আবরার খুনে জড়িতদের দ্রুত সর্বোচ্চ শাস্তির আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন ১৪ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার, ৭:২৩ | সর্বশেষ আপডেট: ৭:৪৪

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত সময়ের সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন,দোষী যে দলেরই হোক না কেন তাদের ছাড় দেয়া হবে না। বিকেলে আবরারের বাবা-মা ও পরিবারের সদস্যরা গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গেলে তাদের এসব বলেন শেখ হাসিনা। গণভবন সূত্র জানায়,বিকাল পাঁচটায় আবরার ফাহাদের বাবা বরকত উল্লাহ,মা রোকেয়া বেগম এবং ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ গণভবনে যান প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে। এসময় তাদের সান্তনা দেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী তাদের আশ্বাস দিয়ে বলেন,অপরাধীর রাজনৈতিক পরিচয় যাই হোক না কেন, সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। তিনি বলেন,কোনও সান্তনাই আপনাদের যন্ত্রণা প্রশমন করতে পারবে না। কিন্তু সরকার এজন্য ত্বরিত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।
খুনিদের গ্রেপ্তার করেছে। দ্রুত তাদের বিচার শুরু হবে। তিনি বলেন,বিষয়টি নিয়ে এরইমধ্যে আইনমন্ত্রীকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আবরার ফাহাদ ছিলেন বুয়েটের তড়িৎকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। গত ৭ অক্টোবর ভোরে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে এরইমধ্যে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের ১৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগও বুয়েট শাখার ১১ নেতাকে বহিষ্কার করেছে। এ ঘটনায় আবরারের বাবা ১৯ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন চকবাজার থানায়।
 

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Golpo

২০১৯-১০-১৪ ১১:৪৯:৩৬

আবরার বেঁচে থাকলে আজ শিবির কর্মী হিসেবে জেলে পড়ে থাকতো। আবরার হত্যাকরীদের এখন অনেক বাহবা দেয়া হতো, পদোন্নতির সুদৃষ্টি মিলতো ‘উপর’ থেকে। অতীতে অসংখবার এমনটাই হয়েছে । তাহলে বাহবাকারীদের কেন বিচার হচ্ছেনা। কেন এখনো তারা হুঙ্কার দিয়ে বেড়াচ্ছে। আজ পুরো দেশটাই কক্ষ 2011. উন্নয়নের মুলা আর কতদিন ? এই মূলায় আর কাজ হবে না। জনগণ সব দেখছে।জনগণ প্রতিদিন ধরবেনা, একদিনই ধরবে। আর যেদিন ধরবে সেইদিন কেউ ছাড় পাবেনা। সেই দিনের অপেক্ষায় থাকলাম। কে জানে হয়তো আজ আমার নাম উঠে গেলো শিবির হিসেবে!

ওস্তাদ গিরগির খাঁ।

২০১৯-১০-১৪ ০৮:৫৭:০৭

দেখা তো করেছিলেন সাগর-রুনির বাবা-মা, নুসরাতের বাবা-মা, বিশ্বজিতের বাবা-মা, ইলিয়াস আলীর স্ত্রী এবং আরো অনেকেই। কি ? বিচার পেল তারা?? নাহ পাই নাই. প্রধানমন্ত্রী উচিৎ এইসব বিচারের রায় কার্যকর করে তারপর ওইসব অসহয় পরিবারের সাথ দেখা করা.

Kathak

২০১৯-১০-১৪ ২১:১৬:৫৮

Police stopped opposition parties leaders from meeting Abrar''s family but you brought them to your office. Because you are now in power and can use your administration in the way you like to use it. How weak you and your government are as you fear that the if the opposition leaders go to Abrar's village home it can create movement against your unethically elected government.

Kamal

২০১৯-১০-১৪ ০৮:০৪:১৪

Yes it happened before with other killer

মামুন হাজারি

২০১৯-১০-১৪ ২০:০৭:১২

উনি বিচার ঠিকই করবেন আবার প্রেসিডেন দিয়ে ক্ষমা করে দিবেন

ফারুক হোসেন

২০১৯-১০-১৪ ১৯:৩৪:৫২

ধন্যবাদ আপনাকে তবে সেই রাষ্টপতি যে তাদের ক্ষমা করবেনা তার গ্যারান্টি চাই।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

সুজনের তথ্য বিশ্লেষণ

অধিকাংশ কাউন্সিলর প্রার্থীই স্বল্প শিক্ষিত

২৫ জানুয়ারি ২০২০

২০ টাকার জন্য...

২৫ জানুয়ারি ২০২০

ঝিনাইদহে শুরু হয়েছে ৩দিন ব্যাপী জাতীয় নজরুল সম্মেলন

২৫ জানুয়ারি ২০২০

ঝিনাইদহে শুরু হয়েছে ৩ দিন ব্যাপী জাতীয় নজরুল সম্মেলন। এ উপলক্ষ্যে আজ সকালে শহরের পুরাতন ...





অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



আইনজীবী ইন্দিরার সমালোচনায় কঙ্গনা

ওই মহিলাকে চার দিন ধর্ষকদের সঙ্গে জেলে রাখা উচিত