বারান্দায় চলছে পাঠদান

সাওরাত হোসেন সোহেল, চিলমারী (কুড়িগ্রাম) থেকে

বাংলারজমিন ২২ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার

 কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার নয়ারহাট ইউনিয়নের দুর্গম চরাঞ্চলে অবস্থিত একমাত্র প্রতিষ্ঠান দক্ষিণ খাউরিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ। কয়েকটি চরাঞ্চলের শত শত শিক্ষার্থীর আশা আর ভরসা জড়িয়ে আছে প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। দুর্গম এই চরাঞ্চলের প্রতিষ্ঠানটি আজ নানা সমস্যায় জর্জরিত হয়ে নিজেই ভেঙে পড়েছে। নেই অবকাঠামো, নেই পর্যাপ্ত শ্রেণিকক্ষ, নেই আর নেইয়ের মধ্যে দিনে দিনে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা ব্যবস্থা ভেঙে পড়তে শুরু করেছে। মুখ থুবড়ে পড়েছে পাঠদানসহ বিভিন্ন কার্যক্রম। জানা গেছে, প্রায় ১৫ বছর আগে চরাঞ্চলের ছেলেমেয়েদের উচ্চ শিক্ষার জন্য উপজেলার নয়ারহাটের ফেসকার চরে এই স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। এবং ছেলেমেয়েদের কথা চিন্তা করে দক্ষিণ খাউরিয়া স্কুলটি কলেজে রূপান্তর করা হয়। কিন্তু প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সঠিক নজরদারির অভাবে নানাবিদ সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি।
দিনে দিনে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়লেও বাড়েনি শ্রেণিকক্ষসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় অবকাঠমো। অবকাঠামো আর শ্রেণিকক্ষের সংকটের কারণে কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয়েই বারান্দায় এবং বাইরে পাঠদান ও পরীক্ষার কার্যক্রম চালাচ্ছে। বারান্দায় এবং বাইরে পাঠদানের ফলে শিক্ষার্থীদের সঠিক ভাবে পাঠদান করা যাচ্ছে না বলে জানান ক্লাস শিক্ষকগণ। শিক্ষকরা আরো জানান, চলতি টেস্ট পরীক্ষাও প্রতিষ্ঠানের বারান্দায় নিতে বাধ্য হচ্ছি। ফলে পরীক্ষা দিতে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী এস এন সজীব আহম্মেদ ও শতাব্দী জাহান পুতুল জানান, বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ সংকটের কারণে বারান্দায় আবার কখনো বাইরে ক্লাস করতে হয়। বাইরে ক্লাসের কারণে আমাদের অনেক সমস্যা হচ্ছে। এ ছাড়াও টয়লেটটিও ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।
অভিভাবকগণ বলেন, ক্লাসরুম সংকটের কারণে একদিকে যেমন পাঠদানে বিঘ্ন ঘটছে, অপরদিকে শিক্ষার্থীরা ঠিকমতো ক্লাস করতে না পারায় পিছিয়ে পড়ছে। প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মো. জহুরুল ইসলাম মণ্ডল জানান, বর্তমানে বিদ্যালয়টির শ্রেণিকক্ষ ও অবকাঠামো সংকটের কারণে পাঠদান ও পরীক্ষা মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে।
সংস্কারের অভাবে একমাত্র খেলার মাঠটি দীর্ঘদিন ধরে অকেজো হয়ে পড়ে রয়েছে। আমরা বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বর্তমানে দক্ষিণ খাউরিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজে ৭৮০ জন শিক্ষার্থীর জন্য ২৮ জন শিক্ষক রয়েছেন। এলাকাবাসী জানান, এখানে কয়েকটি ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি চরের ছেলেমেয়েরা পড়াশুনা করছে। প্রতিষ্ঠানটির অবস্থা দিন দিন নাজুক হওয়ায় বেহাল দশা দেখা দিয়েছে শিক্ষা ব্যবস্থার।

আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন অন্যান্য খবর

ইলিয়টগঞ্জ বাজারে সরকারি জমি দখলের হিড়িক

২২ জানুয়ারি ২০২০

দাউদকান্দির ব্যস্ততম ইলিয়টগঞ্জ বাজার ও এর আশেপাশের এলাকায় কয়েক কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি দখল করে ...

শ্রীমঙ্গলে শ্রমিক ইউনিয়নে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবি

২২ জানুয়ারি ২০২০

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে উপজেলা ট্রাক, ট্যাংকলরি, কাভার্ডভ্যান পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি নং-২৪০৩) কার্যালয়ে হামলায় জড়িতদের আগামী ...

ইসলামপুরে ৩ গরুচোর আটক

২২ জানুয়ারি ২০২০

 ইসলামপুরে ৮টি চোরাই গরুসহ ৩ চোরকে আটক করেছে থানা পুলিশ। সোমবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ...

বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সম্পাদকের

২২ জানুয়ারি ২০২০

 অবশেষে দীর্ঘ চার বছর পর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার হলো মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ...

বাগমারায় জাবের বাহিনীর প্রধানসহ ৫ সহযোগী গ্রেপ্তার

২২ জানুয়ারি ২০২০

রাজশাহীর বাগমারার আলোচিত ‘জাবের বাহিনীর’ প্রধানকে তার ৫ সহযোগীসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার ভোরে ...

বন্দরে ৫ হাজার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

২২ জানুয়ারি ২০২০

বন্দরে ৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল  দুপুরে  ধামগড় ...

পঞ্চগড়ে বিএসএফ’র গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

২২ জানুয়ারি ২০২০

 বিএসএফ’র গুলিতে হাসান আলী (২৬) নামের এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছে। গতকাল ভোরে পঞ্চগড় সদর উপজেলার ...

পুঠিয়ায় মতবিনিময় সভা

২২ জানুয়ারি ২০২০

পুঠিয়া বিশেষ আইনশৃঙ্খলা ও অপরাধ পরিস্থিতি সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। রোববার বিকাল ৩টায় পুঠিয়া ...





বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত



রামুতে পিকনিকের বাস ব্রিজের রেলিং ভেঙে খাদে

সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১১