সিরিয়া ইস্যুতে তুরস্ক-রাশিয়া ‘ঐতিহাসিক চুক্তি’

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার
সিরিয়ার উত্তরাঞ্চল থেকে কুর্দি বাহিনীকে হঠিয়ে দিতে ‘ঐতিহাসিক চুক্তি’ করেছে তুরস্ক ও রাশিয়া। এর ফলে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে সীমান্তে যৌথভাবে প্রহরা দেবে তুরস্ক ও রাশিয়া। এখানে উল্লেখ্য, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সেনারা এরই মধ্যে যোগ দিয়েছে কুর্দি যোদ্ধাদের সঙ্গে। আবার আসাদের ঘনিষ্ঠ মিত্র রাশিয়া। আগেই সিরিয়ার ভিতরে বিদেশীদের হস্তক্ষেপের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন আসাদ। ফলে এখন তুরস্কের সঙ্গে রাশিয়ার যোগ দেয়ার বিষয়টি কোনদিকে মোড় নেবে তা বোঝা যাচ্ছে না। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

সিরিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্র সেনা প্রত্যাহার করার পর কুর্দিদের বিরুদ্ধে এ মাসে সামরিক হামলা শুরু করে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিপ এরদোগানের বাহিনী।
তারা সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে কুর্দিদের উৎখাত করে সেখানে একটি নিরাপদ এলাকা গড়ে তুলতে চায়। সেই নিরাপদ স্থানে তুরস্কে আশ্রয় নেয়া সিরিয়ার প্রায় ২০ লাখ শরণার্থীকে পুনর্বাস করতে চান এরদোগান। কিন্তু তার সামরিক অভিযানে ওই এলাকায় বিপুল পরিমাণ বেসামরিক মানুষ মারা যাওয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। ওদিকে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধে ঘনিষ্ঠ মিত্র ছিল কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস (এসডিএফ)। তাদের অভিযোগ, হত্যাযজ্ঞের মুখে তাদেরকে ফেলে গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। এ জন্য নিজ দেশে ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ব্যাপক সমালোচনার শিকার হচ্ছেন ট্রাম্প। তার প্রশাসন তুরস্কের ওপর যুদ্ধবিরতিতে চাপ সৃষ্টি করে। এর ফলে তুরস্ক যুদ্ধবিরতিতে যায়।

এ অবস্থায় রাশিয়ার সোচি’তে বৈঠক করেছেন এরদোগান ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। বৈঠক শেষে তারা একটি চুক্তিতে সম্মত হওয়ার কথা বলেছেন। একে তারা ঐতিহাসিক চুক্তি হিসেবে অভিহিত করেছেন। এতে তুরস্ক কুর্দিদের ওই এলাকা নিয়ন্ত্রণে নেয়ার কথা বলেছে। অন্যদিকে সিরিয়ার পাশাপাশি রাশিয়া সীমান্তের বাকি এলাকা তদারক করবে। এই চুক্তি ঘোষণার কয়েক ঘন্টা পরেই তুরস্ক বলেছে, তারা নতুন করে হামলা শুরু করবে না। কারণ সেখানে যুদ্ধবিরতি চলছে। তা ছাড়া কুর্দি যোদ্ধারা সেফ জোন থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নিয়েছে।
 
সিরিয়ার রাস আল আইন ও তাল আবিয়াদ শহরে মধ্যবর্তী ১২০ কিলোমিটার ফালির মতো এলাকা নিজেদের দখলে নিয়েছে তুরস্ক। তাদের এই অপারেশনকে অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া। তবে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘাতের ঝুঁকিকে দূরে রাখার কথা বলা হয়েছে। রাশিয়া ও তুরস্কের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মানবিজ ও তাল রিফাত শহর থেকে কুর্দি যোদ্ধাদের সরে যেতে হবে। এই শহর দুটি তুরস্কের অপারেশন এলাকার বাইরে। তবে তুরস্কের এই দাবি কুর্দিরা মেনে নিয়েছে কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায় নি। চুক্তি অনুযায়ী, উত্তর সিরিয়াতে তুরস্কের সঙ্গে যৌথভাবে প্রহরা দেবে রাশিয়ার সেনারা। এর মধ্য দিয়ে নিশ্চিত করা হবে যে, তুরস্কের সঙ্গে সিরিয়ার ওই সীমান্তবর্তী এলাকায় কুর্দিরা যাতে আর ফিরে না আসতে পারে। এই কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা আজ বুধবার থেকেই।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভারতে হিন্দুত্ববাদী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছেন মোদি: ইমরান

আসুন, মিথ্যাবাদীকে গাল দেই ‘সুচি’ বলে

বালিশকাণ্ডে গণপূর্তের সাবেক প্রধান প্রকৌশলীসহ ১৩ জন গ্রেপ্তার

নেত্রীর জামিন না হওয়ায় কোর্টের বারান্দায় অঝোড়ে কাঁদলেন শিরিন

নাইজারে সেনা ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলায় নিহত ৭৩

‘সার্বভৌম দেশ হিসেবে গাম্বিয়া আবেদন করেছে’

পররাষ্ট্র মন্ত্রীর ভারত সফর বাতিল

‘বিমানে পিয়াজ আমদানিতে কেজিতে খরচ ১৫০ টাকা’

হেগে চলছে আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক

নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৪, তদন্ত কমিটি গঠন

হাইকোর্টের সামনে থেকে দুই বিএনপি নেতা আটক

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় যা বললেন জয়নুল

খালেদার জামিন আবেদন খারিজের প্রতিবাদে ছাত্রদলের বিক্ষোভ

সুচির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান রোহিঙ্গাদের

‘ন্যায় বিচার পাইনি’

বৃটেনে ভোটকেন্দ্রের কাছে সন্দেহজনক ডিভাইস