টিনেজারের সঙ্গে যৌন সম্পর্কের আশায়...

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার
একজন টিনেজ বালিকার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করতে ৩৫০ মাইল পথ পাড়ি দিয়েছেন ৩২ বছর বয়সী টমি লি জেনকিনস। ঠিকই তিনি ওই বালিকার শহরে এসে পৌঁছেছেন। কিন্তু ওই বালিকার সঙ্গে তার সাক্ষাত হওয়ার আগে, তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের পরিবর্তে ঠাঁই হয়েছে জেলে। আসলে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের জালে পা দিয়েছিলেন। পুলিশের সোর্স হিসেবে তার সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছিল ওই টিনেজ বালিকার। কর্তৃপক্ষ বলছে, টমি লি জেনকিনসের বাড়ি যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানার হোয়াইটটাউনে। তার সঙ্গে যোগাযোগ হয় ১৪ বছর বয়সী একজন বালিকা কিলি’র। কিলির বাড়ি উইসকনসিনে।
এ সময়ে তিনি খুব সহজেই তার সঙ্গে ম্যাসেজ বিনিময় শুরু করেন। দ্রুততায় সম্পর্ক গড়ে ওঠার পর তিনি কিলির সঙ্গে সাক্ষাত করতে চান। এ খবর দিয়ে বৃটেনের অনলাইন দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট বলছে, প্রসিকিউটরদের দাবি কিলি তার অনুরোধের জবাবে বলেছিল তার বয়স মাত্র ১৪ বছর। জবাবে জেনকিনস বলেছিলেন, এতে কোনো সমস্যা নয়। তার ম্যাসেজ ছিল এ রকম- তুমি আমার চিরদিনের প্রিয়তমা হবে। আমার এমন লোকজন আছে, যারা কাগজপত্রের মাধ্যমে বৈধতার বিষয়টি ঠিকঠাক করবে।
তাকে কিলি জানায়, তার সঙ্গে সাক্ষাত করার জন্য সে ইন্ডিয়ানায় যেতে পারবে না। এ কথা বলার পর জেনকিনস তার যাত্রা শুরু করেন। কখনো বাসে করে। কখনো পায়ে হেঁটে পাড়ি দেন। পৌঁছে যান উইসকনসিনে উইনেবাগো কাউন্টিতে। এখানে আসার আগে পর্যন্ত তিনি বুঝতে পারেন নি যে, যে কিলির সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন, শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চেয়েছেন তিনি উইনেবাগো কাউন্টির শেরিফ অফিসের একজন সদস্য। জেনকিনস সেখানে হাজির হতেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন



গাল্ফ সম্মেলনে যোগ দিতে সৌদি আরব যাচ্ছেন না কাতারের আমির

দুর্নীতির দায়ে দীর্ঘ কারাদণ্ড আলজেরিয়ার সাবেক ২ প্রধানমন্ত্রীর

‘ন ডরাই’ সিনেমার প্রদর্শণী বাতিল ও তুলে নিতে হাইকোর্টের রুল

আদালতে ভাবলেশহীন সুচি

২ অ্যাডহক বিচারকের শপথ

‘রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়টিও আদালতে উঠতে পারে’

আপিল বিভাগের এজলাস কক্ষে সিসি ক্যামেরা বসানোর কাজ শুরু

‘বাংলাদেশে হিন্দু নির্যাতন থামেনি বলেই এই বিল’

যশোরে ছাত্রলীগ নেতা খুন

ভিপি নুরের বিরুদ্ধে মানহানির মামলার আবেদন

যে বিচারকরা হেগে বিচার করবেন

উল্লাপাড়ায় গৃহবধূর চুল কেটে দেয়া মামলার প্রধান আসামী জেলে

চেক প্রজাতন্ত্রে হাসপাতালে বন্দুক হামলা, নিহত ৬

১৬ই ডিসেম্বর থেকে ‘জয় বাংলা’ জাতীয় স্লোগান হওয়া উচিত

হেগে রোহিঙ্গা নারীর ক্ষোভ

ভিন্ন মতাবলম্বী যখন স্বৈরাচার হয়ে ওঠেন