সম্রাটের মা বললেন, ‘আমার ছেলে নির্দোষ’

স্টাফ রিপোর্টার

অনলাইন ১৩ অক্টোবর ২০১৯, রোববার, ২:১৪

যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী ওরফে সম্রাট কোনো অপরাধের সঙ্গে সম্পৃক্ত নয় বলে দাবি করেছেন তার মা সায়রা খাতুন চৌধুরী। ছেলে নির্দোষ দাবি করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে মুক্তি প্রার্থনাও করেন তিনি। আজ রোববার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে পরিবারের পক্ষ থেকে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সায়রা খাতুন।
সংবাদ সম্মেলনে সম্রাটের মায়ের পক্ষে তার বোন ফারহানা চৌধুরী লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। বক্তব্যে বলা হয়, সম্রাট গ্রেপ্তারের ১০ দিন আগে থেকে অফিসে ছিলেন না, অফিস ছিল অরক্ষিত। শরীর খারাপ থাকায় অন্যত্র অবস্থান করছিলেন। তার অফিসে মদ, ইয়াবা, পিস্তল কিছুই ছিল না। আমাদের আশঙ্কা, এটি পরিকল্পিত সাজানো নাটক ছাড়া কিছুই না।
সায়রা খাতুন চৌধুরী বলেন, ‘গত ৬ অক্টোবর আমার সন্তানকে গ্রেপ্তার করা হয়। যে স্থান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় সে স্থান থেকে কোনো প্রকার অস্ত্র কিংবা মাদক পাওয়া যায়নি।
কিন্তু আমরা মিডিয়ার মাধ্যমে দেখতে পেলাম, তাকে কাকরাইল অফিসে নিয়ে যাওয়া হয় এবং প্রায় চার ঘণ্টা তার অফিসে তল্লাশি করা হয়। তল্লাশি চলাকালীন কোনো গণমাধ্যমকর্মীকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। সম্রাটকে নিয়ে অফিসের ভেতরে প্রবেশের সময় বিভিন্ন মিডিয়ায় লাইভ সম্প্রচারে দেখা গেছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কিছু লোক কাঁধে ব্যাগ নিয়ে প্রবেশ করে।’
বিভিন্ন ক্লাবের ক্যাসিনো সঙ্গে সম্রাটের জড়িত থাকার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ঢাকা শহরের প্রতিটি ক্লাব পরিচালনা করার জন্য কমিটি রয়েছে। আমার সন্তান সম্রাট কোনো ক্লাবের পরিচালনা কমিটির সদস্য নয় এবং ডাক গ্রহণকারীও নয়। শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে এবং ব্যক্তিগত আক্রোশে তাকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে জড়ানো হচ্ছে।’
সম্রাটের কার্যালয়ে ক্যাঙ্গারুর চামড়া পাওয়া যাওয়ায় তাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সম্রাটের মা বলেন, ‘বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে যে মামলায় তাকে ছয়মাসের সাজা দেয়া হয়েছে সে মামলার আদেশ আমরা এখনও হাতে পাইনি। ক্যাঙ্গারু বাংলাদেশি বন্যপ্রাণী নয় এবং বাংলাদেশ এই প্রাণীটির বিচরণ দেখা যায় না। যেহেতু এই ক্যাঙ্গারু বাংলাদেশের শিকার হয়নি, তাই এটি বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনের মধ্যে পড়ে না।’

ক্যাঙ্গারু চামড়াটি এক প্রবাসী বাংলাদেশি সম্রাটকে উপহার হিসেবে দিয়েছেন দাবি করে সায়রা খাতুন বলেন, এটি আইনবিরোধী কাজ নয়। এজন্য সাজা দেয়ার বিধান নেই।

সম্রাট দলে অনুপ্রবেশকারী নয় দাবি করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে তার সন্তানের উন্নত চিকিৎসার জন্য মুক্তি দাবি করেন মা সায়রা খাতুন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমি একজন মা হিসেবে আপনার কাছে আকুতি করছি, সম্রাটের ভুলত্রুটি ক্ষমা করে ওকে মুক্ত করে দিন। তাকে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দিয়ে আমার সন্তানের জীবন রক্ষা করুন।’

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

নিসারুল ইসলাম

২০১৯-১০-১৩ ১৬:২২:২২

এই রকম মা না হলে সম্রাটরা তৈরী হবে কিভাবে ? বহু মানুষকে এই সরকারের আমলে তথাকথিত বন্দুকযুদ্ধের মাধ্যমে হত্যা করা হয়েছে । তাদের স্বজনদেরকে সংবাদ সম্মেলন দূরে থাকুক, লাশও নিতে দেয়া হয়নি । বলা হয়েছে, তাঁরা লাশ নিতে আগ্রহী নয় । অথচ একজন গডফাদারের মা জাতীর সাথে তামাশা করছে, প্রশাসনের ছত্রছায়ায় ।

Nurul alam

২০১৯-১০-১৩ ০৭:৪৮:৪২

খালাম্মা পৃথিবীর সেরা মানুষটা হলেন 'মা'। সকল মায়ের কাছেই সন্তান নিরপরাধ । আপনার ছেলেও একসময় হয়ত তা-ই ছিল । কিন্তুু ঐ নষ্ট রাজনীতি আপনার ছেলেকে ভালো থাকতে দেয়নি । বানিয়েছে ক্যাসিনো সম্রাট ! তাকে দিয়ে বানিয়েছে ওরা লাঠিয়াল বাহিনী। আরো কত কি কাণ্ড ! দোয়া করুন বাংলাদেশ হতে যেন ঐ নোংরা আর জঘণ্য রাজনীতি চিরতরে বিদায় নেয়। শুধু একজন সম্রাট নয় এরূপ বহু মায়ের সন্তানকে পেশী শক্তির রাজনৈতিক হাতিয়ারে পরিণত করা হয়েছে ।

Star

২০১৯-১০-১৩ ০৭:৩৯:৫৩

Chur er ma boro gola shroom nai tumar abar safai gao

Nixon

২০১৯-১০-১৩ ০৬:৩৮:২৪

আপনার ছেলের ক্যাসিনোর ধানদা ছিল এটা তো সীকার করেন মিসেস সায়রা খাতুন চৌধুরী ? তাহলে আরেকটি ব্যাপার শুনুন অস্ত্র , গাজাঁ আফিম এসব কাছে না থাকলে ক্যাসিনোর ধানদা হয় না ম্যাডাম খাতুন । আর এইসব লোকেদের কোনও বন্ধু নেই ।

ahammad

২০১৯-১০-১৩ ০৩:১২:৫৯

প্রত্যেক মায়েরাই মমতাময়ী হয়ে থাকেন। ছেলে যতই অপরাধ করুনাকেন মায়ের চোখে তার সন্তান নির্দোশ এটাই স্বাভাবিক। আপনার ছেলের জীবনে কত মায়ের বুক খালী করেছে তা আপনি মা জানেন কি ??????

অনিচ্ছুক

২০১৯-১০-১৩ ০১:৫২:১৬

হারাম খেয়ে খেয়ে শরম ও খেয়ে ফেলেছে। হায়রে মা।

জাফর আহমেদ

২০১৯-১০-১৩ ০১:২০:২৪

আসলে সব মা সন্তানের পক্ষ টানবে এটাই স্বাভাবিক। পরকালের কথা চিন্তা করে উনি বলুন উনার অষ্টম শ্রেণি পাশ সন্তান কোন যাদু বলে হাজার কোটি টাকার মালিক। উনার বৈধ আয়ের উৎস কী।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

চাঁদাবাজি ও অপহরণের অভিযোগে

লক্ষ্মীপুরে ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

২৭ জানুয়ারি ২০২০

অর্থ আত্মসাৎ

৩ ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

২৭ জানুয়ারি ২০২০

রাজশাহীতে শিশু ধর্ষণ-হত্যা মামলায় দুই জনের মৃত্যুদণ্ড

২৭ জানুয়ারি ২০২০

রাজশাহীতে ১০ বছর বয়সী শিশুকে পালাক্রমে ধর্ষণের পর হত্যার মামলায় দুই আসামিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদ- ...





অনলাইন সর্বাধিক পঠিত