মোদি সরকারের তীব্র সমালোচনায় প্রিয়াঙ্কা গান্ধী

কলকাতা প্রতিনিধি

দেশ বিদেশ ২০ অক্টোবর ২০১৯, রোববার

নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করে ভারতের মোদি সরকারের রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল যে মন্তব্য করেছেন তার পাল্টা সোস্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। টুইটারে শনিবার প্রিয়াঙ্কা লিখেছেন, দেশের অর্থনীতি ভেঙে পড়ছে। আপনাদের উচিত তার উন্নতি করা। অথচ তা না করে আপনারা কমেডি সার্কাস চালাচ্ছেন। ভারতীয় অর্থনীতির দুরবস্থার কথা সব আন্তর্জাতিক সংস্থাই তুলে ধরেছে। মোদি সরকার সব ঠিক আছে বললেও  ভারতের আর্থিক বিকাশ নিয়ে, বিশ্বব্যাংক থেকে শুরু করে দেশের রিজার্ভ ব্যাংক পর্যন্ত যে হিসাব দিচ্ছে তা যথেষ্টই উদ্বেগজনক। কয়েক মাস আগে পর্যন্তও যে সব বড় বড় আর্থিক বা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ভারতের উন্নয়নের গতি নিয়ে প্রবল আশাবাদী ছিল, তারা হঠাৎ উল্টো সুর গাইতে শুরু করে দিয়েছে। বিশ্বব্যাংক আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডার (আইএমএফ), এশিয়ান  ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি), ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক (আরবিআই) থেকে শুরু করে মুডি’জ ইনভেস্টরস সার্ভিস, ফিচ  রেটিংস, স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড পুওরস-এর মতো প্রতিষ্ঠানগুলো কয়েক মাস আগে ভারতের বৃদ্ধির যে সম্ভাব্য হার ঘোষণা করেছিল, তা ঝপ করে অনেকটাই নিচে নামিয়ে এনেছে সমপ্রতি।
অথচ মোদির মন্ত্রীরা নোবেলজয়ীর সমালোচনায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল শুক্রবার বলেচেন, অভিজিতের তত্ত্ব্ব দেশের মানুষ খারিজ করে দিয়েছে।  নোবেলজয়ীকে বামপন্থি তক্‌মা দিয়ে গোয়েল বলেছেন, উনি নির্বাচনের আগে কংগ্রেসের ন্যায় (ন্যূনতম আয়) প্রকল্প রচনা করেছিলেন। কিন্তু মানুষ তা গ্রহণ করেনি। এরই জবাবে প্রিয়াঙ্কা বলেছেন, নিজেদের যা দায়িত্ব সেই কাজ না করে তারা অন্যের সাফল্যকে অস্বীকার করতে চাইছেন। নোবেল বিজয়ী সততার সঙ্গে কাজ করেছেন এবং নোবেল পেয়েছেন। হিন্দিতে টুইট করার পাশাপাশি তিনি সংবাদপত্রে প্রকাশিত পরপর তিনমাস ধরে অটোমোবাইল শিল্পে শ্লথের খবরের কাটিং তুলে ধরেছেন।





আপনার মতামত দিন

দেশ বিদেশ -এর সর্বাধিক পঠিত