নকল রোধের অভিনব উপায়

এক্সক্লুসিভ

মানবজমিন ডেস্ক | ২০ অক্টোবর ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৩০
নকল ও পরীক্ষায় টোকাটুকি রোধে অভিনব এক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে ভারতের কর্নাটকে এক কলেজে। বুধবার সেখানকার ভগত পিইউ কলেজে ছিল এইচএসসি রসায়ন অর্ধবার্ষিক পরীক্ষা। এতে যাতে শিক্ষার্থীরা নকল করতে বা অন্যের খাতা দেখে লিখতে না পারে সেজন্য অভিনব ওই ব্যবস্থা নেয় কর্তৃপক্ষ। তারা পরীক্ষা শুরুর আগে সব শিক্ষার্থীর মাথায় পরিয়ে দেয় কার্ডবোর্ডের কার্টন। শিক্ষার্থীর মুখ বরাবর ছোট্ট ছিদ্র রাখা হয়, যাতে সে দেখতে পায়। ফলে পরীক্ষা হলে শিক্ষার্থীদের মাথা দেখা যায় না। দেখা যায় শুধু কার্ডবোর্ডের বাক্স। এমন ছবি ও ভিডিও সামাজিক ওয়েবসাইটে ভাইরাল হয়।
একের পর এক শেয়ার হতে থাকে তা। এ খবর চলে যায় শিক্ষাবোর্ডে। সঙ্গে সঙ্গে সেখানকার কর্মকর্তারা ছুটে যান ওই কলেজে। এর ব্যবস্থাপনা পরিষদকে এমন চর্চা চালানো থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া।

ওই কলেজের খুব সামান্য সংখ্যক পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় প্রতারণার আশ্রয় নেয়। তবে সব সময়ই এর বিরুদ্ধে বাড়তি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয় কর্তৃপক্ষ। কিছু কিছু শিক্ষার্থী প্রতারণার আশ্রয় করতে গিয়ে বাহুতে নোট লিখে নিয়ে যায়। বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গে নকল নিয়ে যায়। নকল নেয় জ্যামিতি বক্সের সঙ্গে। আবার কেউ কেউ ইদানীং ইয়ারফোন এবং ইলেক্ট্রিক ভিডাইসের আশ্রয় নিয়ে থাকে। তাদের এসব অসদুপায়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া এখন কর্তৃপক্ষের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে মাথায় বাক্স পরিয়ে পরীক্ষা দেয়ানোর ধারণা খুব কমই মাথায় এসেছে। এতে যারা খুব মেধাবী শিক্ষার্থী তারা অপমানিত বোধ করেছে। এর মধ্য দিয়ে কর্তৃপক্ষ বুঝাতে চেয়েছে কাউকেই বিশ্বাস করা যায় না। এর জবাবে পিইউ বোর্ডের উপ-পরিচালক এসসি পীরজাদে বলেছেন, তিনিই কলেজ ব্যবস্থাপনাকে একটি নোটিশ দিয়েছেন। তিনি এ উপায়ে পরীক্ষা নেয়াকে অমানবিক বলে আখ্যায়িত করেছেন। তবে কলেজ পরিচালকদের একজন এমবি সতীশ বলেছেন, শিক্ষার্থীদের অসদুপায় অবলম্বন কমিয়ে আনতে আমরা এমন ধারণার বাস্তবায়ন করেছি। তাদেরকে হয়রান করার জন্য এটা করা হয় নি। আর এটা করা হয়েছে শুধু পরীক্ষামূলকভাবে। আগেই আমরা এ ইস্যুতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করেছি এবং তাদের মতামত নিয়েছি। তিনি আরো জানান, বোর্ড কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা মেনে চলবে কলেজ।

ওদিকে পীরজাদে বলেছেন, যখনই আমি এ বিষয়ে খবর পেয়েছি সঙ্গে সঙ্গে ওই কলেজে গিয়ে হাজির হয়েছি। এই চর্চা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছি। কলেজ ব্যবস্থাপনা পরিষদকে নোটিশ দিয়েছি। এমন ধারণা বাস্তবায়ন করার কারণে তাদের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেছেন, শিক্ষার্থীদের বলা হয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ এ রকম আর কোনো পদক্ষেপ নিলে তারা যেন সঙ্গে সঙ্গে বোর্ডকে জানান। পীরজাদে বলেন, এটা অমানবিকতা। সভ্য সমাজ কখনো এমন ধারণা মেনে নিতে পারে না। আশা করি এটা আর ঘটবে না।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

রিপন

২০১৯-১০-২০ ০৯:২৯:৪৬

এক কাম করন যায় না? মাথায় বাকসো না পরাইয়া, পরীক্ষার্থীগুলার চোখ বাইন্ধা হাত ঠ্যাং চেয়ার টেবিলের পায়ার সঙ্গে বাইন্ধা কলমখানি কাইড়্যা লইয়া কইবেন, ক অমুক প্রশ্নের উত্তর কী? আমিই লিইখ্যা দিমু। পদ্ধতিটা টেসটো কইর‍্যা দেখতে পারে কর্ণাটকওয়ালার। আমাদের দরকার নাই, আমাদের কর্ণ বহুত আগেই ওস্তাদের টানাটানির চোটে টক থিইক্যা ঝাঁ ঝাঁ ঝাল হইয়া গেছেগা।

আপনার মতামত দিন

স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে নবীন চিকিৎসকদের কাজ করতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

হাইডেলবার্গে আলী রীয়াজের অনুষ্ঠানে বাধা

লিগ্যাল নোটিশ দাতাকে পাল্টা লিগ্যাল নোটিশ

রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ, আটক ১২

খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে সরকার রসিকতা করছে: রিজভী

খালেদার জামিন শুনানিকালে এজলাসে হট্টগোল, ঘটনা তদন্ত ও আইনগত ব্যবস্থা চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ

ফেসবুক, ইন্টারনেট ও অনলাইন থেকে মিথিলা-ফাহমির ছবি সরানোর নির্দেশ

বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে জাহাঙ্গীর-সাদিক আব্দুল্লাহ

‘নীরব এলাকা’য় হর্ন বাজালে দণ্ড

সিরাজগঞ্জে আ’ লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে আহত ৪০

পুলিশের গুলিতে ২ আনসার সদস্য আহত

দুই কলেজছাত্রীর ফাঁদ

টাকার শেষ গন্তব্য না পাওয়ায় চার্জশিট অনুমোদন দেয়া হয়নি

রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে সোনা জিতলো বাঘিনীরা

রুম্পা হত্যা: সৈকত চার দিনের রিমান্ডে

সেই সেনাদের পক্ষ নিচ্ছেন সুচি