মেননকে ওবায়দুল কাদের

মন্ত্রী হলে কি এ কথা বলতেন?

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৮
বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক রাশেদ খান মেননের বক্তব্যকে মন্ত্রিত্ব না পাওয়ার আক্ষেপ বলে মনে করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গতকাল সচিবালয়ে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, তিনি যদি বলেই থাকেন, আমার প্রশ্ন হচ্ছে এতদিন পরে কেন? এই সময়ে কেন? নির্বাচনটা তো অনেক আগে হয়ে গেছে। আরেকটি প্রশ্ন সবিনয়ে-মন্ত্রী হলে কি তিনি এ কথা বলতেন? আর কোনো কিছু বলতে চাই না। রাশেদ খান মেনন কেন এ বক্তব্য দিয়েছেন, তা আনুষ্ঠানিকভাবে তার কাছে জানতে  চাওয়া হবে কিনা- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমাদের ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম সাহেব, সেটা আমরা তার কাছে জানতে চাইব। ক্যাসিনোকাণ্ডের পর একটি ক্লাবের সঙ্গে মেননের সম্পৃক্ততার কথা ওঠার ক্ষোভে তিনি এসব কথা বলছেন কিনা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটি তাকে জিজ্ঞাসা করলে ভাল হয়, তিনি কেন ক্যাসিনোকাণ্ডের পর এ কথা বললেন, ইলেকশনের পর কেন বললেন না। রাশেদ খান মেনন শপথ ভঙ্গ করেছেন কিনা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ওই প্রশ্নটা তাকে করেন। যুবলীগ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দলের সভাপতি যাকে চাইবেন তাকে মিটিং এ ডাকতে পারেন, সন্ধ্যার মিটিং এ ওমর ফারুক চৌধুরী থাকবেন কি না সেটা দলের সভাপতির সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করছে।
আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোর সম্মেলনের মধ্য দিয়ে এসব সংগঠনের নেতৃত্বে বিতর্কিত যারা রয়েছেন তারা অবশ্যই বাদ পড়বেন। যুবলীগের বয়সসীমা নিয়ে গঠনতন্ত্রে সংশোধন আসবে কীনা সে বিষয়েও আলোচনা হতে পারে বলে জানান তিনি। যুবলীগের নেতৃত্বে কারা আসবেন, বয়স কত হবে-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,আমার কাছে এই মুহূর্তে কোনো খবর নেই। এটা যুবলীগ ঠিক করবে। যুবলীগের বয়স, তারা আমাদের সভাপতি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বসবেন। সেখানে যদি কোনো নির্দেশনা থাকে, সেটা এই মুহূর্তে আমি বলতে পারছি না। কোনো পরিবর্তন বা কিছু করতে হলে যুবলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী করতে হবে। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির প্রশ্নে তিনি বলেন, বিষয়টি পুরোপুরি আইনি হলেও বিএনপি এটা নিয়ে রাজনীতি করছে, সরকারের ওপর দায় চাপাচ্ছে। কিন্তু তার মুক্তি নিয়ে আন্দোলনের কথা মুখে বললেও এখনও বিএনপি কোনো আন্দোলন করে দেখাতে পারেনি। আন্দোলন করতে সরকার তাদের বাধা দিচ্ছে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি। তিনি বলেন, বিএনপিকে আন্দোলন করতে বলুন। তারা পরিষ্কার বলে দিয়েছে, আন্দোলন ছাড়া খালেদা জিয়ার মুক্তির কোনো বিকল্প নেই। কাজেই এক মুখে এতো কথা কেন? তাদের বলুন, আন্দোলন করতে। মাদক, জুয়া ব্যবসার বিরুদ্ধে অভিযান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ক্যাসিনোকাণ্ডসহ কোনো অপরাধে কাউকে ছাড় দেয়া হচ্ছে না। অনেকের বিষয়ে খোঁজ নেয়া হচ্ছে, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করা হয়েছে, বিদেশ যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

বাহাউদ্দিন বাবলু

২০১৯-১০-২০ ১৮:২২:১৬

এই বক্তব্যের মাধ্যমে স্বীকার করে নিলেন নিজেদের অন্যায় কাজের সমালোচনাকারীদের সুযোগ সুবিধা দিয়ে মুখ বন্ধ করে রাখেন।

Ferdous

২০১৯-১০-২০ ১৭:২০:১৩

তাহলে মন্ত্রী হলে সব জায়েজ !

আপনার মতামত দিন

বিএনপির বিক্ষোভ রোববার

ভারতে হিন্দুত্ববাদী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছেন মোদি: ইমরান

আসুন, মিথ্যাবাদীকে গাল দেই ‘সুচি’ বলে

বালিশকাণ্ডে গণপূর্তের সাবেক প্রধান প্রকৌশলীসহ ১৩ জন গ্রেপ্তার

নেত্রীর জামিন না হওয়ায় কোর্টের বারান্দায় অঝোড়ে কাঁদলেন শিরিন

নাইজারে সেনা ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলায় নিহত ৭৩

‘সার্বভৌম দেশ হিসেবে গাম্বিয়া আবেদন করেছে’

পররাষ্ট্র মন্ত্রীর ভারত সফর বাতিল

‘বিমানে পিয়াজ আমদানিতে কেজিতে খরচ ১৫০ টাকা’

হেগে চলছে আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক

নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৪, তদন্ত কমিটি গঠন

হাইকোর্টের সামনে থেকে দুই বিএনপি নেতা আটক

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় যা বললেন জয়নুল

খালেদার জামিন আবেদন খারিজের প্রতিবাদে ছাত্রদলের বিক্ষোভ

সুচির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান রোহিঙ্গাদের

‘ন্যায় বিচার পাইনি’