বাগমারায় পাওনা টাকা চাওয়ায় ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী থেকে | ৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার
পাওনা টাকা চাওয়ায় রাজশাহীর বাগমারায় কফিল শাহ (৫৫) নামে এক মুদির দোকানিকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। গত বুধবার রাতে উপজেলার যোগীপাড়া ইউনিয়নের বীরকুৎসা উত্তর পাড়ায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এদিকে ব্যবসায়ী নিহতের ঘটনায় ওইদিন রাতেই নিহত কফিলের ছেলে সেজ্জাক আলী বাদী হয়ে বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তবে এখন পর্যন্ত ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামিদের কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, নিহত কফিল শাহ বীরকুৎসা রাজবাড়ি বাজারে মুদির  দোকানের পাশাপাশি বোতলে পেট্রোল বিক্রি করেন। একই গ্রামের রমজান আলীর ছেলে সিএনজিচালক ফেরদৌস (৩২) বাকিতে পেট্রোল নেন। গত বুধবার সন্ধ্যায় তার দোকানের পাশ দিয়ে যাচ্ছিল ফেরদৌস। তখন ব্যবসায়ী তার নিকট থেকে আগের পাওনা টাকা চান।
এতে  উভয়ের মধ্যে কথাকাটাকাটি শুরু হয়। এমন সময় ফেরদৌসের ভাই মিঠু ঘটনাস্থলে আসে। তারা উভয়ে দোকানি কফিল শাহকে দোকান থেকে বের করে মারপিট করতে থাকেন। একপর্যায়ে কফিল শাহকে তারা পাকা রাস্তায় ফেলে দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করতে থাকেন। এতে তার মাথা ফেটে ফিনকি দিয়ে রক্ত বের হয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। পরে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা পরে তাকে উদ্ধার করে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান বলেন, ‘খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় রাতেই ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুইজনকে আসামি করে নিহতের ছেলে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। আসামিরা পলাতক থাকায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তবে আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে। আশা করছি, দ্রুততম সময়ের মধ্যে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন