলাম। সুবিধাগুলো ভালো এখানে। বিশেষ করে উইকেট দারুণ মনে হচ্ছে। ম্যাচেই বোঝা যাবে আমরা কতটা প্রস্তুতি নিতে পেরেছি। আমার বিশ্বাস যে, দল কন্ডিশনের সঙ্গে দ্রুত মানিয়ে নিয়েছে। আর যারা টেস্ট দলে এসেছে তারাও মানিয়ে নিতে পারবে দ্রুতই। আমি মুখিয়ে আছি ইতিবাচক টেস্ট ক্রিকেট দেখার জন্য।’

টি-টোয়েন্টি সিরিজে তরুণরা দারুণ করেছে। বিশেষ করে নাঈম শেখ নজর করেছেন দারুণভাবে। টেস্ট দলের নয়া অধিনায়ক মুমিনুল হক। তার সঙ্গে আছেন সাইফ হাসান, সাদমান ইসলাম, নাঈম হাসান, মেহেদী হাসান মিরাজের মতো সম্ভাবনাময় তরুণ বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার। যাদের দিকে তাকিয়ে আছেন মিনহাজুল আবেদিনও। তবে টেস্ট যে টি-টোয়েন্টির মতো নয়। তবে নিজেদের সেরাটাই দিবেন বলে বিশ্বাস তার। তিনি বলেন, ‘হ্যা, সাকিব-তামিম নেই কিন্তু তরুণদের উপর বিশ্বাস রাখতে হবে। মুমিনুল নতুন অধিনায়ক হলেও তার সক্ষমতায় আমি ভরসা করি। ও সবশেষ ‘এ’ দলকে দারুণ নেতৃত্ব দিয়েছে। আর ওতো বাংলাদেশের সেরা টেস্ট ব্যাটসম্যানদের একজন। এছাড়াও মিরাজ, লিটন, সাইফ, নাঈম, ইবাদত, আল আমিন, রাহীরাও দারুণ প্রতিভাবান। তবে টেস্ট টি-টোয়েন্টির মতো নয়। এখানে ওদের সেরাটাই দিতে হবে। আমি বিশ্বাস করি ওরা তা করতে পারবে।’

অন্যদিকে এই টেস্ট সিরিজের আগে দলের কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ নেই বলেও শুরু হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা। তবে মিনহাজুল এসব নিয়ে ভেবে নিজেদের পিছিয়ে রাখতে চান না। তিনি বলেন, ‘দেখেন আমরা যেমন সুযোগ পাইনি ভারতও কিন্তু পায়নি। তবে যারা টেস্ট দলে খেলছেন তারা কিন্তু বেশির ভাগই দেশে প্রথম শ্রেণির চার দিনের ম্যাচ খেলে এসেছে। আমি যা নেই তা নিয়ে না ভেবে যা আছে তা নিয়েই চিন্তা করতে চাই। এখানে যতটুকু সুযোগ হয়েছে প্রস্তুতি নেয়ার ওরা নিয়েছে। মুশফিক, ইমরুল, মুমিনুলরা অনেকটা সময় ব্যাটিং অনুশীলনে ব্যয় করেছে। এছাড়াও যে যার মত নিজেদেরকে টেস্টের আগে মানিয়ে নিতে চেষ্টা করছে। আমাদের কোচিং স্টাফরা বোলিং-ব্যাটিং সব নিয়েই কাজ করছেন।’

খেলা অন্যান্য খবর

অর্ণবের জন্য ভালোবাসা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

আর্সেনাল-ম্যান সিটি লড়াই আজ

আরেক পরীক্ষায় কোচ গার্দিওলা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯





আপনার মতামত দিন

খেলা সর্বাধিক পঠিত